মিয়ানমারে শত শত বাড়ি পুড়িয়ে দিয়েছে সামরিক জান্তা – বর্ণমালা টেলিভিশন

মিয়ানমারে শত শত বাড়ি পুড়িয়ে দিয়েছে সামরিক জান্তা

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২২ | ৮:০৫ 45 ভিউ
মিয়ানমারে উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের বিন ও ইন মা গ্রামে শত শত বাড়ি পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে। ২০১৭ সালে রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের একাধিক গ্রামেও আগুণ দিয়েছিল দেশটির সেনাবাহিনী। গণমাধ্যম এএফপি জানিয়েছে, গত সোমবার নিজ দেশের মানুষদের ওপর এমন নৃসংসতা চালায় সেনাবাহিনীর সদস্যরা। ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে সু চিকে ক্ষমতাচ্যুত করে ক্ষমতা দখল করে সামরিক জান্তা। এর কয়েকদিন পর থেকেই জান্তার বিরুদ্ধে প্রতিরোধে নামেন অনেকে। বর্তমানে পিপলস ডিফেন্স ফোর্স নামে জান্তার বিরুদ্ধে লড়াই করছেন সাধারণ জনগণ। তবে মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের খবরে দাবি করা হয়েছে, জান্তাবিরোধীরা সাধারণ মানুষের ঘরে আগুন দিয়েছে। কিন্তু পিপলস ডিফেন্স ফোর্সের সদস্যরা জানিয়েছে, এ কাজ করেছে সেনারাই। পিপলস ডিফেন্স ফোর্সের সঙ্গে সংঘর্ষের পরই প্রতিশোধ নিতে বিন ও ইন মা গ্রামে আসে সেনারা। এ সময় তাদের ভয়ে পালিয়ে যায় সাধারণ গ্রামবাসী। আর তখনই গ্রাম দুটির প্রায় ৮০০ ঘরে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয় সেনারা। নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিন গ্রামের একজন বাসিন্দা শুক্রবার এএফপিকে বলেন, জান্তাবিরোধী পিপলস ডিফেন্স ফোর্সের যোদ্ধাদের সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে। সংঘর্ষের জের ধরে ওই দিন সকালে তাঁদের গ্রামে আসেন সেনারা। তারা ভারী অস্ত্র নিয়ে গ্রামে প্রবেশ করেন। গোলাগুলির শব্দ শুনে গ্রামবাসী ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায়। এ সময় জান্তা সেনারা বিন গ্রামের প্রায় ২০০ বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেন। সেনারা প্রবেশ করার পর দ্রুত বাড়ি ছাড়ার কারণে কোনো কিছু নিয়ে বের হতে পারেননি বলে জানান ওই নারী। অন্যদিকে ইন মা হতে গ্রামে প্রায় ৬০০ বাড়িতে আগুন দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। নাম প্রকাশ না শর্তে ওই গ্রামের এক যোদ্ধা এএফপিকে জানান, পিপলস ডিফেন্স ফোর্সের যোদ্ধারা গ্রাম ছেড়ে যাওয়ার পর সেনারা সেখানে এসে প্রায় ৬০০ বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। সূত্র: এএফপি

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:



































শীর্ষ সংবাদ:
বেনাপোল সীমান্তে সচল পিস্তলসহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী গ্রেফতার নির্মাণসামগ্রীর দাম চড়া, উন্নয়ন প্রকল্পে ধীরগতি কলম্বোতে কারফিউ জারি টিকে থাকার লড়াইয়ে ছক্কা হাকাতে পারবেন ইমরান খান? করোনায় আজও মৃত্যুশূন্য দেশ, শনাক্ত কমেছে ‘ততক্ষণ খেলব যতক্ষণ না আমার চেয়ে ভালো কাউকে দেখব’ এবার ইয়েমেনে পাল্টা হামলা চালাল সৌদি জোট স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালিতে যুবলীগ নেতার মৃত্যু সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র রপ্তানি করেছে মোদি সরকার বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দেওয়া নিয়ে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, এলাকা রণক্ষেত্র ইউক্রেনকে বিপুল ক্ষেপণাস্ত্র ও মেশিনগান দিয়েছে জার্মানি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে নারীকে ধর্ষণ, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩ ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের ‘লাল-সবুজের পতাকা বিশ্বজুড়ে আনবে একতা‘-শীর্ষক সভা বঙ্গবন্ধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নওগাঁর নওহাঁটায় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন । ভূরুঙ্গামারীতে ব্যাপরোয়া অটোরিকশা কেরে নিল শিশুর ফাহিম এর প্রাণ ভূরুঙ্গামারী কিশোর গ‍্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আহত যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ৬ তম রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ক্যাম্পেইন বেনাপোলে পৃথক অভিযানে ৫২ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক-২ বেনাপোল স্থলপথে স্টুডেন্ট ভিসায় বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমন নিষেধ গেরিলা যোদ্ধা অপূর্ব