মহড়া শেষে ঘাঁটিতে ফিরল ১০ সহস্রাধিক রুশ সেনা – বর্ণমালা টেলিভিশন

মহড়া শেষে ঘাঁটিতে ফিরল ১০ সহস্রাধিক রুশ সেনা

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ২৬ ডিসেম্বর, ২০২১ | ৬:৫২ 48 ভিউ
ইউক্রেন সীমান্তে মহড়া শেষে রাশিয়ার ১০ সহস্রাধিক সেনা স্থায়ী ঘাঁটিতে ফিরেছে। রুশ সেনাবাহিনীর বরাতে ইন্টারফ্যাক্স এই খবর দিয়েছে। খবরে বলা হয়েছে, ক্রিমিয়াসহ ইউক্রেন সীমান্ত সংলগ্ন কয়েকটি অঞ্চলে দীর্ঘ সময়ব্যাপী মহড়া শেষে ১০ হাজারেরও বেশি রুশ সেনা স্থায়ী ক্যাম্পে ফিরেছে। সম্প্রতি রাশিয়া ১ লাখের বেশি সেনা ইউক্রেনের উত্তর, পূর্ব এবং দক্ষিণ সীমান্তে জড়ো করে। ঘটনার পর কিয়েভ ও পশ্চিমা দেশগুলোই উক্রেনে রাশিয়া হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করে। যদিও রাশিয়া বলেছে, ইউক্রেনে হামলা চালানোর কোনো ইচ্ছা তাদের নেই। তবে রাশিয়া ইউক্রেনকে সামরিক জোট ন্যাটোতে সংযুক্ত না করার জন্য পশ্চিমা দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। ক্রেমলিন স্থানীয় সময় গতকাল শুক্রবার বলেছে, রাশিয়ার অভ্যন্তরে যেকোনো জায়গায় সেনা মোতায়েন বা বাড়ানোর অধিকার তাদের রয়েছে। ক্রেমলিনের অভিযোগ, পশ্চিমা দেশগুলো সীমান্তবর্তী এলাকায় উসকানিমূলক সামরিক আচরণ করছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে প্রকাশিত স্যাটেলাইট ইমেজে দেখা গেছে, ২০১৪ সালে ইউক্রেনের কাছ থেকে অধিকৃত ক্রিমিয়ায় শত শত সশস্ত্র গাড়ি ও ট্যাংক টহল দিচ্ছে। অথচ অক্টোবর মাসে নেওয়া স্যাটেলাইট ইমেজে দেখা গেছে, ওই একই ঘাঁটির অর্ধেকটা ফাঁকা। ক্রিমিয়ার ওই ঘাঁটিতে সামরিক যান, ট্যাংক, নিজে চালিত কামান, বিমান প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম রয়েছে। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন স্থানীয় সময় গত বৃহস্পতিবার বলেন, রাশিয়া সহিংসতা এড়াতে চায়। আগামী জানুয়ারি মাসে জেনেভায় নিরাপত্তা ইস্যুতে মার্কিন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করবে বলেও আশা করছে রাশিয়া। ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ ইউক্রেন সীমান্তে সামরিক কর্মকাণ্ড বাড়ানোর বিষয়ে বলেন, নিজেদের নিরাপত্তার স্বার্থে মস্কো এমন আচরণ করছে। যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমা দেশগুলোর সীমান্তে উসকানিমূলক আচরণের কারণেই রাশিয়া সেনা বাড়িয়েছে। ইউক্রেনে হামলা চালালে রাশিয়ার ওপর কঠোর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। মার্কিন কর্মকর্তা জানান, রাশিয়া নতুন যেসব সামরিক পদক্ষেপ নিয়েছে সে জন্য তাঁদের রপ্তানির ওপর কঠোর নিয়ন্ত্রণ আরোপ করা হতে পারে।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:



































শীর্ষ সংবাদ:
বেনাপোল সীমান্তে সচল পিস্তলসহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী গ্রেফতার নির্মাণসামগ্রীর দাম চড়া, উন্নয়ন প্রকল্পে ধীরগতি কলম্বোতে কারফিউ জারি টিকে থাকার লড়াইয়ে ছক্কা হাকাতে পারবেন ইমরান খান? করোনায় আজও মৃত্যুশূন্য দেশ, শনাক্ত কমেছে ‘ততক্ষণ খেলব যতক্ষণ না আমার চেয়ে ভালো কাউকে দেখব’ এবার ইয়েমেনে পাল্টা হামলা চালাল সৌদি জোট স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালিতে যুবলীগ নেতার মৃত্যু সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র রপ্তানি করেছে মোদি সরকার বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দেওয়া নিয়ে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, এলাকা রণক্ষেত্র ইউক্রেনকে বিপুল ক্ষেপণাস্ত্র ও মেশিনগান দিয়েছে জার্মানি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে নারীকে ধর্ষণ, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩ ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের ‘লাল-সবুজের পতাকা বিশ্বজুড়ে আনবে একতা‘-শীর্ষক সভা বঙ্গবন্ধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নওগাঁর নওহাঁটায় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন । ভূরুঙ্গামারীতে ব্যাপরোয়া অটোরিকশা কেরে নিল শিশুর ফাহিম এর প্রাণ ভূরুঙ্গামারী কিশোর গ‍্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আহত যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ৬ তম রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ক্যাম্পেইন বেনাপোলে পৃথক অভিযানে ৫২ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক-২ বেনাপোল স্থলপথে স্টুডেন্ট ভিসায় বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমন নিষেধ গেরিলা যোদ্ধা অপূর্ব