শেষ হলো প্রথম ডোজের গণটিকা – বর্ণমালা টেলিভিশন

শেষ হলো প্রথম ডোজের গণটিকা

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ১ মার্চ, ২০২২ | ৭:০৬ 37 ভিউ
দেশজুড়ে ব্যাপক উৎসাহ আর উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে প্রথম ডোজের গণটিকাদান কর্মসূচী। এরপর আর ব্যাপক হারে দেয়া হবে না করোনা টিকা। ‘এক দিনে এক কোটি টিকা’ স্লোগান সামনে রেখে টিকাদান কর্মসূচীর ঘোষণা দেয়া হলেও টিকাপ্রাপ্তির চাহিদার প্রেক্ষিতে সময় বাড়ানো হয় আরও দুদিন। ফলে শনিবার থেকে শুরু হওয়া এ বিশাল কর্মযজ্ঞ শেষ হয় সোমবার। স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্যমতে, শনি ও রবিবার মিলিয়ে দুদিনে এ ক্যাম্পেনের মাধ্যমে টিকা পেয়েছে অন্তত ১ কোটি ৪৪ লাখ মানুষ, যা লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে গেছে। আর এর ফলে এখন পর্যন্ত দেশে প্রায় ২১ কোটি ডোজ টিকা দেয়া হয়েছে উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানিয়েছেন, এতে করে দেশের মোট জনসংখ্যার প্রায় ৭৩ শতাংশই এসেছে টিকার আওতায়, যা বিশ্বে বিরল দৃষ্টান্ত। সূত্র জানায়, ২০২১ সালের ২৭ জানুয়ারি থেকে চলতি বছরের ২৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সারাদেশে ২০ কোটি ৯৯ লাখ ৩৭ হাজার ৮০৫ ডোজ টিকা দেয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে প্রথম ডোজ নিয়েছেন ১২ কোটি ২৬ লাখ ৮৯ হাজার ৮৩১ জন, দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ৮ কোটি ৩৫ লাখ ২৯ হাজার ৩৮৯ ও বুস্টার ডোজ ৩৭ লাখ ১৮ হাজার ৫৮৫ জন। এই টিকা কার্যক্রমের প্রথম ডোজের সমাপ্তকরণের উদ্যোগের প্রেক্ষিতে শনিবার থেকে শুরু হওয়া বিশেষ টিকাদান ক্যাম্পেনের দ্বিতীয় দিন রবিবার সারাদেশে প্রায় ২৮ লাখ ডোজ (২৭ লাখ ৯৩ হাজার ১১৭ ডোজ) টিকা দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে টিকার প্রথম ডোজ ১১ লাখ ৩৩ হাজার ৭৭৫, দ্বিতীয় ডোজ ৭ লাখ ৭৪ হাজার ৪৩৮ ও বুস্টার ডোজ নেন ৮৪ হাজার ৯০৪ জন। এর আগে বিশেষ এই কর্মসূচীর প্রথম দিনে ১ কোটি ২০ লাখ ডোজের বেশি টিকা দেয়া হয়। এমন ঘটনা বিশ্বে বিরল দাবি করেন খোদ স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী বলেন, এটি একদিনে টিকাদানের বিশ্ব রেকর্ড হয়েছে। মানুষের মধ্যে অভূতপূর্ব সাড়া পড়ায় বিশেষ ক্যাম্পেনের কার্যক্রমের মেয়াদ আরও দুদিন বাড়ানো হয়। যা এর আগে কখনও হয়নি। তিনি বলেন, দেশে এ পর্যন্ত প্রায় ২১ কোটি ডোজ টিকা দেয়া হয়েছে। যার ফলে দেশের মোট জনসংখ্যার প্রায় ৭৩ শতাংশ মানুষই এসেছে টিকার আওতায়। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে একটি দেশের ৭০ ভাগ মানুষকে টিকার আওতায় আনা দরকার। আমরা এই লক্ষ্যমাত্রা ছুঁতে পেরেছি যা অত্যন্ত আনন্দের। টিকাদান কার্যক্রম সঠিকভাবে চলার কারণেই দেশ এখন করোনায় ঝুঁকিমুক্ত। একই কথা বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক এবং ইমেরিটাস অধ্যাপক ডাঃ এ বি এম আব্দুল্লাহ। জনকণ্ঠকে তিনি বলেন, অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশ করোনা মোকাবিলায় সফলভাবে ভূমিকা রাখছে। যে কারণে সংক্রমণ ও মৃত্যু তুলনামূলক কম ছিল। আর এর অন্যতম কারণ টিকাদান কর্মসূচীর সফলতা। তিনি বলেন, আমরা যেভাবে টিকাদান কর্মসূচী পরিচালনা করছি তাতে করে আশা করা যাচ্ছে চলতি বছরের মধ্যেই দেশের সব শ্রেণীর মানুষই টিকার আওতায় চলে আসবে। আমাদের হাতে পর্যাপ্ত টিকা তো রয়েছেই। আমরা প্রস্তুতি নিচ্ছি দেশেই টিকা উৎপাদনের। দেশে করোনার টিকা উৎপাদন করে গরিব দেশকে বিনামূল্যে দেয়ারও চিন্তা-ভাবনা আমাদের রয়েছে। দেশে টিকা উৎপাদন হবে। আমাদের দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশে রফতানি এবং গরিব দেশকে বিনামূল্যে টিকা দেয়া সম্ভব হবে বলে আশা করতেই পারি এখন আমরা। তিনি বলেন, টিকাদান কর্মসূচীর শুরুতে একটু সমস্যা হলেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে সঙ্কট কাটিয়ে উঠে চমৎকারভাবে টিকা ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। যার ফলে এরই মধ্যে আমরা টিকাদানের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছি। এদিকে এই ক্যাম্পেনের পর দেশে আর কেউ খুব জরুরী কারণ ছাড়া প্রথম ডোজের করোনার টিকা পাবেন না বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের লাইন ডিরেক্টর ও টিকা কর্মসূচীর সমন্বয়ক অধ্যাপক ডাঃ শামসুল হক। জনকণ্ঠকে তিনি বলেন, চলমান এই কর্মসূচীর সময় আর বাড়ানো হবে না। আজকের (সোমবার) পর থেকে নির্ধারিত কেন্দ্রগুলোতে দ্বিতীয় এবং বুস্টার ডোজের কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চললেও প্রথম ডোজের টিকাদান কর্মসূচী সঙ্কুচিত হয়ে আসবে। কেউ চাইলেই সহজেই প্রথম ডোজের টিকা নিতে পারবেন না। তবে যুক্তিসঙ্গত কারণ দেখিয়ে সীমিত কিছু কেন্দ্রে পাবেন প্রথম ডোজের টিকা। এদিকে শেষদিনের মতো প্রথম ডোজের গণটিকা বিশেষ ক্যাম্পেনে সোমবার কেন্দ্রগুলোতে প্রথম দিনের মতো মানুষের উপচে পড়া ভিড় না থাকলেও টিকাগ্রহীতাদের উৎসাহের কমতি ছিল না। প্রায় সব কেন্দ্রেই ছিল টিকাপ্রত্যাশীদের লাইন। রাজধানীর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট টিবি হাসপাতালে নিজের বাসার সহকারীকে টিকা দেয়াতে নিয়ে এসেছেন আব্দুল হাকিম। তিনি বলেন, আমরা দুজন বুড়ো-বুড়ি একটা বাসায় থাকি। ছেলেমেয়ে সব বিদেশে থাকে। তাই দুইজন কাজের মানুষ সারাক্ষণ সহযোগিতা করে। কিন্তু তাদের কোন ভোটার আইডি বা জন্মনিবন্ধন সনদ ছিল না তাই এতদিন টিকা নিতে পারছিল না। এই বিশেষ ক্যাম্পেনের কারণে তা সম্ভব হলো। সরকারকে ধন্যবাদ। রাজধানীর মিরপুরের মনিপুরে কসমোপলিটন স্কুলে দেখা যায়, গণটিকা কার্যক্রমের শেষ দিনে সকাল ৯টা থেকে টিকা কার্যক্রম শুরু হলেও দুই-তিন জন নারী কেন্দ্রে উপস্থিত হন। সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের উপস্থিতি কিছুটা বাড়লেও গত কয়েক দিনের তুলনায় অনেক কম। মানুষের উপস্থিতি কম থাকায় শৃঙ্খলাভাবে টিকা কার্যক্রম পরিচালনা করতে দেখা গেছে। একই অবস্থা ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কেন্দ্রেও। আগের দুই দিন টিকাপ্রত্যাশীদের দীর্ঘ লাইন নিয়ন্ত্রণ করতে হিমশিম খাওয়া নিরাপত্তাকর্মী মুকিম আহমদ বলেন, অন্যদিন থেকে আজকে একটু কম মানুষ রয়েছে। তাই কিছুটা স্বস্তিতে কাজ করলেও আজকের অনেকেরই নেই কোন ভোটার আইডি কার্ড বা অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র। তাছাড়া এদের বেশিরভাগই নি¤œ আয়ের মানুষ। তাই এদের সামলাতে একটু হিমশিম খেতেই হচ্ছে।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:



































শীর্ষ সংবাদ:
বেনাপোল সীমান্তে সচল পিস্তলসহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী গ্রেফতার নির্মাণসামগ্রীর দাম চড়া, উন্নয়ন প্রকল্পে ধীরগতি কলম্বোতে কারফিউ জারি টিকে থাকার লড়াইয়ে ছক্কা হাকাতে পারবেন ইমরান খান? করোনায় আজও মৃত্যুশূন্য দেশ, শনাক্ত কমেছে ‘ততক্ষণ খেলব যতক্ষণ না আমার চেয়ে ভালো কাউকে দেখব’ এবার ইয়েমেনে পাল্টা হামলা চালাল সৌদি জোট স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালিতে যুবলীগ নেতার মৃত্যু সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র রপ্তানি করেছে মোদি সরকার বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দেওয়া নিয়ে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, এলাকা রণক্ষেত্র ইউক্রেনকে বিপুল ক্ষেপণাস্ত্র ও মেশিনগান দিয়েছে জার্মানি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে নারীকে ধর্ষণ, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩ ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের ‘লাল-সবুজের পতাকা বিশ্বজুড়ে আনবে একতা‘-শীর্ষক সভা বঙ্গবন্ধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নওগাঁর নওহাঁটায় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন । ভূরুঙ্গামারীতে ব্যাপরোয়া অটোরিকশা কেরে নিল শিশুর ফাহিম এর প্রাণ ভূরুঙ্গামারী কিশোর গ‍্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আহত যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ৬ তম রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ক্যাম্পেইন বেনাপোলে পৃথক অভিযানে ৫২ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক-২ বেনাপোল স্থলপথে স্টুডেন্ট ভিসায় বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমন নিষেধ গেরিলা যোদ্ধা অপূর্ব