ঢাকা, Sunday 26 September 2021

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনাটি দ্রুত তদন্ত করা হবে ॥ সিআইডির ডিআইজি

প্রকাশিত : 07:29 PM, 12 September 2020 Saturday
61 বার পঠিত

মোহাম্মদ রাছেল রানা | ডোনেট বাংলাদেশ নিউজ ডেক্স :-

নারায়ণগঞ্জে মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনাটি দ্রুত তদন্ত করা হবে বলে সিআইডির ডিআইজি মাঈনুল হাসান জানিয়েছেন।

নারায়ণগঞ্জ শহরের পশ্চিম তল্লায় বাইতুস সালাত জামে মসজিদ বিস্ফোরণস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান মাঈনুল।

শনিবার বেলা ১১টার দিকে তার নেতৃত্বে সিআইডির একটি দল মসজিদের ভেতরে ঘুরে দেখেন।

এ সময় সিআইডির অতিরিক্ত ডিআইজি ইমাম হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(অপরাধ) টিএম মোশাররফ হোসেন, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পরিদর্শক বাবুল হোসেনসহ পুলিশ ও সিআইডির কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ডিআইজি সাংবাদিকদের বলেন, বিস্ফোরণের ঘটনাটি অত্যন্ত মর্মান্তিক। এ পর্যন্ত ৩১ জনের প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় পুলিশ ফতুল্লা মডেল থানায় অবহেলা জনিত অভিযোগে মামলা দায়ের করেছেন। সিআইডি মামলাটি তদন্তের জন্য অধিগ্রহণ

করেছে। সর্বোচ্চ পেশাদারিত্ব ও দক্ষতা দিয়ে মামলার দ্রুত তদন্ত কাজ সম্পন্ন করা হবে।

এ ঘটনায় তদন্ত ও সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে যাদেরকে অভিযুক্ত পাওয়া যাবে তাদেরকে অভিযুক্ত করে দ্রুত বিচারার্থে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হবে বলেও জানান তিনি।

আলামত প্রসঙ্গে ডিআইজি বলেন, ফায়ার সার্ভিস, তিতাস গ্যাসসহ বিভিন্ন এক্সপার্ট যারা আছেন, তারা আলামত সংগ্রহ করেছেন, সিআইডির নিজস্ব ফরেনসিক বিভাগের তত্ত্বাবধানে আলামত সংগ্রহ করা হচ্ছে। স্থানীয় লোকজনের সাক্ষ্য গ্রহণ, আলামত যেগুলো আছে সেগুলো ফরেনসিক বিভাগে পরীক্ষা করা হবে। সব কিছু মিলিয়ে যে ধরনের তথ্য প্রমাণ পাওয়া যাবে সেগুলো নিয়ে আমরা তদন্ত কাজ সম্পন্ন করবো।

এ ঘটনায় গ্রেফতার বা জিজ্ঞাসাবাদের বিষয়ে

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মামলা কেবল রুজু হয়েছে। আমরা এসেছি ঘটনাস্থল দেখার জন্য এবং এটার তদন্ত কাজও অগ্রসর হবে। ঘটনার সাথে জড়িত তাদেরকে গ্রেফতার বা জিজ্ঞাসাবাদ করব। প্রাথমিকভাবে মনে হয়েছে, গ্যাস থেকে সম্ভবত এই ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। তদন্ত অগ্রসর হলে পুরো ঘটনাটি বুঝা যাবে।দ্রুততার সাথে সামগ্রিক সাক্ষ্য প্রমাণ যেগুলো আছে, সেগুলো সংগ্রহ করে তদন্ত সম্পন্ন করা।

গত শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে বাইতুস সালাত জামে মসজিদে বিকট শব্দে বিস্ফোরণে অগ্নিদগ্ধ অর্ধশতাধিক মুসল্লি দগ্ধ হন। এর মধ্যে শনিবার পর্যন্ত এক শিশুসহ বাইতুস সালাত জামে মসজিদের ইমাম আব্দুল মালেকসহ ৩১ জনের মৃত্যু হয়।

বিস্ফোরণে মসজিদের ৬টি এসি

জ্বলে যায় এবং থাই জানালার কাঁচ বিস্ফোরণে উড়ে যায়।

বৈদ্যুতিক শটসার্কিট ও পাইপলাইনের লিকেজ থেকে গ্যাস জমে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ।

এ ঘটনায় ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, জেলা প্রশাসন, তিতাস গ্যাস, ডিপিডিসি, সিটি করপোরেশন পৃথক পাঁচটি তদন্ত কমিটি গঠন করে। জেলা প্রশাসনের তদন্ত কমিটির গণশুনানিতে ৪৩ জন সাক্ষ্য দিয়েছে।

গত সোমবার পাইপলাইনে দুটি ছিদ্র পাওয়ার পর চার কর্মকর্তাসহ ৮ জনকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি ডোনেট বাংলাদেশ'কে জানাতে ই-মেইল করুন- donetbd2010@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

ডোনেট বাংলাদেশ'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© 2021 সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। ডোনেট বাংলাদেশ | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT