মুখোমুখি মিশা-জায়েদ ও ইলিয়াস কাঞ্চন-নিপুণ বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ভোট আজ – বর্ণমালা টেলিভিশন

নিউজ ডেক্স
আপডেটঃ ২৮ জানুয়ারি, ২০২২
৯:৩০ পূর্বাহ্ণ
61 ভিউ

আরও খবর

গেরিলা যোদ্ধা অপূর্ব

যে কারণে ক্ষুব্ধ বাপ্পি লাহিড়ীর ছেলে

বাঁধনের সিনেমার যে সংলাপ শুনে উচ্ছ্বসিত ভারতীয়রা

তৃতীয় সংসারেও ভালো নেই গায়িকা ন্যানসি, যা জানালেন

২০২১ সালের মিসওয়ার্ল্ড তথা বিশ্বসুন্দরীর খেতাব পেয়েছেন পোল্যান্ডের মডেল ক্যারোলিনা বিলাস্কা। বুধবার ক্যারিবীয় দ্বীপরাষ্ট্র পুয়ের্তো রিকোর রাজধানী সান হুয়ানে জমকালো এক অনুষ্ঠানে সব প্রতিদ্বন্দ্বীকে হারিয়ে সেরার মুকুট পরেন ক্যারোলিনা। ৭০তম বিশ্বসুন্দরী হলেন এই পোলিশ তরুণী। দ্বিতীয় ও তৃতীয় হয়েছেন যথাক্রমে যুক্তরাষ্ট্রের শ্রী শাইনি আসেন ও আইভরি কোস্টের অলিভিয়া ইয়াস। মিসওয়ার্ল্ডের অফিসিয়াল টুইটার পেজে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অংশ নেওয়ার সময় দেওয়া তথ্য বলছে, ম্যানেজমেন্টে মাস্টার্স পাশ করছেন ক্যারোলিনা। পিএইচডি করতে চান তিনি। পাশাপাশি চালিয়ে নিতে চান মডেলিংটাও। পিএইচডি শেষে মোটিভেশনাল স্পিকার হিসেবেও কাজ করার স্বপ্ন রয়েছে তার। মানবিক কাজে আত্মনিয়োগে আরো বেশি জড়িয়ে পড়তে চান। ক্যারোলিনা জানান, দুস্থ মানুষদের পাশে দাঁড়াতে ভালোবাসেন তিনি। এমন কিছু প্রকল্পে ইতোমধ্যে যুক্তও হয়েছেন। তার বিউটি উইথ আ পারপাস প্রোজের মাধ্যমে ছিন্নমূলদের সাহায্য করা হচেছ। বাস্তুহারাদের নিয়ে সচেতনতা বাড়ানোর চেষ্টা করা হয়। প্রতি রোববার পোল্যান্ডের লডজ শহরের ৩০০ মানুষকে খাবার, পানি, কাপড়, মাস্ক, জামাকাপড়, আইনি পরামর্শ, চিকিৎসাজনিত সাহায্য পৌঁছে দেয় প্রকল্পটি। নিজ দেশের সরকারের সাথে সমন্বয় করে জনগণদের করোনা টিকা দিয়ে যাচ্ছে ক্যারোলিনার এই ফাউন্ডেশন। পোল্যান্ডের লডজ শহরে তাঁরাই প্রথম ‘সোশ্যাল বাথরুম’ তৈরি করে। সামাজিক কর্ম ছাড়াও অবসর পেলে ক্যারোলিনা সাঁতার, স্কুবা ডাইভিং, টেনিস আর ব্যাডমিন্টন খেলেন। প্রসঙ্গত, ‘মিসওয়ার্ল্ড ২০২১’ গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর হওয়া কথা ছিল। কিন্তু স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তার কারণে এটি স্থগিত করা হয় সেই সময়।

বিশ্বসুন্দরী হলেন পোল্যান্ডের তরুণী

বিয়ের পর মিমের প্রথম

মুখোমুখি মিশা-জায়েদ ও ইলিয়াস কাঞ্চন-নিপুণ বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ভোট আজ

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ২৮ জানুয়ারি, ২০২২ | ৯:৩০ 61 ভিউ
অভিযোগ-পালটা অভিযোগ, মামলা, অর্থ লেনদেনের অভিযোগসহ নানা ঘটনার পর আজ অনুষ্ঠিত হচ্ছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচন। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনে (বিএফডিসি) সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলবে। গত এক মাসে এফডিসিতে সশরীরে উপস্থিত হয়ে অথবা বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক প্রচারণাসহ নানাবিধ ঘটনার জন্ম দেয়। এতে শিল্পীদের ছোট্ট একটি সংগঠনের নির্বাচন যেন জাতীয় নির্বাচনকেও হার মানিয়েছে! এবারের নির্বাচনে দুটি প্যানেলে বেশ কয়েকজন তারকাশিল্পী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এরমধ্যে একটি প্যানেলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন সদ্য বিদায়ি কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক অভিনেতা মিশা সওদাগর ও জায়েদ খান। অন্যদিকে আরেকটি প্যানেলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন সভাপতি পদে প্রখ্যাত অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন ও সাধারণ সম্পাদক পদে অভিনেত্রী নিপুণ আক্তার। দুই প্যানেলেই সিনিয়র-জুনিয়র বেশ কয়েকজন তারকাশিল্পী একে অন্যের বিরদ্ধে লড়ছেন। এদিকে চলতি মাসের শুরু থেকেই চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়। শুরুতেই অনেকের মনে সন্দেহ ছিল যথাসময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে কিনা। কারণ একদিকে করোনার প্রকোপ বাড়ার শঙ্কা, অন্যদিকে শিল্পী সমিতির ভোটাধিকার বঞ্চিত অনেক সহযোগী সদস্যের দায়ের করা রিটে আদালতের নিষেধাজ্ঞার বিষয়ও ছিল আলোচনায়। কিন্তু গত সেশনের নির্বাচিত মিশা-জায়েদ কমিটি যথাসময়ই নির্বাচন অনুষ্ঠিত করার জন্য পরিচালনা কমিটি গঠন করে কমিশনারদের হাতে ক্ষমতা ছেড়ে দেয়। পূর্বের কমিটির সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে ২৮ জানুয়ারি নির্বাচন অনুষ্ঠানের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি। এ কমিটির চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন পীরজাদা শহীদুল হারুন। তার সঙ্গে কমিশনার হিসাবে রয়েছেন বিএইচ নিশান ও বজলুর রাশেদ চৌধুরী। এবারের শিল্পী সমিতির নির্বাচনে ভোটার সংখ্যা ৪২৮ জন। সকাল ৯টা থেকে ভোটাররা তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারবেন। তবে নির্বাচন চলাকালীন দর্শনার্থীদের ভিড় এড়াতে এবং করোনা সতর্কতায় এফডিসিতে প্রবেশের ক্ষেত্রে বেশকিছু বিধিনিষেধ আরোপ করেছে নির্বাচন কমিশন। এরমধ্যে রয়েছে-নিবন্ধিত টিভি চ্যানেল, বাছাইকৃত সংবাদপত্র ও সরকার কর্তৃক স্বীকৃত অনলাইন সংবাদকর্মী ছাড়া আর কাউকে এফডিসিতে ঢুকতে দেওয়া হবে না। নির্বাচন উপলক্ষ্যে আজ এফডিসিতে কোনো প্যান্ডেল বা চেয়ারের ব্যবস্থা থাকবে না। নির্বাচনের দিন ভোটার, শিল্পী ও ভোটসংশ্লিষ্টরা ছাড়া আর কেউ এফডিসির ভেতরে থাকতে পারবেন না। এবারের নির্বাচনে ভোটার সংখ্যা ৪২৮ জন হলেও ২০১৭ সালে বিশেষ এক সভার মাধ্যমে বাদ পড়া ১২৪, প্রকারান্তরে ১৮৪ জন সদস্যও ভোটাধিকার ফিরে পাওয়ার জন্য আদালতে রিট করেছিলেন। ওই সময় নির্বাচিত মিশা-জায়েদ কমিটি সমিতির গঠনতন্ত্র অনুসরণ করে এসব সদস্যের ভোটাধিকার বাতিলপূর্বক তাদের সহযোগী সদস্য করে। এর প্রতিবাদে এসব শিল্পী তাদের ভোটাধিকার ফিরে পেতে আদালতের আশ্রয় নেন। আদালত কর্তৃক ২০১৯ সালের নির্বাচনের আগে তাদের কেন বাদ দেওয়া হয়েছে এটা জানতে চেয়ে কারণ দর্শাও নোটিশ পাঠালেও সে সময় প্রধান নির্বাচন কমিশনার অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন নির্বাচনের আগের দিন নামের আগে ‘মোহাম্মদ’ শব্দ থাকার কারণে সেই চিঠি গ্রহণ করেননি। আদালত থেকে তখন যে চিঠি এসেছিল সেটায় প্রাপকের নাম হিসাবে লেখা ছিল ‘মোহাম্মদ ইলিয়াস কাঞ্চন’। তখন ইলিয়াস কাঞ্চন দাবি করেন, তিনি নামের আগে মোহাম্মদ লেখেন না। সুতরাং মোহাম্মদ ইলিয়াস কাঞ্চন কে তা তিনি জানেন না এবং এ চিঠির প্রাপকও তিনি নন। তিনি চিঠি গ্রহণ না করায় যথাসময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় এবং মিশা-জায়েদ পুনরায় নির্বাচিত হন। একইভাবে এবারও সেসব শিল্পী নিজেদের ভোটাধিকার ফিরে পেতে আদালতের দ্বারস্থ হন এবং নির্বাচন স্থগিতাদেশ চেয়ে আবেদন করেন। তবে শেষ পর্যন্ত নির্বাচন স্থগিত করেননি হাইকোর্ট। ২৬ জানুয়ারি বিচারপতি মো. খসরুজ্জামান ও বিচারপতি মো. মাহমুদ হাসান তালুকদারের সমন্ব^য়ে গঠিত ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ নির্বাচন বন্ধ না করার নির্দেশ দেন। তবে বঞ্চিত শিল্পীদের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দিতে রুলের চূড়ান্ত শুনানি শেষে আদালত রায় ঘোষণা করবেন বলে জানিয়েছেন। এবারের নির্বাচন ঘিরে বিগত সময়ের চেয়ে বেশি কাদা ছোড়াছুড়ি হয়েছে। শিল্পীরা একে অন্যের ওপর বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দোষারোপ করেছেন। এফডিসিতে শিল্পীদের লাঞ্ছিত করার অভিযোগও করা হয়েছে নির্বাচন কমিশনে। এছাড়া ১৮৪ জন সদস্যের ভোটাধিকার বাতিল করার যে চিঠি মিশা-জায়েদ কমিটি দিয়েছিল সে ব্যাপারে নাকি প্রখ্যাত অভিনেতা আলমগীরেরও সায় ছিল-এমন একটি কথাও উঠেছে। এ বিষয়ে প্রতিবাদ জানিয়ে আলমগীর বলেন, ১৮৪ জন ভোটার বাতিলের রেজ্যুলেশনটা আমাকে দেখাও। সেখানে আমার স্বাক্ষর আছে, আমি জড়িত আছি-এটা প্রমাণ করতে পারলে আমি কথা দিলাম তোমাদের (মিশা-জায়েদ) প্যানেলকে ভোট দেব। আর যদি প্রমাণ না দিতে পার তবে আমি তোমাদের নামে আইনি ব্যবস্থা নেব। তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের কাছে এলে ভালো পরামর্শের জন্য আসো। আমরা যারা আছি মোস্ট সিনিয়র, সবাই চাই চলচ্চিত্রের অবস্থা ভালো হোক।’ এদিকে নির্বাচন উপলক্ষ্যে নায়ক রিয়াজ তাকে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেন। তিনি ইলিয়াস কাঞ্চন-নিপুণ প্যানেল থেকে সহসভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তিনি বলেন, ‘নানা নম্বর থেকে আমাকে কল দিয়ে বলা হয়েছে, এফডিসিতে এলে হত্যা করা হবে। যেসব নম্বর থেকে ফোন দেওয়া হয়েছে, সেগুলো সংরক্ষণ করে রেখেছি। আমি কাউকে দোষারোপ করছি না। বিগত কয়েক দিন ধরে অনেক রকম নম্বর থেকে ফোন আসছে। যে নম্বরগুলো জীবনে কখনো দেখিনি। ফোন দিয়ে বলে, এফডিসিতে গেলে মেরে ফেলবে, হাত-পা ভেঙে ফেলবে। রিয়াজকে তারা খুন করবে। জিডি করিনি, কাউকে বলিনি। যতদূর ব্যবস্থা নেওয়ার, আমি নিয়েছি।’ শিল্পী সমিতির এ নির্বাচনে প্রচারণার জন্য দুই প্যানেলই গান তৈরি করেছে। এরমধ্যে ইলিয়াস কাঞ্চন-নিপুণ প্যানেলের প্রচার করা গানটি নিয়ে সমালোচনা করেছেন সিনিয়র অভিনেত্রী আনোয়ারা। এ গানের এক জায়গায় বলা হয়েছে, ‘নোট দিয়ে ভোট কেনার দিন শেষ।’ এ লাইনটুকুর সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘গানটা আমার কাছে ভালো লাগেনি। শিল্পী সমিতির নির্বাচনে টাকার কথা আসবে কেন? এত বছরের অভিনয় জীবনে এসব দেখিনি। আমার কাছে মনে হয়, আমরা জোকারে পরিণত হচ্ছি। আমাদের সবার বুঝে-শুনে ভোট দেওয়া প্রয়োজন। নির্বাচনে জয়-পরাজয় থাকবে। তাই বলে এভাবে অন্যকে খাটো করে কথা বলতে হবে, গান গাইতে হবে, এগুলো কাম্য নয়। একজন বলেছেন, সিনিয়র-জুনিয়র সবাই এক! তাদের কাছে আমরা সম্মান আশা করব কীভাবে? আরেকজন বলেছেন, শিল্পী সমিতির উন্নতি চাই না, কাজ চাই। শিল্পী সমিতির উন্নতি না হলে কাজ হবে কিভাবে?’ এদিকে নির্বাচন উপলক্ষ্যে দীর্ঘদিন আড়ালে থাকা চিত্রনায়িকা পপিও প্রকাশ্যে এসেছেন। এক ভিভিও বার্তায় তিনি সদ্য বিদায়ি কমিটির প্রতি বিস্তর অভিযোগ করেন। যদিও অনেকে দাবি করেছেন, যে ইউটিউব চ্যানেল থেকে পপির ভিডিও বার্তা প্রকাশ হয়েছে সেটি নিয়ন্ত্রণ করেন নিপুণেরই ঘনিষ্ঠ লোকজন। ভিডিও বার্তায় পপি বলেন, ‘ভেবেছিলাম আর কখনোই ক্যামেরার সামনে আসব না। কিন্তু একজন শিল্পী হিসাবে এবং নিজের দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে আজ কিছু কথা না বললেই নয়। তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া আমার মতো শিল্পীকে সদস্যপদ বাতিলের জন্য চিঠি দেওয়া হয়েছে। এত বছর কাজ করার পর এমন আচরণ, একটা শিল্পীর জন্য কতটুকু অপমানের-সেটা আমি বুঝতে পারি। এসব কারণে চলচ্চিত্র থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছি। আমার কাছে সদস্যপদ বাতিলের চিঠিটা এখনও আছে। ওই চিঠিটা যখনই পেয়েছি, তখনই সিদ্ধান্ত নিয়েছি নোংরামির মধ্যে আর যাব না। ভেবেছি কখনো যদি পরিবেশ ভালো হয়-তখনই চলচ্চিত্রে ফিরব।’ এদিকে দুই প্যানেলই এবার নির্বাচনে নিজেদের ইশতেহারে শিল্পীদের জন্য ব্যাপক কর্মযজ্ঞ চালানোর ঘোষণা দিয়েছেন। মিশা-জায়েদ প্যানেলের পক্ষে ইশতেহারে দেওয়া প্রতিশ্রুতি ও নির্বাচনে আবারও অংশ নেওয়া প্রসঙ্গে মিশা সওদাগর বলেন-‘আমি সর্বশেষ মেয়াদেও সভাপতি ছিলাম। করোনা মহামারির জন্য আমরা অনেক কাজ নির্দিষ্ট সময়ে করতে পারিনি। প্রথম লক্ষ্য হচ্ছে সেগুলো শেষ করা। এমনিতে করোনায় আমরা অসহায় শিল্পীদের জন্য কী করেছি সেটা দেখেছেন এবং জানেন। আমার সেক্রেটারিকে নিয়ে করোনায় মারা যাওয়া শিল্পীকে দাফনও করেছি। আমি তৃপ্ত কাজটি করে। কারণ একজন্য শিল্পীর শেষবিদায়েও পাশে থাকতে পেরেছি এটাই সবচেয়ে বড় পাওয়া। আমাদের মধ্যে অনেকেরই বাড়ি-গাড়ি আছে। অনেকের আবার নেই। যাদের নেই, তাদের থাকার ব্যবস্থা করার জন্য আমরা আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আপিল করব, যেন ভূমি মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ১০-২০ বিঘা জায়গার মধ্যে শিল্পীদের থাকার জন্য একটা ব্যবস্থা করে দেন। এবার দায়িত্বে এলে আমরা এটি নিয়ে সবচেয়ে বেশি কাজ করব। সরকার এরই মধ্যে শিল্পী কল্যাণ ট্রাস্ট করে দিয়েছে। এটার জন্য খেয়ে না খেয়ে মন্ত্রণালয়ে পড়ে থেকেছি, বারবার বলেছি এবং সেটা প্রধানমন্ত্রী করে দিয়েছেন। শিল্পী সমিতির কোষাগারে ১২ লাখ টাকা আছে। এটাকে ৫০ লাখ করার লক্ষ্য আমাদের।’ পাশাপাশি সমিতির উন্নয়নসহ বাদ পড়া শিল্পীদের মধ্যে যারা যোগ্য তাদের আইনি জটিলতা শেষে ফিরিয়ে আনার ঘোষণাও দেন তিনি। এদিকে ইলিয়াস কাঞ্চন-নিপুণ পরিষদ নির্বাচনের ইশতেহারে লম্বা ফিরিস্তি দিয়েছে। তাদের ইশতেহারে দেওয়া ২২টি প্রতিশ্রুতির মধ্যে অন্যতম হচ্ছে-জয়ী হলে প্রধানমন্ত্রীকে এফডিসিতে আনা, ‘চলচ্চিত্র শিল্পী কল্যাণ ট্রাস্ট-২০২১’-র নীতিমালা অনুযায়ী শিল্পীদের কল্যাণে সর্বোচ্চ ব্যবহার, চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য সহজ শর্তে বড় অঙ্কের ফান্ডের ব্যবস্থা করা, যে কোনো দুর্যোগ, সমস্যা ও প্রতিকূল পরিস্থিতিতে শিল্পী সমাজের পাশে দাঁড়ানো ও সহায়তা করা, ধর্মীয় উৎসবে স্বল্প আয়ের সদস্যদের উৎসব ভাতা ও উপহার প্রদান, বিদেশে শিল্পীদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা উল্লেখযোগ্য। নিজেদের ইশতেহার ও নির্বাচনে অংশ নেওয়া প্রসঙ্গে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন- ‘দীর্ঘদিন ধরেই আলাপ-আলোচনা করেই নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমার সমসাময়িক তো বটে, বিশেষ করে এ সময়ে যারা কাজ করছে তারাও আমাকে বেশ উৎসাহ দিয়েছে। প্রযোজক, নির্মাতা, ক্যামেরাম্যান, নাচের অ্যাসোসিয়েশন ও ফাইটার গ্রুপ, মেকআপম্যানের গ্রুপ সবাই বলেছেন নির্বাচনে অংশ নিতে। এত মানুষের ভালোবাসা ফেলে দিতে পারি না। তাদের প্রতি ভালোলাগা ও ভালোবাসা থেকেই শিল্পী সমিতির নির্বাচনে অংশ নিয়েছি। এছাড়া ভিন্নভাবেও বিষয়টি আমি দেখছি। জীবন একটাই। এ এক জীবনে আমি যেখান থেকে ইলিয়াস কাঞ্চন হয়েছি সেটার জন্য কিছুই করলাম না, এ আফসোস যেন না থাকে, এটা ভেবেও নির্বাচনে অংশ নিয়েছি। তাই চেষ্টা করে দেখি, আগামী দুই বছর চলচ্চিত্রের জন্য কিছু করতে পারি কিনা। আমার বিশ্বাস, সম্মিলিতভাবে চেষ্টা করলে কিছু একটা হবে। এফডিসিতে শিল্পীদের কাজের পরিবেশ ফিরিয়ে আনা বেশি প্রয়োজন। শিল্পীরা সরকারের অনুদান নয়, কাজ করে সম্মান নিয়ে বাঁচতে চান-এ লক্ষ্যেই কাজ করে যাব।’ যারা নির্বাচন করছেন : সভাপতি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান প্যানেলে রয়েছেন সহসভাপতি মনোয়ার হোসেন ডিপজল ও রুবেল, সহসাধারণ সম্পাদক সুব্রত, সাংগঠনিক সম্পাদক আলেকজান্ডার বো, আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক জয় চৌধুরী, দপ্তর ও প্রচার জ্যাকি আলমগীর, সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক জাকির হোসেন, কোষাধ্যক্ষ ফরহাদ হোসেন। এ প্যানেলে কার্যকরী সদস্য হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন নাদির খান, সুচরিতা, অঞ্জনা, রোজিনা, আলী রাজ, বাপ্পারাজ, অরুণা বিশ্বাস, মৌসুমী, আসিফ ইকবাল, চুন্নু ও হাসান জাহাঙ্গীর। অন্যদিকে সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন ও সাধারণ সম্পাদক নিপুন প্যানেলে রয়েছেন সহসভাপতি রিয়াজ, ডিএ তায়েব, সহসাধারণ সম্পাদক সাইমন সাদিক, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহনূর, আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক নিরব, দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক আরমান, সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক মামনুন ইমন, কোষাধ্যক্ষ আজাদ খান। এ প্যানেলে কার্যকরী সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন অমিত হাসান, ফেরদৌস, শাকিল খান, নানা শাহ, আফজাল শরীফ, কেয়া, পরীমনি, জেসমিন, সাংকোপাঞ্জা, গাঙ্গুয়া ও সীমান্ত।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:



































শীর্ষ সংবাদ:
বেনাপোল সীমান্তে সচল পিস্তলসহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী গ্রেফতার নির্মাণসামগ্রীর দাম চড়া, উন্নয়ন প্রকল্পে ধীরগতি কলম্বোতে কারফিউ জারি টিকে থাকার লড়াইয়ে ছক্কা হাকাতে পারবেন ইমরান খান? করোনায় আজও মৃত্যুশূন্য দেশ, শনাক্ত কমেছে ‘ততক্ষণ খেলব যতক্ষণ না আমার চেয়ে ভালো কাউকে দেখব’ এবার ইয়েমেনে পাল্টা হামলা চালাল সৌদি জোট স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালিতে যুবলীগ নেতার মৃত্যু সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র রপ্তানি করেছে মোদি সরকার বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দেওয়া নিয়ে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, এলাকা রণক্ষেত্র ইউক্রেনকে বিপুল ক্ষেপণাস্ত্র ও মেশিনগান দিয়েছে জার্মানি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে নারীকে ধর্ষণ, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩ ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের ‘লাল-সবুজের পতাকা বিশ্বজুড়ে আনবে একতা‘-শীর্ষক সভা বঙ্গবন্ধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নওগাঁর নওহাঁটায় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন । ভূরুঙ্গামারীতে ব্যাপরোয়া অটোরিকশা কেরে নিল শিশুর ফাহিম এর প্রাণ ভূরুঙ্গামারী কিশোর গ‍্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আহত যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ৬ তম রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ক্যাম্পেইন বেনাপোলে পৃথক অভিযানে ৫২ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক-২ বেনাপোল স্থলপথে স্টুডেন্ট ভিসায় বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমন নিষেধ গেরিলা যোদ্ধা অপূর্ব