১ লাখ সদস্যের প্রতিরক্ষা বাহিনী গঠন করছে তালেবান – বর্ণমালা টেলিভিশন

১ লাখ সদস্যের প্রতিরক্ষা বাহিনী গঠন করছে তালেবান

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ২ জানুয়ারি, ২০২২ | ৯:১৫ 61 ভিউ
তালেবান শাসিত আফগানিস্তানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় (এমওডি) জানিয়েছে, ১ লাখ সদস্যের সমন্বয়ে একটি নতুন সামরিক বাহিনী গঠন করার চেষ্টা চলছে। এই প্রতিরক্ষা বাহিনীতে ইসলামী আমিরাত বাহিনী তথা তালেবান সদস্যদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র এনায়েতুল্লাহ খোয়ারাজামি জানিয়েছেন, বাহিনী গঠনের প্রক্রিয়া প্রায় ৮০ শতাংশ সম্পন্ন হয়েছে। বাহিনী গঠন শেষ হলে সদস্যদের স্কোয়াড্রন অর্থাৎ স্থল, ও আকাশ সীমানা সুরক্ষার দায়িত্বে পাঠানো হবে। গত আগস্টে কাবুলে পশ্চিমা সমর্থিত আশরাফ গনি সরকারের পতন হয়। এই ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে আফগানিস্তানের সাড়ে তিন লাখ জাতীয় প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা বাহিনীও ভেঙে যায়। আশরাফ গনি সরকারের সাড়ে তিন লাখ নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যের মধ্যে দেড় লাখ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে ছিলেন। তালেবান ক্ষমতায় আসলেও সাবেক কিছু নিরাপত্তা কর্মকর্তা চাকরিতে তাদের পূর্বের অবস্থানে আছেন। আফগানিস্তানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, নতুন ১ লাখ সদস্যের প্রতিরক্ষা বাহিনী গঠনের জন্য ২০ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটিকে প্রয়োজনের আলোকে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে একটি সুশৃঙ্খল বাহিনী গঠনের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। আফগানিস্তানের সামরিক বিশেষজ্ঞরা ইসলামিক আমিরাত সরকারকে, নতুন সামরিক বাহিনীতে সাবেক নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের অন্তর্ভুক্ত করার পরামর্শ দিয়েছেন। এ প্রসঙ্গে সাবেক সামরিক কর্মকর্তা সমর সাদাত বলেন, সেনাবাহিনীকে মানসম্মত করা উচিত। বাহিনীকে সামরিক শৃঙ্খলা মেনে চলতে হবে। তাদের একটি যথাযথ ইউনিফর্ম এবং সুবিন্যস্ত গঠন থাকা উচিত। আজিজ মুজাদিদি নামে একজন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশিক্ষক বলেন, জাতীয় নিরাপত্তা বাহিনীতে দেশের সব জাতিগোষ্ঠীকে অন্তর্ভুক্ত করা উচিত। সাবেক সামরিক সদস্যরা যারা তাদের কর্মক্ষেত্রে পেশাদার ছিলেন তাদেরকে নতুন সামরিক ইউনিটে রাখা উচিত। আফগানিস্তানের বর্তমান তালেবান সরকার নিরাপত্তা হুমকির কারণে সাবেক সশস্ত্র বাহিনীর যারা দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন, তাদেরকে ফিরে এসে একটি উন্নত আফগানিস্তান গঠনের জন্য কাজ করার আহ্বান জানিয়েছে।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:



































শীর্ষ সংবাদ:
বেনাপোল সীমান্তে সচল পিস্তলসহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী গ্রেফতার নির্মাণসামগ্রীর দাম চড়া, উন্নয়ন প্রকল্পে ধীরগতি কলম্বোতে কারফিউ জারি টিকে থাকার লড়াইয়ে ছক্কা হাকাতে পারবেন ইমরান খান? করোনায় আজও মৃত্যুশূন্য দেশ, শনাক্ত কমেছে ‘ততক্ষণ খেলব যতক্ষণ না আমার চেয়ে ভালো কাউকে দেখব’ এবার ইয়েমেনে পাল্টা হামলা চালাল সৌদি জোট স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালিতে যুবলীগ নেতার মৃত্যু সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র রপ্তানি করেছে মোদি সরকার বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দেওয়া নিয়ে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, এলাকা রণক্ষেত্র ইউক্রেনকে বিপুল ক্ষেপণাস্ত্র ও মেশিনগান দিয়েছে জার্মানি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে নারীকে ধর্ষণ, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩ ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের ‘লাল-সবুজের পতাকা বিশ্বজুড়ে আনবে একতা‘-শীর্ষক সভা বঙ্গবন্ধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নওগাঁর নওহাঁটায় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন । ভূরুঙ্গামারীতে ব্যাপরোয়া অটোরিকশা কেরে নিল শিশুর ফাহিম এর প্রাণ ভূরুঙ্গামারী কিশোর গ‍্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আহত যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ৬ তম রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ক্যাম্পেইন বেনাপোলে পৃথক অভিযানে ৫২ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক-২ বেনাপোল স্থলপথে স্টুডেন্ট ভিসায় বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমন নিষেধ গেরিলা যোদ্ধা অপূর্ব