মোংলায় মহিলা লীগ নেত্রীকে কুপিয়ে জখম

11 October 2020, 2:58 PM
বাংলাদেশ

মোংলা বন্দরের পাওয়ার হাউজ (বন্দর বিপনী মার্কেট) এলাকায় মাদক সেবীদের হামলা ও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত মহিলা লীগ নেত্রী শিউলি বেগমের অবস্থা আশংকাজনক হয়ে পড়েছে। তার শারিরীক অবস্থার অবনতি ঘটায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য মোংলা সরকারী হাসপাতাল থেকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালো প্রেরণ করা হয়েছে। এদিকে এ হামলার ঘটনায় চারজনকে আসামী করে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছে আহত শিউলি বেগম। পৌর ৪ নং ওয়ার্ড মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শিউলি বেগম বলেন, বেশ কিছুদিন যাবৎ বন্দর বিপনী মার্কেটে সন্ধ্যা হওয়ার সাথে সাথে মদ গাজার আসর বসাতো ওই এলাকার সোহেল মাহমুদ শ্রাবন। অপরিচিত অনেক ব্যক্তি সেখানে আসা যাওয়া করতেন। এতে ওই এলাকার সামাজিক পরিবেশ নষ্ট হয়ে আসছে। বিভিন্ন এলাকার মাদক সেবীদের ওইখানে ঝড়ো হতে বাঁধা দেয় শিউলি বেগম। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শুক্রবার দুপুরে সোহেল মাহমুদ শ্রাবন, জাকির, হুমায়ন ও জাকির হোসেন নামের চার মাদকসেবী শিউলি বেগমের উপর হামলা চালায়। তাদের হাতে থাকা দা ও রড দিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। পরে শিউলি সাথে থাকা পারুল ও পারভিন তাকে উদ্ধার করে মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। শিউলির মাথা কেটে যাওয়ায় চারটি শেলাইসহ প্রয়োজনী চিকিৎসা সেবা দেন হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক। পরে আহত শিউলির শারিরীক অবস্থা অবনতি হলে শনিবার রাতে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপতালে প্রেরণ করা হয়েছে। খুলনা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন শিউলির অবস্থাও অবনতির দিকে বলে জানিয়েছেন তার স্বজ্বনরা। এদিকে হামলার ঘটনায় শিউলি বেগম শুক্রবার থানায় ডিউটি অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন। অভিযোগ দেয়ার পর পুলিশের তেমন কোন তৎপরতা নেই বলে অভিযোগকারী শিউলি বেগমের। এ বিষয়ে মোংলা থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক মো: রাসেল মিয়া বলেন, আমি ডিউটি অফিসারের দায়িত্বে ছিলাম কিন্তু অভিযোগ কার কাছে দেয়া হয়েছে তা আমি জানি না। এ ঘটনায় স্থায়ী বন্দরের পাওয়ার হাউস, দিগরাজ ও বুড়িরডাঙ্গা এলাকার দায়িত্বপ্রাপ্ত এএসআই মো: রুহুল বলেন, অভিযোগটি থানায় রয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত কেউকে ওই অভিযোগটি মার্ক করে দেয়া হয়নি বলেও জানান তিনি।


Logo