মেয়েরাই এগিয়ে ॥ এইচএসসির ফল প্রকাশ – বর্ণমালা টেলিভিশন

মেয়েরাই এগিয়ে ॥ এইচএসসির ফল প্রকাশ

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২২ | ৮:১৫ 61 ভিউ
পাসের হার ৯৫ দশমিক ২৬ শতাংশ
জিপিএ-৫ পেয়েছেন ১ লাখ ৮৯ হাজার ১৬৯ জন
সর্বোচ্চ পাস যশোর শিক্ষা বোর্ডে, সর্বনিম্ন চট্টগ্রাম বোর্ডে
উচ্ছ্বসিত শিক্ষার্থী-অভিভাবকরা
করোনা মহামারীকে সঙ্গে নিয়েই অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০২১ সালের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে পরীক্ষায় অংশ নেয়া ১৩ লাখ ৭১ হাজার ৬৮১ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে পাস করেছেন ১৩ লাখ ৬ হাজার ৭১৮ জন। পাসের হার ৯৫ দশমিক ২৬ শতাংশ। এদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছেন মোট ১ লাখ ৮৯ হাজার ১৬৯ জন শিক্ষার্থী। করোনা মহামারীর কারণে ২০২০ সালে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা হয়নি। ওই সময় স্বয়ংক্রিয় পাস (অটোপাস) দেয়া হয় শিক্ষার্থীদের। সে বছর জিপিএ-৫ পেয়েছিলেন ১ লাখ ৬১ হাজার ৮০৭ জন। এবার জিপিএ-৫ বেড়েছে ২৭ হাজার ৩৬২ জন। পাসের হারে সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে যশোর শিক্ষাবোর্ড। বোর্ডটিতে মোট পাসের হার ৯৮ দশমিক ১১ শতাংশ। শুধু তাই নয়, পাসের হারে ছেলেদের চেয়ে এগিয়ে মেয়েরা। ছেলেদের পাসের হার ৯৪ দশমিক ৪৪ শতাংশ, আর মেয়েদের ৯৬ দশমিক ৬৭ শতাংশ। প্রকাশিত ফলাফলে এবারের এইচএসসি পরীক্ষায় বেশি পাস করেছেন মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীরা। তবে জিপিএ-৫ বেশি এসেছে বিজ্ঞান বিভাগে। মহামারীকালেও এমন ফলে উচ্ছ্বসিত শিক্ষার্থী, অভিভাবক এবং শিক্ষকরা। রবিবার রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট থেকে ফল ঘোষণা করা হয়। এ সময় গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে ফল প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরে শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি সংবাদ সম্মেলন করে ফলের সার্বিক বিষয় গণমাধ্যমে তুলে ধরেন। প্রকাশিত এইচএসসি এবং সমমানের পরীক্ষার ফল বিশ্লেষণে দেখা যায়, নয়টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ড, মাদরাসা ও কারিগরি বোর্ডে মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ১৪ লাখ ৩ হাজার ২৪৪ জন। কিন্তু পরীক্ষায় অংশ নেন ১৩ লাখ ৭১ হাজার ৬৮১ জন। এদের মধ্যে ১ লাখ ৮৯ হাজার ১৬৯ জন জিপিএ-৫ পাওয়ায় জিপিএ-৫ এর হার এবার দাঁড়িয়েছে ১৩ দশমিক ৭৯ শতাংশ। জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের মধ্যে ১ লাখ ৭৮ হাজার ৫২২ জন সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের (এইচএসসি), ৪ হাজার ৮৭২ জন মাদ্রাসা বোর্ডের এবং ৫ হাজার ৭৭৫ জন কারিগরি বোর্ডের শিক্ষার্থী। বিভিন্ন বোর্ডভিত্তিক ফল বিশ্লেষণে জানা যায়, এবার ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডে পরীক্ষার্থী ছিলেন ১১ লাখ ৪০ হাজার ৬৮০ জন। পরীক্ষায় অংশ নেন ১১ লাখ ১৫ হাজার ৭০৫ জন। পাস করেছেন ১০ লাখ ৬৬ হাজার ২৪২ জন। পাসের হার ৯৫ দশমিক ৫৭ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছেন ১ লাখ ৭৮ হাজার ৫২২ জন। এদিকে, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে পরীক্ষার্থী ছিলেন ১ লাখ ১৩ হাজার ১৬৭ জন। পরীক্ষায় অংশ নেন ১ লাখ ৬ হাজার ৫৭৯ জন। পাস করেছেন ১ লাখ ১ হাজার ৭৬৮ জন। পাসের হার ৯৫ দশমিক ৪৯ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৪ হাজার ৮৭২ জন। এ ছাড়া কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে পরীক্ষার্থী ছিলেন ১ লাখ ৪৯ হাজার ৩৯৭ জন। পরীক্ষায় অংশ নেন ১ লাখ ৪৯ হাজার ৩৯৭ জন। পাস করেছেন ১ লাখ ৩৮ হাজার ৭০৮ জন। পাসের হার ৯২ দশমিক ৮৫ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৫ হাজার ৭৭৫ জন। ফলাফলের বোর্ডভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা যায়, এবারের এইচএসসি পরীক্ষায় দেশসেরা যশোর শিক্ষা বোর্ডে জিপিএ-৫ পেয়েছেন ২০ হাজার ৮৭৮ জন। এই বোর্ডে মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ১ লাখ ৩১ হাজার ৫০০ জন। তবে পরীক্ষায় অংশ নেন ১ লাখ ২৮ হাজার ১৬৩ জন। পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ছাত্র ৬৫ হাজার ৭০৬ জন, ছাত্রী ছিলেন ৬২ হাজার ৪৫৭ জন। ছাত্রদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৮ হাজার ৭০৭ জন, ছাত্রীদের মধ্যে ১২ হাজার ১৭১ জন। এরপর পাসের হারে এগিয়ে কুমিল্লা। এ বোর্ডে ৯৭ দশমিক ৪৯ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছেন। এক লাখ ১৪ হাজার ৫৫৯ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেন কুমিল্লা বোর্ড থেকে। এর মধ্যে পাস করেছেন এক লাখ ১১ হাজার ৬৮০। জিপিএ-৫ পেয়েছেন ১৪ হাজার ১৫৩ জন শিক্ষার্থী। তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে রাজশাহী বোর্ড। রাজশাহী বোর্ডে এবার মোট পাসের হার ৯৭ দশমিক ২৯ শতাংশ। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ১ লাখ ৫০ হাজার ৯১৮ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ১ লাখ ৪৩ হাজার ৪৮৯ জন। পাসের হারে রাজশাহীর পরে অবস্থান ঢাকা বোর্ডের। ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে এবার উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় মোট পাসের হার ৯৬ দশমিক ২০ শতাংশ। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ৩ লাখ ১৫ হাজার ৯৫৭ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ২ লাখ ৯৮ হাজার ৯৭৯ জন। পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে বরিশাল বোর্ড। বরিশাল বোর্ডে পাসের হার ৯৫ দশমিক ৭৬ শতাংশ। এ বছর পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিলেন ৬৬ হাজার ৭৯৬ জন শিক্ষার্থী। এর মধ্যে ছাত্র ৩২ হাজার ৫৭ জন এবং ছাত্রী ৩৪ হাজার ৭৩৯ জন। পাস করেছেন ৬৩ হাজার ৯৬৪ জন। ছাত্র ৩০ হাজার ২৮৯ জন আর ছাত্রী ৩৩ হাজার ৬৭৫ জন পাস করেছেন। প্রতিবারের মতো এবারও এই শিক্ষা বোর্ডের ফলে ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা পাস ও জিপিএ-৫ এর হারে এগিয়ে। গত বছর বোর্ডে পাসের হার ছিল শতভাগ। এ বছর ৫৬টি প্রতিষ্ঠানে পাসের হার শতভাগ রয়েছে। তারপর রয়েছে ময়মনসিংহ বোর্ডের অবস্থান। এ বোর্ডে ৯৫ দশমিক ৭১ শতাংশ পরীক্ষার্থী পাস করেছেন। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ৭০ হাজার ৯৮২ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৬৬ হাজার ২৫০ জন। ৯৪ দশমিক ৮০ শতাংশ পাসের হার নিয়ে সপ্তম অবস্থানে রয়েছে সিলেট শিক্ষা বোর্ড। এ বোর্ডে জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৪ হাজার ৭৩১ জন। এই বিভাগে মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ৬৬ হাজার ৬৬১ জন। এর মধ্যে মোট উত্তীর্ণ হয়েছেন ৬৩ হাজার ১৯৩ জন। সিলেট বোর্ডে শতভাগ পাস করেছে ৫৩টি কলেজের শিক্ষার্থীরা। সিলেটের পরের অবস্থানে রয়েছে দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে। এ বোর্ডে পাসের হার ৯২ দশমিক ৪৩ শতাংশ। দিনাজপুর বোর্ডে মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ১ লাখ ১৫ হাজার ৯৮৬ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ১ লাখ ৪ হাজার ৪৮৪ জন। পাসের হার সবচেয়ে কম চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে। এ বোর্ডে পাসের হার ৮৯ দশমিক ৩৯ শতাংশ। এ বোর্ডে জিপিএ-৫ পেয়েছেন ১৩ হাজার ৭২০ জন। এ ছাড়া মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৯৫ দশমিক ৪৯ শতাংশ। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ১ লাখ ১৩ হাজার ১৬৭ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ১ লাখ ১ হাজার ৭৬৮ জন। আর কারিগরিতে পাসের হার ৯২ দশমিক ৮৫ শতাংশ। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ১ লাখ ৪৯ হাজার ৩৯৭ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ১ লাখ ৩৮ হাজার ৭০৮ জন। এবারের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় এসএসসি পরীক্ষার ফলের মতোই এগিয়ে রয়েছেন মেয়েরা। এই পরীক্ষায় ছেলেদের পাসের হার ৯৪ দশমিক ৪৪ শতাংশ। আর মেয়েদের ৯৬ দশমিক ৬৭ শতাংশ। ৯টি বোর্ডের ১১ লাখ ১৫ হাজার ৭০৫ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্র ছিলেন পাঁচ লাখ ৫১ হাজার ৩৮১, আর ছাত্রী পাঁচ লাখ ৬৪ হাজার ৩২৪ জন। পাস করেছেন পাঁচ লাখ ২০ হাজার ৭১৩ ছাত্র ও পাঁচ লাখ ৪৫ হাজার ৫২৯ জন ছাত্রী। জিপিএ-৫এও এগিয়ে রয়েছেন মেয়েরা। এ বছর জিপিএ-৫ পেয়েছেন ১ লাখ ২ হাজার ৪০৬ জন ছাত্রী। তার তুলনায় ছাত্র জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৮৬ হাজার ৭৬৩ জন। শুধু মোট হিসাবে নয়, প্রায় প্রতিটি শিক্ষা বোর্ডেই দেখা যায়, মেয়েদের জিপিএ-৫ এর সংখ্যা বেশি। ঢাকা বোর্ডে জিপিএ-৫ পেয়েছেন ২৯ হাজার ৯৬ জন ছাত্র। ছাত্রী জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৩০ হাজার ১৩৭ জন। রাজশাহী বোর্ডে ছাত্র জিপিএ-৫ পেয়েছেন ১৪ হাজার ৪০০ জন। এই তুলনায় ছাত্রী জিপিএ-৫ পেয়েছেন ১৮ হাজার ৪০০ জন। কুমিল্লায় জিপিএ-৫ পেয়েছেন পাঁচ হাজার ৩৯৬ ছাত্র এবং ছাত্রী ৮ হাজার ৭৫৭ জন। এ ছাড়া প্রতিটি বোর্ডেই ছেলেদের তুলনায় এগিয়ে মেয়েরা। ঢাকা বোর্ডে ছাত্র পাসের হার ৯৫ দশমিক ১১ শতাংশ ও ছাত্রী পাসের হার ৯৭ দশমিক ২৯ শতাংশ। রাজশাহী বোর্ডে ছেলেদের পাসের হার ৯৬ দশমিক ৫১ শতাংশ ও মেয়েদের ৯৮ দশমিক ১৬ শতাংশ। কুমিল্লা বোর্ডে ছাত্র ৯৭ শতাংশ এবং ছাত্রী ৯৭দশমিক৮৯ শতাংশ। যশোর শিক্ষা বোর্ডে ছাত্র ৯৭দশমিক৫৬ এবং ছাত্রী ৯৮দশমিক৬৮ শতাংশ। চট্টগ্রাম বোর্ডে ছাত্র ৮৬দশমিক৮৯ এবং ছাত্রী ৯১দশমিক৮৫ শতাংশ। বরিশাল বোর্ডে ছাত্র ৯৪দশমিক৪৮ এবং ছাত্রী ৯৬দশমিক৯৪ শতাংশ। সিলেট বোর্ডে ছাত্র ৯৩দশমিক৬৮ শতাংশ এবং ছাত্রী ৯৫দশমিক৭৩ শতাংশ। দিনাজপুর বোর্ডে ছাত্র ৯০দশমিক৭৪ শতাংশ ও ছাত্রী ৯৪দশমিক১০ শতাংশ। ময়মনসিংহ বোর্ডে ছাত্র ৯৪দশমিক৪১ শতাংশ এবং ৯৬দশমিক৯৫ শতাংশ। বিভাগভিত্তিক পাসের হারে এগিয়ে রয়েছেন মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীরা। তবে জিপিএ-৫ এ এগিয়ে রয়েছেন বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীরা। এবারের এইচএসসি পরীক্ষা অন্যান্য বছরের মতো হয়নি। পরীক্ষা হয়েছে শুধু নৈর্বাচনিক বিষয়ে। আর আবশ্যিক বিষয়ে আগের পাবলিক পরীক্ষার সাবজেক্ট ম্যাপিং করে মূল্যায়নের মাধ্যমে নম্বর দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। বাদ দেয়া হয় চতুর্থ বিষয়ের পরীক্ষাও। প্রকাশিত ফলে দেখা যায়, ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের গ্রুপভিত্তিক ফলে পাসের হারে এগিয়ে আছেন মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীরা। এ বিভাগের মোট ৬ লাখ ৪২ হাজার ৩১৪ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৬ লাখ ২২ হাজার ৬৩১ জন। পাসের হার ৯৬ দশমিক ৯৪ শতাংশ। আর জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৪১ হাজার ৩৭৩ জন শিক্ষার্থী। পাসের হারের দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছেন বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীরা। এ বিভাগের ২ লাখ ৫১ হাজার ৬৮ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ২ লাখ ৩৬ হাজার ৩৯৪ জন। পাসের হার ৯৪ দশমিক ১৬ শতাংশ। তবে এ বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছেন ১ লাখ ২০ হাজার ২৩০ শিক্ষার্থী। আর ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে অংশগ্রহণ করেন ২ লাখ ২২ হাজার ৩২৩ শিক্ষার্থী। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ২ লাখ ৭ হাজার ২১৭ জন। পাসের হার ৯৩ দশমিক ২১ শতাংশ। আর জিপিএ-৫ পেয়েছেন ১৬ হাজার ৯১৯ শিক্ষার্থী। করোনার সঙ্কটকালে পরীক্ষা হবে কি না এমন আশঙ্কায় দিন পার করা শিক্ষার্থীদের ফলে খুশি অভিভাবকসহ শিক্ষার্থীরা। রাজধানীর গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ থেকে এবারের এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়া নবনীতা পূজার মাসি ঝর্ণা মনি বলেন, সারাটা বছর মেয়েটা কষ্ট করেছে। যত না শারীরিক কষ্ট তার চেয়ে বেশি মানসিক কষ্টে ছিল তারা। এ রকম বৈশ্বিক করোনা মহমারীর সময়েও সরকারের দূরদর্শিতায় পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সরকারের পরীক্ষা নেয়ার দৃষ্টিভঙ্গিটাকে অভিবাদন জানাই। পরীক্ষা হওয়ার কারণে শিক্ষার্থীদের মনে অটোপাসের মতো হীনমন্যতায় ভুগতে হচ্ছে না। তারা তাদের মেধা যাচাইয়ের সুযোগ পেয়েছে। যে কয়টা পরীক্ষাই হয়েছে, তারা ভালোভাবে অংশ নিয়েছে এবং ভালো ফল করেছে। এ জন্য শিক্ষার্থীদেরও ধন্যবাদ জানাই। পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পাওয়ায় উচ্ছ্বসিত আফ্রিদা রহমান খান বলেন, শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত বুঝতে পারিনি পরীক্ষা হবে কি না। ক্লাস তো করতেই পারিনি পুরোটা বছর। এমন অবস্থায়ও শেষ সময়ের প্রস্তুতিতে জিপিএ-৫ পেয়েছি। এ আনন্দ কাউকে বুঝানোর মতো নয়। সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:



































শীর্ষ সংবাদ:
বেনাপোল সীমান্তে সচল পিস্তলসহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী গ্রেফতার নির্মাণসামগ্রীর দাম চড়া, উন্নয়ন প্রকল্পে ধীরগতি কলম্বোতে কারফিউ জারি টিকে থাকার লড়াইয়ে ছক্কা হাকাতে পারবেন ইমরান খান? করোনায় আজও মৃত্যুশূন্য দেশ, শনাক্ত কমেছে ‘ততক্ষণ খেলব যতক্ষণ না আমার চেয়ে ভালো কাউকে দেখব’ এবার ইয়েমেনে পাল্টা হামলা চালাল সৌদি জোট স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালিতে যুবলীগ নেতার মৃত্যু সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র রপ্তানি করেছে মোদি সরকার বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দেওয়া নিয়ে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, এলাকা রণক্ষেত্র ইউক্রেনকে বিপুল ক্ষেপণাস্ত্র ও মেশিনগান দিয়েছে জার্মানি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে নারীকে ধর্ষণ, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩ ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের ‘লাল-সবুজের পতাকা বিশ্বজুড়ে আনবে একতা‘-শীর্ষক সভা বঙ্গবন্ধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নওগাঁর নওহাঁটায় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন । ভূরুঙ্গামারীতে ব্যাপরোয়া অটোরিকশা কেরে নিল শিশুর ফাহিম এর প্রাণ ভূরুঙ্গামারী কিশোর গ‍্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আহত যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ৬ তম রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ক্যাম্পেইন বেনাপোলে পৃথক অভিযানে ৫২ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক-২ বেনাপোল স্থলপথে স্টুডেন্ট ভিসায় বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমন নিষেধ গেরিলা যোদ্ধা অপূর্ব