সময় বাড়ায় সবাই খুশি, বাড়ল প্রত্যাশাও – বর্ণমালা টেলিভিশন

সময় বাড়ায় সবাই খুশি, বাড়ল প্রত্যাশাও

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ১ মার্চ, ২০২২ | ৭:০৫ 49 ভিউ
কোভিডকালে দোলাচল নিয়েই শুরু হয়েছিল মেলা। শুরু তো হলো। শেষ কবে? উত্তরটা নিশ্চিত করে কেউ বলতে পারছিল না। সংশয়, সন্দেহ ছিল। অবশেষে আগামী ১৭ মার্চ পর্যন্ত মেলা চালানোর ঘোষণা দিয়েছে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়। করোনা নিয়ে শঙ্কা কিছুটা কমায় এমন সিদ্ধান্ত। সিদ্ধান্তে প্রায় সবাই খুশি। শীত মোটামুটি উধাও। গরম বাড়ছে। এ অবস্থায়ও সময় বাড়ানোর আগের দিনের ঘোষণাকে স্বাগত স্বাগত জানিয়েছে সব পক্ষ। ১৪তম দিনে মেলা ঘুরে এমন ধারণা হয়েছে। বিকেলে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রবেশ করে দেখা যায়, মানুষজন সবে আসতে শুরু করেছে। ভিড় কিছুটা কম। ফলে স্বাচ্ছন্দ্যে বই দেখছিলেন পাঠক। একটা বড়সড় জটলা দেখে সেদিকে এগিয়ে যেতেই পাওয়া হয়ে গেল ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালকে। যথারীতি বিভিন্ন বয়সী ছেলেমেয়ে তাকে ঘিরে রেখেছিলেন। ভাবতে ভাল লাগে যে, আমাদের ছেলেমেয়েদের আকৃষ্ট করতে পারে এমন একজন জাফর ইকবাল অন্তত আমাদের আছেন। প্রিয় লেখককে নিয়ে সে কী আগ্রহ খুদে পাঠকের! অটোগ্রাফ শিকারীরা এক মুহূর্তের জন্য তাঁকে ছাড়ছিল না। অনেকক্ষণ অপেক্ষা করার পর কথা বলার সুযোগ দেন তিনি। টুকটাক আলাপচারিতা। বলছিলেন, মেলা তো খুবই আনন্দের বিষয়। আনন্দ দীর্ঘায়িত হলেই তো ভাল। সময় বাড়ানোয় আরও বেশি মানুষ মেলায় আসতে পারবে। তার চেয়ে বড় কথা প্রকাশকরা গত দুই বছর খুব ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। তারা এবার হয়ত ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে পারবেন। করোনা সংক্রমণের ভয় কাটিয়ে উঠছে মানুষ। মাস্ক পরে মেলায় চলে আসছে। মেলা তাই সামনের দিনগুলোতে আরও জমবে বলেই মনে করেন তিনি। পরে উৎস প্রকাশনের স্টলে বসে কথা হয় প্রকাশক মোস্তফা সেলিমের সঙ্গে। তিনি বলছিলেন, আমাদের কারও কারও প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানের স্টল খুব খারাপ জায়গায় পড়ে গেছে। এ জন্য বিপদে আছি। তবে মেলার সময় বাড়ানোর ফলে বিপদ হয়ত কিছুটা কমবে। সেদিকেই তাকিয়ে আছেন বলে জানান তিনি। ৯৩ নতুন বই ॥ অমর একুশে বইমেলার ১৪তম দিনে তথ্যকেন্দ্রে নতুন বই জমা পড়েছে ৯৩টি। ‘লেখক বলছি’ অনুষ্ঠানে নিজেদের বই নিয়ে আলোচনা করেন হরিশংকর জলদাস এবং মোহিত কামাল। নির্বাচিত বই ॥ মেলায় আসা নতুন বইয়ের ভিড়ে পছন্দের বইটি খুঁজে নেয়া মুশকিলের কাজ। একেকজনের আগ্রহও একেক বিষয়ে। তাই নানা বিষয়ে লেখা বই থেকে চারটি বইকে পাঠকের জন্য নির্বাচন করে দেয়ার চেষ্টা হলো এখানে। স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম ১২৩ দিন ॥ লেখক ড. হালিম দাদ খানের ব্যতিক্রমী প্রয়াস বলতে হবে। প্রকাশ করেছে আগামী। বইতে স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশের প্রথম ১২৩ দিনকে আলোচনার বিষয় করা হয়েছে। দিনগুলো যে ঘটনাবহুল ছিল সে তো কারও অজানা নয়। লেখক সেসব ঘটনা এবং ঘটনার পূর্বাপর ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়া তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন। এ ক্ষেত্রে তিনি আশ্রয় করেছেন সংবাদপত্রের বিভিন্ন সংবাদ এবং প্রবন্ধ নিবন্ধের ওপর। ৩৩টি বিষয়ে বিন্যস্ত ‘লেখচিত্রে’ দেশ পুনর্গঠন, পুনর্বাসন, পাকিস্তানী আমলের আমলাদের সীমাবদ্ধতা, বীর মুক্তিযোদ্ধাদের হতাশাসহ নানা কিছু উঠে এসেছে। সব মিলিয়ে সংগ্রহে রাখার মতো। ৪৪০ পৃষ্ঠার বইয়ের মূল্য ১০০০ টাকা। নন্দনতত্ত্বের ইতিহাস ॥ নন্দনতত্ত্বের ওপর লেখা বইয়ের আলাদা একটা চাহিদা সব সময় লক্ষ্য করা যায়। বাংলাদেশে হাতেগোনা কয়েকজন এ বিষয়ের ওপর বই লিখেছেন। এবার মেলায় এসেছে একই বিষয়ের ওপর আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত একটি বইয়ের অনুবাদ। শিরোনাম করা হয়েছে ‘নন্দনতত্ত্বের ইতিহাস।’ ক্যাথারিন এভারেট গিলবার্ট ও হেলমুট কুনের মূল বইটি থেকে অনুবাদ করেছেন শফিকুল ইসলাম। বইতে নন্দনতত্ত্বের ইতিহাস ঘেঁটে তাত্ত্বিক ও বস্তুগত উভয় প্রকারের বহুবিচিত্র উপাদানের পদ্ধতিগত সন্নিবেশ ঘটানো হয়েছে। লেখকদ্বয় ডেমোক্রিটাস, প্লেটো, এ্যারিস্টটলসহ গ্রীক চিন্তাধারার প্রতিভূদের নান্দনিক শিক্ষার ব্যাখ্যা-বিশ্লেষণ করেছেন। তেমনি ইউরোপের মধ্যযুগীয় রেনেসাঁ ও নিও-ক্ল্যাসিকাল নন্দনতত্ত্বের বিষয়ে নিরীক্ষা করেছেন। এতে কান্ট, গ্যেটে, শিলার, ফিকটে, শেলিং, হেগেলের নান্দনিক দৃষ্টিভঙ্গির পর্যালোচনা আছে। একইভাবে আছে বেকন, বার্কলি, হিউম, লিবনিজের আলোচনাও। প্রকাশ করেছে মাওলা ব্রাদার্স। গোলাম হুসনের গান ॥ সিলেট অঞ্চলের লোক সংস্কৃতি ও লোকগানের ওপর গুরুত্বপূর্ণ অনেক গবেষণা প্রবন্ধ, নিবন্ধ প্রকাশ করেছে উৎস প্রকাশন। সেই ধারাবাহিকতায় এ বইটি এলো। বৈশিষ্ট্যটা লক্ষ্য করার মতো। তার আগে বলি, বাংলা লোকগানের সমৃদ্ধ এবং প্রাচীন ধারা মরমি গান। গবেষকদের কারও কারও অভিমত, সিলেট অঞ্চলেই এ ধারার গানের উদ্ভব ও বিকাশ। লালন-পূর্ববর্তী বহু গীতিকারের সন্ধানও সিলেট অঞ্চলে পাওয়া যায়। এঁদেরই একজন গোলাম হুসন (১৬৯৪-?)। এ পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, ১৭৭৪ সালে তাঁর রচিত পা-ুলিপি ‘তালিব হুসন’ সুফিবাদ ও মরমি গানের প্রথম পা-ুলিপি। এখানেই বইটি বিশেষ বিবেচনার দাবি রাখে। এ পা-ুলিপিতে ৪০টি গানের পাশাপাশি সুফি ঘরানার বিষয়বস্তুকেন্দ্রিক বহু পয়ার রয়েছে। প্রায় আড়াইশ’ বছর লোকচক্ষুর আড়ালে থাকা লোকায়ত ধারার সাহিত্যের অমূল্য এই পা-ুলিপি সংগ্রহ করে প্রথমবারের মতো জনসমক্ষে নিয়ে এসেছেন নাগরী লিপি বিষয়ক সাহিত্যের গবেষক মোস্তফা সেলিম। গোলাম হুসনের গান শীর্ষক এ বইটিতে পুঁথির পয়ার অংশটুকু বাদ দিয়ে ৪০টি গান-ই কেবল সংকলিত হয়েছে। দুই ভাষাসংগ্রামীর মুখোমুখি ॥ বইটির পুরো নাম- ‘ভাষা আন্দোলনের ৭০ বছর, দুই ভাষাসংগ্রামীর মুখোমুখি।’ হাবিবুল্লাহ ফাহাদের সাক্ষাতকার ভিত্তিক বই। বেশ কয়েক বছর আগে ভাষাসংগ্রামী আহমদ রফিক ও রফিকুল ইসলামের সাক্ষাতকার গ্রহণ করেছিলেন তিনি। সেই সাক্ষাতকার বই আকারে যখন মেলায় এসেছে ততদিনে দুজনের একজন রফিকুল ইসলাম আর নেই। আহমদ রফিকের শারীরিক অসুস্থতাও অনেক বেড়েছে। পাশাপাশি ভাষা আন্দোলনের ৭০ বছর উদ্যাপনের উপলক্ষ্য হিসেবে বইটিকে গ্রহণ করা যায়। এ বইটিও প্রকাশ করেছে আগামী। ১৫২ পৃষ্ঠার বই। মূল্য ৪০০ টাকা। মেলা মঞ্চের আয়োজন ॥ বিকেলে বইমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় ‘আনিসুজ্জামান, রফিকুল ইসলাম, শামসুজ্জামান খান’ শীর্ষক আলোচনা। এতে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন গোলাম মুস্তাফা এবং এম আবদুল আলীম। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন সারওয়ার আলী এবং সাইমন জাকারিয়া। সভাপতিত্ব করেন মুনতাসীর মামুন। ‘আনিসুজ্জামান : নিষ্ঠাবান গবেষক, অঙ্গীকারাবদ্ধ সমাজ-চিন্তক’ শীর্ষক প্রবন্ধ উপস্থাপন করে গোলাম মুস্তাফা বলেন, আনিসুজ্জামানের গবেষণা শুধু বুদ্ধিবৃত্তির চর্চায় সীমিত নয়, এগুলোর সামাজিক উপযোগিতা ও গুরুত্বও অনস্বীকার্য। আমাদের জীবন-সমাজ-রাষ্ট্রে যেসব দ্বন্দ্ব নানা সময়ে প্রকট হয়েছে, তিনি সেগুলো পর্যবেক্ষণ করেছেন এবং সেই দ্বন্দ্বগুলোর যুক্তিসঙ্গত মীমাংসায় উপনীত হওয়াকে তাঁর কর্তব্য বলে মনে করেছেন। এ কারণেই তাঁর পা-িত্য ও গবেষণা বিদ্যায়তনিক সীমাবদ্ধতা ছাপিয়ে আমাদের জাতীয় জীবনের পাথেয় হয়ে উঠেছে। ‘স্মরণ : রফিকুল ইসলাম, শামসুজ্জামান খান’ শীর্ষক প্রবন্ধ উপস্থাপন করে এম আবদুল আলীম বলেন, ভাষাসংগ্রামী-নজরুল গবেষক রফিকুল ইসলাম এবং ফোকলোরবিদ শামসুজ্জামান খান বাংলাদেশের সাহিত্য-সংস্কৃতির অঙ্গনে উজ্জ্বল দুটি নাম। আপন কর্ম সাধনায় তাঁরা কীর্তিমান হয়েছেন। বাংলা ভাষা, বাংলা সাহিত্য এবং বাঙালী সংস্কৃতির পঠন-পাঠন, গবেষণা এবং উৎকর্ষ সাধনে তাঁরা যে অবদান রেখে গেছেন, তা অতি গৌরবের। অন্য আলোচকরা বলেন, আনিসুজ্জামান, রফিকুল ইসলাম এবং শামসুজ্জামান খান- এই তিন মহীরুহ তাঁদের চেতনা ও বুদ্ধিবৃত্তিক কর্মকা- দ্বারা আমাদের প্রেরণা জুগিয়েছেন। অসাম্প্রদায়িক ও মুক্তচিন্তার অধিকারী এই তিন মনীষী বাঙালী জাতিসত্তাকে অন্তরে ধারণ করেছিলেন। স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ার অগ্রযাত্রায় তাঁদের চিন্তাচেতনা ও দর্শন আমাদের পথ দেখাবে। সভাপতির বক্তব্যে মুনতাসীর মামুন বলেন, আনিসুজ্জামান, রফিকুল ইসলাম ও শামসুজ্জামান খান- তিনজনই সারাজীবন বুদ্ধিবৃত্তিক চর্চায় নিবেদিত ছিলেন। তবু সাধারণ মানুষের সঙ্গে তাঁদের সম্পর্ক ছিল অবিচ্ছিন্ন। ধর্মনিরপেক্ষ-অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়াই ছিল তাঁদের জীবনের আদর্শ, সংগ্রাম ও স্বপ্ন। সামাজিক ন্যায়ভিত্তিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার জন্য এই তিন কীর্তিমান বাঙালীকে আমাদের স্মরণ করতে হবে। পরে স্বরচিত কবিতা পাঠ করেন কবি বদরুল হায়দার, হাসনাইন সাজ্জাদী এবং হানিফ খান। আবৃত্তি করেন আহসানউল্লাহ তমাল, সাফিয়া খন্দকার রেখা, ডাঃ আওরঙ্গজেব আরু এবং মিজানুর রহমান সজল। ছিল সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘অচিন পাখি’ এবং ‘উজান’-এর পরিবেশনা। একক সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী আবু বকর সিদ্দিক, আজগর আলীম, আলম দেওয়ান, রাজিয়া সুলতানা, সমীর বাউল, শান্তা সরকার, সুধীর ম-ল।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:



































শীর্ষ সংবাদ:
বেনাপোল সীমান্তে সচল পিস্তলসহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী গ্রেফতার নির্মাণসামগ্রীর দাম চড়া, উন্নয়ন প্রকল্পে ধীরগতি কলম্বোতে কারফিউ জারি টিকে থাকার লড়াইয়ে ছক্কা হাকাতে পারবেন ইমরান খান? করোনায় আজও মৃত্যুশূন্য দেশ, শনাক্ত কমেছে ‘ততক্ষণ খেলব যতক্ষণ না আমার চেয়ে ভালো কাউকে দেখব’ এবার ইয়েমেনে পাল্টা হামলা চালাল সৌদি জোট স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালিতে যুবলীগ নেতার মৃত্যু সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র রপ্তানি করেছে মোদি সরকার বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দেওয়া নিয়ে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, এলাকা রণক্ষেত্র ইউক্রেনকে বিপুল ক্ষেপণাস্ত্র ও মেশিনগান দিয়েছে জার্মানি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে নারীকে ধর্ষণ, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩ ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের ‘লাল-সবুজের পতাকা বিশ্বজুড়ে আনবে একতা‘-শীর্ষক সভা বঙ্গবন্ধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নওগাঁর নওহাঁটায় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন । ভূরুঙ্গামারীতে ব্যাপরোয়া অটোরিকশা কেরে নিল শিশুর ফাহিম এর প্রাণ ভূরুঙ্গামারী কিশোর গ‍্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আহত যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ৬ তম রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ক্যাম্পেইন বেনাপোলে পৃথক অভিযানে ৫২ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক-২ বেনাপোল স্থলপথে স্টুডেন্ট ভিসায় বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমন নিষেধ গেরিলা যোদ্ধা অপূর্ব