মোদির সঙ্গে বৈঠকে আফগানিস্তান নিয়ে যা বললেন পুতিন - বর্ণমালা টেলিভিশন

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এখন ভারতে অবস্থান করছেন। ইতোমধ্যে তিনি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে এক দফা বৈঠক করেছেন। এই বৈঠকে দুই দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় ছাড়াও পুতিন আাফগানিস্তান নিয়ে কথা বলেছেন।

আফগানিস্তানের সংবাদ এজেন্সি পাজহোক নিউজের খবরে বলা হয়েছে, রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আফগানিস্তানের ক্রম অবনতিশীল অবস্থা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। বৈঠকে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধ লড়াইয়ের অর্থ- মাদক পাচারের বিরুদ্ধে এবং সংঘবদ্ধ অপরাধের বিরুদ্ধেও লড়াই করা।

ভারতের গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, আফগানিস্তানে বর্তমান যে অবস্থা বিরাজ করছে পুতিন তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। রুশ প্রেসিডেন্ট বলেছেন, কাবুল যে অবস্থায় দাঁড়িয়েছে সেটা

নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন না হয়ে পারি না।

এর আগে সোমবার ভারত ও রাশিয়ার মধ্যকার দ্বিপক্ষীয় বার্ষিক বৈঠক উপলক্ষে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন দিল্লি সফরে এসেছেন। পুতিন বলেছেন, ভারত একটি বড় শক্তি, দীর্ঘদিনের ও সময়ের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ বন্ধু। দুই দেশ জ্বালানি, মহাকাশ, প্রতিরক্ষা ও প্রযুক্তির মতো বৈচিত্র্যময় খাতে একসঙ্গে কাজ করছে। আগামী দিনে প্রতিরক্ষা, মাদক পাচার রোধ, সন্ত্রাসবাদ দমন, আফগানিস্তানে স্থিতিশীলতা ফেরানোসহ দ্বিপক্ষীয়, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক নানা বিষয়ে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

আগস্টের শেষ দিকে আফগানিস্তান ত্যাগ করে মার্কিন বাহিনী। তার আগে ১৫ আগস্ট তালেবানের হাতে কাবুলের পতন হয়। এর মধ্য দিয়ে আফগানিস্তানের ক্ষমতা তালেবানের হাতে যায়, যুক্তরাষ্ট্রের ২০ বছরের আফগান

যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটে।

সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে আফগানিস্তানে অন্তর্বর্তী সরকার গঠনের ঘোষণা দেয় তালেবান। তবে তালেবানের এই সরকারকে এখনো আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় স্বীকৃতি দেয়নি। আন্তর্জাতিক সহায়তা বন্ধের মুখে আফগানিস্তানে এখন ভয়াবহ অর্থনেতিক সঙ্কট বিরাজ করছে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, আফগানিস্তানের ক্ষমতা তালেবানের হাতে যাওয়ায় ভারত সেখানে অবস্থান হারিয়েছে। এইক্ষেত্রে ভারতের চির প্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তান লাভবান হয়েছে। ভারত-রাশিয়ার মাধ্যমে তালেবানের সঙ্গে সম্পর্ক ঝালিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করবে। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমি পুতিন এবং ভারতের প্রেসিডেন্ট নরেন্দ্র মোদি উভয়ের জন্য আফগানিস্তান একটি সাধারণ (কমন ইন্টারেস্ট) স্বার্থের জায়গা।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এখন ভারতে অবস্থান করছেন। ইতোমধ্যে তিনি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে এক দফা বৈঠক করেছেন। এই বৈঠকে দুই দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় ছাড়াও পুতিন আাফগানিস্তান নিয়ে কথা বলেছেন।

আফগানিস্তানের সংবাদ এজেন্সি পাজহোক নিউজের খবরে বলা হয়েছে, রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আফগানিস্তানের ক্রম অবনতিশীল অবস্থা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। বৈঠকে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধ লড়াইয়ের অর্থ- মাদক পাচারের বিরুদ্ধে এবং সংঘবদ্ধ অপরাধের বিরুদ্ধেও লড়াই করা।

ভারতের গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, আফগানিস্তানে বর্তমান যে অবস্থা বিরাজ করছে পুতিন তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। রুশ প্রেসিডেন্ট বলেছেন, কাবুল যে অবস্থায় দাঁড়িয়েছে সেটা

নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন না হয়ে পারি না।

এর আগে সোমবার ভারত ও রাশিয়ার মধ্যকার দ্বিপক্ষীয় বার্ষিক বৈঠক উপলক্ষে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন দিল্লি সফরে এসেছেন। পুতিন বলেছেন, ভারত একটি বড় শক্তি, দীর্ঘদিনের ও সময়ের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ বন্ধু। দুই দেশ জ্বালানি, মহাকাশ, প্রতিরক্ষা ও প্রযুক্তির মতো বৈচিত্র্যময় খাতে একসঙ্গে কাজ করছে। আগামী দিনে প্রতিরক্ষা, মাদক পাচার রোধ, সন্ত্রাসবাদ দমন, আফগানিস্তানে স্থিতিশীলতা ফেরানোসহ দ্বিপক্ষীয়, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক নানা বিষয়ে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

আগস্টের শেষ দিকে আফগানিস্তান ত্যাগ করে মার্কিন বাহিনী। তার আগে ১৫ আগস্ট তালেবানের হাতে কাবুলের পতন হয়। এর মধ্য দিয়ে আফগানিস্তানের ক্ষমতা তালেবানের হাতে যায়, যুক্তরাষ্ট্রের ২০ বছরের আফগান

যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটে।

সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে আফগানিস্তানে অন্তর্বর্তী সরকার গঠনের ঘোষণা দেয় তালেবান। তবে তালেবানের এই সরকারকে এখনো আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় স্বীকৃতি দেয়নি। আন্তর্জাতিক সহায়তা বন্ধের মুখে আফগানিস্তানে এখন ভয়াবহ অর্থনেতিক সঙ্কট বিরাজ করছে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, আফগানিস্তানের ক্ষমতা তালেবানের হাতে যাওয়ায় ভারত সেখানে অবস্থান হারিয়েছে। এইক্ষেত্রে ভারতের চির প্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তান লাভবান হয়েছে। ভারত-রাশিয়ার মাধ্যমে তালেবানের সঙ্গে সম্পর্ক ঝালিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করবে। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমি পুতিন এবং ভারতের প্রেসিডেন্ট নরেন্দ্র মোদি উভয়ের জন্য আফগানিস্তান একটি সাধারণ (কমন ইন্টারেস্ট) স্বার্থের জায়গা।

মোদির সঙ্গে বৈঠকে আফগানিস্তান নিয়ে যা বললেন পুতিন

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ৭ ডিসেম্বর, ২০২১ | ৫:০৭ 78 ভিউ
রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এখন ভারতে অবস্থান করছেন। ইতোমধ্যে তিনি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে এক দফা বৈঠক করেছেন। এই বৈঠকে দুই দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় ছাড়াও পুতিন আাফগানিস্তান নিয়ে কথা বলেছেন। আফগানিস্তানের সংবাদ এজেন্সি পাজহোক নিউজের খবরে বলা হয়েছে, রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আফগানিস্তানের ক্রম অবনতিশীল অবস্থা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। বৈঠকে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধ লড়াইয়ের অর্থ- মাদক পাচারের বিরুদ্ধে এবং সংঘবদ্ধ অপরাধের বিরুদ্ধেও লড়াই করা। ভারতের গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, আফগানিস্তানে বর্তমান যে অবস্থা বিরাজ করছে পুতিন তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। রুশ প্রেসিডেন্ট বলেছেন, কাবুল যে অবস্থায় দাঁড়িয়েছে সেটা

নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন না হয়ে পারি না। এর আগে সোমবার ভারত ও রাশিয়ার মধ্যকার দ্বিপক্ষীয় বার্ষিক বৈঠক উপলক্ষে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন দিল্লি সফরে এসেছেন। পুতিন বলেছেন, ভারত একটি বড় শক্তি, দীর্ঘদিনের ও সময়ের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ বন্ধু। দুই দেশ জ্বালানি, মহাকাশ, প্রতিরক্ষা ও প্রযুক্তির মতো বৈচিত্র্যময় খাতে একসঙ্গে কাজ করছে। আগামী দিনে প্রতিরক্ষা, মাদক পাচার রোধ, সন্ত্রাসবাদ দমন, আফগানিস্তানে স্থিতিশীলতা ফেরানোসহ দ্বিপক্ষীয়, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক নানা বিষয়ে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। আগস্টের শেষ দিকে আফগানিস্তান ত্যাগ করে মার্কিন বাহিনী। তার আগে ১৫ আগস্ট তালেবানের হাতে কাবুলের পতন হয়। এর মধ্য দিয়ে আফগানিস্তানের ক্ষমতা তালেবানের হাতে যায়, যুক্তরাষ্ট্রের ২০ বছরের আফগান

যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটে। সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে আফগানিস্তানে অন্তর্বর্তী সরকার গঠনের ঘোষণা দেয় তালেবান। তবে তালেবানের এই সরকারকে এখনো আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় স্বীকৃতি দেয়নি। আন্তর্জাতিক সহায়তা বন্ধের মুখে আফগানিস্তানে এখন ভয়াবহ অর্থনেতিক সঙ্কট বিরাজ করছে। বিশ্লেষকরা বলছেন, আফগানিস্তানের ক্ষমতা তালেবানের হাতে যাওয়ায় ভারত সেখানে অবস্থান হারিয়েছে। এইক্ষেত্রে ভারতের চির প্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তান লাভবান হয়েছে। ভারত-রাশিয়ার মাধ্যমে তালেবানের সঙ্গে সম্পর্ক ঝালিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করবে। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমি পুতিন এবং ভারতের প্রেসিডেন্ট নরেন্দ্র মোদি উভয়ের জন্য আফগানিস্তান একটি সাধারণ (কমন ইন্টারেস্ট) স্বার্থের জায়গা।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


































শীর্ষ সংবাদ:
নিয়োগে দুর্নীতি: জীবন বীমার এমডির বিরুদ্ধে দুদকের মামলা মিহির ঘোষসহ নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবীতে গাইবান্ধায় সিপিবির বিক্ষোভ গাইবান্ধায় সেনাবাহিনীর ভূয়া ক্যাপ্টেন গ্রেফতার জগন্নাথপুরে সড়ক নির্মানের অভিযোগ এক ঠিকাদারের বিরুদ্ধে তারাকান্দায় অসহায় ও দুস্থদের মাঝে ছাত্রদলের খাবার বিতরণ দেবহাটায় অস্ত্র-গুলি ও ইয়াবা উদ্ধার আটক -১ রামগড়ে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বাগমারায় ভেদুর মোড় হতে নরদাশ পর্যন্ত পাকা রাস্তার শুভ উদ্বোধন সরকারি বিধিনিষেধ না মানায় শার্শায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা আদায় মধুখালীতে তিন মাসে ৪৩ টি গরু চুরি গাইবান্ধায় বঙ্গবন্ধু জেলা ভলিবল প্রতিযোগিতার উদ্বোধন গাইবান্ধায় শীতবস্ত্র বিতরণ রাজশাহীতে পুত্রের হাতে পিতা খুন বাগমারায় সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার রামগড়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার শীতবস্ত্র বিতরণ করেন ইউএনও ভাঃ উম্মে হাবিবা মজুমদার জগন্নাথপুরে জুয়ার আসরে পুলিশ দেখে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ এক ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সিপিবি নেতা মিহির ঘোষসহ ৬ জন কারাগারে পিআইও’র মানহানির মামলায় গাইবান্ধার ৪ সাংবাদিকসহ ৫ জনের জামিন গাইবান্ধায় প্রগতিশীল ছাত্র জোটের মানববন্ধন চাঁপাইনবাবগঞ্জে সোনালী ব্যাংক লি. গোমস্তাপুর শাখায় শীতবস্ত্র বিতরণ