লেখালেখিতে জোয়ার তারুণ্যের


অথর
সাহিত্য আসর সংবাদদাতা   বর্ণমালা টেলিভিশন
প্রকাশিত :১৬ জুলাই ২০২২, ৭:৫৮ পূর্বাহ্ণ | পঠিত : 113 বার
0
লেখালেখিতে জোয়ার তারুণ্যের

অমর একুশে বইমেলার শেষ ছুটির দিন ছিল গতকাল শনিবার। এ দিন বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের প্রাঙ্গণ লেখক ও পাঠকদের মিলনমেলায় পরিণত হয়। মেলায় এখন পর্যন্ত নতুন বই এসেছে ২৯০০টি। প্রকাশিত নতুন বইয়ে এবারও তরুণ লেখকদের আধিপত্য। বেশ কয়েকটি প্রকাশনীতে তরুণ লেখকদের বই এবারও সর্্েবাচ্চ বিক্রি হচ্ছে। তবে তরুণ লেখকদের বইয়ের লেখার মান নিয়ে আছে প্রশ্ন। প্রকাশনাগুলো সম্পাদনা ছাড়াই বই প্রকাশ করছে। তরুণ লেখকদের দু-একজনের বই ছাড়া অধিকাংশ বই কিনছেন পরিচিত ও স্বজন। তরুণ লেখকদের মধ্যে সাদাত হোসাইন, লুৎফর রহমান, আব্দুল্লাহ আল ইমরান, ইশতিয়াক আহমেদ, কিংকর আহসান, মৌরি মরিয়ম, মালিহা তাবাসসুম, অন্তিক মাহমুদসহ অনেকের বই এবারও পাঠকপ্রিয়তা পেয়েছে। কয়েকজন তরুণ লেখকের প্রকাশিত বই ইতোমধ্যে কয়েক সংস্করণ শেষ হয়েছে। তাদের একজন সাদাত হোসাইন। এবার তার লেখা তিনটি নতুন বই পাঠকদের মাঝে উন্মাদনা সৃষ্টি করেছে। এর মধ্যে অন্যধারা থেকে প্রকাশিত 'তোমাকে দেখার অসুখ' ও 'ইতি স্মৃতি গন্ধা' যথাক্রমে ষষ্ঠ ও তৃতীয় সংস্করণ শেষের পথে। প্রকাশনাটির বেস্ট সেলার বইয়ের তালিকাতেও রয়েছে সাদাত হোসাইন। এ ছাড়া অন্যপ্রকাশ থেকে আসা 'প্রিয়তম অসুখ সে' বইটিও এই প্রকাশনীর বেস্ট সেলার তালিকার মধ্যে রয়েছে। জ্ঞানকোষে পাওয়া যাচ্ছে কিংকর আহসানের 'নীল ডুমুর' বইটি। এই স্টল ও প্রকাশনীর বেস্ট সেলার তালিকায় রয়েছে বইটি। ইতোমধ্যে বইটির চতুর্থ সংস্করণ শেষের পথে। জনপ্রিয় গীতিকবি ও ঔপন্যাসিক লুৎফর হাসানের আগে প্রকাশিত উপন্যাসগুলো নিয়ে কিংবদন্তি এনেছে এক মলাটে 'নির্বাচিত উপন্যাস' এবং নতুন ২১টি গল্প নিয়ে 'জোনাকীর নিজস্ব অন্ধকার'। এ বইগুলো কিনতেও পাঠকের ভিড় দেখা গেছে। তাম্রলিপি থেকে এসেছে মৌরি মরিয়মের দশম উপন্যাস 'মহাযাত্রা'। বইটির পঞ্চম মুদ্রণ শেষ হয়েছে। মৌরি মরিয়ম জানালেন, তিনি মূলত সমকালীন ও প্রেমের উপন্যাস লেখেন। পাঠকরা তার লেখায় ভালো সাড়া দিচ্ছেন। আদর্শ প্রকাশনীর সামনে পাঠকদের অটোগ্রাফ দিচ্ছিলেন অন্তিক মাহমুদ। তার এ পর্যন্ত চারটি কমিকস শেষ হয়েছে। তিনি জানালেন, পাঠকরা অনেক ভালোবাসা দিচ্ছেন। তাদের সাড়া অনেক ভালো। বইমেলার স্টল থেকে স্টলে নতুন বইয়ের সন্ধান করছিলেন ইতিহাসবিদ মুনতাসীর মামুন। কিন্তু পছন্দসই বই পাচ্ছিলেন না। নতুন অনেক বই নেড়েচেড়ে একটি কিনলেন। আক্ষেপ করে তিনি বলেন, মেলায় এক্সট্রা অর্ডিনারি কোনো কিছুই দেখছি না। নতুন অনেকে লিখছেন। কিন্তু আমরা অধিকাংশ বই কিনতে পারছি না। এ সময় তিনি নতুন লেখকদের উদ্দেশে প্রশ্ন ছুড়ে বলেন- কেন আমরা এসব বই কিনতে পারছি না? লিখলেই তো বই হয়ে যায় না। একটা বই লিখতে সময়ের প্রয়োজন। লেখার জন্য গবেষণা করতে হয়। তরুণ লেখকদের লেখালেখির প্রতি উৎসাহ দিয়ে বলেন, লেখার অভ্যাস বাড়াতে হবে। কচুগাছ কাটতে কাটতে যেমন ডাকাত হয়, তেমন লিখতে লিখতে একদিন লেখক হবে। তরুণদের বই কেমন বিক্রি হচ্ছে- জানতে চাইলে সময় প্রকাশনের ফরিদ আহমেদ বলেন, তরুণদের বই তাদের পরিচিতদের মধ্যেই বেশি বিক্রি হয়। অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেন, তরুণদের অনেকে ভালো লিখছে এটা স্বীকার করতেই হবে। তাদের আমি বলব- একটি বই ছাপানোর আগে তারা যেন বিভিন্ন ব্লগে, ইন্টারনেটে, সামাজিক যোগাযোগসহ বিভিন্ন মাধ্যমে লেখেন। পাঠকরা কী মন্তব্য করেন তা দেখেন। যখন দেখবেন লেখা মোটামুটি একটা জায়গায় পৌঁছে গেছে তখন বই হিসেবে ছাপাতে হবে। গতকাল বইমেলার ২৬তম দিনে মেলা চলে সকাল ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ছিল শিশুপ্রহর। নতুন বই এসেছে ৮০টি। এর মধ্যে রয়েছে- হাসানাত লোকমানের কাব্যগ্রন্থ 'দাঁড়াবো ভোরের সূর্য ছুঁয়ে', আহসান হাবীবের রম্যগ্রন্থ 'হাঃ', ড. এ. বি. এম. রেজাউল করিম ফকিরের গবেষণাগ্রন্থ 'ভাষা-সংসর্গ বিদ্যার নিরিখে বাংলা ভাষার সৃজন, উন্নয়ন ও অবনমন পরিক্রমা', গোলাম কিবরিয়া পিনুর গল্পগ্রন্থ 'ভাষানীতি, নন্দনতত্ত্ব ও লেখক-শিল্পীর ভাবাদর্শের লড়াই', সালেহা সুলতানার প্রবন্ধ গ্রন্থ 'চর্যাপদ থেকে চিলেকোঠার সেপাই : পাঠ পরিচয়' ইত্যাদি। বইয়ের ফেরিওয়ালা দৃষ্টিহীন জুঁই: দৃষ্টিশক্তি না থাকলেও অদম্য তার ইচ্ছাশক্তি। ব্রেইল পদ্ধতিতে লেখাপড়া করে এমএ পাস করেছেন, দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের জন্য চালাচ্ছেন চিকিৎসাকেন্দ্র, একই সঙ্গে করেন লেখালেখি। কেবল তাই নয়, নিজের বইগুলো ঘুরে ঘুরে বিক্রি করছেন বইমেলায়। গতকাল মেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান প্রাঙ্গণে কথা হয় কোহিনুর আক্তার জুঁইয়ের সঙ্গে। 'প্রজাপতির খেলা', 'শিশুদের ছড়া ও কবিতা', 'সুখ' এবং 'বাংলাদেশের মহান স্থপতি শেখ মুজিবুর রহমান' নামে চারটি বই ফেরি করে বিক্রি করছেন তিনি। কোহিনুর আক্তার জুঁই বলেন, লেখার ক্ষেত্রে আমি বলি এবং অন্য একজন তা শুনে লিখে দেন। আর বই বিক্রি করে যে অর্থ হয়, সেটা এবং কেউ যদি সাহায্য দেয়, তবে সেগুলো হাসপাতালে দেওয়া হয়। হাসপাতালটির নাম কোহিনুর চক্ষু হাসপাতাল ও অন্ধ মহিলা সংস্থা। তার নামে সাভারের জোড়পুলে অবস্থিত এই চিকিৎসাকেন্দ্রে বর্তমানে তিনজন ডাক্তার কর্মরত আছেন বলেও জানান জুঁই। তিনি বলেন, আজ প্রথম এক ঘণ্টায় ৩টা বই বিক্রি করেছি। প্রথম ১০ দিন আসিনি। এরপর এখন প্রতিদিনই সাভার থেকে এখানে আসি। আবার রাত ৮টা, সাড়ে ৮টার দিকে রওনা দেই। যেতে আমার প্রায় ১১টা বেজে যায়। নিজের প্রতিষ্ঠান চালানো প্রসঙ্গে জুঁই বলেন, আমি ওটার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক। আমার আরও অনেক কাজ করতে ইচ্ছে করে। কিন্তু আমার তো টাকা নেই, টাকা ছাড়া কিছুই হয় না! জালালউদ্দিন হোসেনের বইয়ের মোড়ক উন্মোচন: বিকেল বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে অবস্থিত মুক্তধারা নিউইয়র্ক স্টল চত্বরে নাট্যজন জামালউদ্দিন হোসেনের লেখা আত্মজৈবনিক গ্রন্থ 'আমার জীবন আমার সৃজন' এর মোড়ক উন্মোচন করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক ফখরুল আলম ও কবি কামাল চৌধুরী। এ সময় একই প্রকাশনী থেকে নিউইয়র্ক অভিবাসী লেখক সাংবাদিক শাহ জে চৌধুরীর লেখা 'ভাবনার উৎস' এবং সাংবাদিক-লেখক মুবিন খানের 'গল্পরা' বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে তারিক সুজাতের গবেষণা বই 'বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন : কমেট বিমান ও ব্রিটিশ গোপন দলিল' বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। বইটি প্রকাশ করেছে জার্নিম্যান বুকস। আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান: বিকেল ৪টায় বইমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় একুশের গল্প ও উপন্যাস শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন রফিকুর রশীদ। আলোচনায় অংশ নেন নাসের রহমান, পাপড়ি রহমান এবং স্বকৃত নোমান। সভাপতিত্ব করেন ইমদাদুল হক মিলন। লেখক বলছি অনুষ্ঠানে নিজের বই নিয়ে আলোচনা করেন পাপড়ি রহমান। কবিতা পাঠ করেন কবি সৈয়দ আহমদ আলী আজিজ, মিনা মাশরাফী এবং জায়েদ হোসাইন লাকী। আবৃত্তি পরিবেশন করেন জিনিয়া রুনা ও নুরুজ্জামান। আজকের অনুষ্ঠান: আজ মেলা চলবে বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। বিকেল ৪টায় বইমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে 'তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া : নির্ভীক সাংবাদিকতার পথিকৃৎ' শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন দেলওয়ার হাসান। আলোচনায় অংশ নেবেন মোফাকখারুল ইকবাল, মো. মিনহাজ উদ্দীন এবং শেখ আদনান ফাহাদ। সভাপতিত্ব করবেন জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক আবেদ খান।

No Comments