মধুখালীতে অবাধে পাখি নিধন – বর্ণমালা টেলিভিশন

মধুখালীতে অবাধে পাখি নিধন

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২২ | ১০:৫১ 48 ভিউ
ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলাতে চলছে অবাধে পাখি নিধন। উপজেলার সকল মাঠে প্রতি বছরের শীতের মৌসুমে আসে বিভিন্ন প্রজাতির পাখি। মাঠের ফসলের জমিতে পানি দেওয়ার সময় ঐসব পাখি বিশেষ করে সাদা বক, শালিক, চড়ুই, ডাহুক, ঝুটকুলী পাখি মাটির নিচে থেকে উঠে আসা পোকামকড়সহ বিভিন কীটপতঙ্গ খেতে ব্যস্ত হয়ে পড়ে। এ সুযোগে এক শ্রেনির পাখি নিধনকারীরা তেলাপোকার মধ্যে বিষাক্ত ফুরাডান কীটনাশক ঢুকিয়ে ছেড়ে দিলেই সেই তেলাপোকা খেয়ে পাখিগুলো একটু দুরে অসুস্থ্য হয়ে মাটিতে পড়ে যাচ্ছে। এ সময় পাখিগুলো ধরে কাছে রাখা ব্লেড, ছুরি দিয়ে জবাই করা হচ্ছে। এছাড়া বড় বাঁশের সাথে আকাশের দিকে উচুঁ করে বড় ধরনের জাল পেতে রাখা হচ্ছে। এ পদ্ধতিতে পাখিদের তাড়া করলেই পাখিগুলো উড়তে গিয়ে জালে বেঁধে যায়। আর শিকারীরা পাখি ধরে বস্তার মধ্যে ঢুকিয়ে রাখছে। পরে সময়মত পাখিগুলো বিক্রি অথবা জবাই করছে। প্রতিদিনই উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের ব্যাসদী গ্রামের মাঠে,মেগচামী,নরকোনা,কোরকদি,আড়পাড়া,চৈত্রার বিল মাঠে শিকারীরা পাখি নিধন করছে। মেগচামী এলাকার ‘মেগচামী এক্সপ্রেস’ নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন পাখি নিধন করা থেকে বিরত থাকতে পোস্টারিং ও মাইকিং করেছে। সংগঠনের সদস্যবৃন্দ মাঠে মাঠে গিয়ে শিকারীদেরকে সচেতন করতে কাজ করছে কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না। মেগচামী গ্রামের এক পাখি শিকারী নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, পাখি ধরে নিজেরা গোশত খায় এবং বিক্রি করে বেশ কিছু টাকা জমিয়েছি। এ ব্যাপারে প্রশাসনের ভুমিকা নেওয়া জরুরী বলে মনে করেন পাখি প্রেমী মেহেদী হাসান পলাশ। তিনি জানান, পাখিদের নিধনের হাত হতে বাচাঁতে একমাত্র প্রশাসনকেই ভুমিকা নিতে হবে। আর জনগণতে সচেতন হতে হবে। মধুখালী প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শাহজাহান হেলাল জানান, বর্তমানে সকল মাঠেই পাখি দেখা যাচ্ছে। এসব পাখি শিকারে এক শ্রেনির অসাধু লোকজন ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। পাখি শিকারের ফলে পরিবেশের উপর বিরুপ প্রভাব পড়তে পারে।পাখি শিকার বন্ধ করতে হবে। একাজে প্রশাসনকে এগিয়ে আসতে হবে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.আশিকুর রহমান চৌধুরী জানান, পাখি শিকার করা একটি অপরাধ। সংবাদ পেলে অবশ্যই ঘটনাস্থলে পৌঁছে আইনগত ব্যবস্থা নিব।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:



































শীর্ষ সংবাদ:
বেনাপোল সীমান্তে সচল পিস্তলসহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী গ্রেফতার নির্মাণসামগ্রীর দাম চড়া, উন্নয়ন প্রকল্পে ধীরগতি কলম্বোতে কারফিউ জারি টিকে থাকার লড়াইয়ে ছক্কা হাকাতে পারবেন ইমরান খান? করোনায় আজও মৃত্যুশূন্য দেশ, শনাক্ত কমেছে ‘ততক্ষণ খেলব যতক্ষণ না আমার চেয়ে ভালো কাউকে দেখব’ এবার ইয়েমেনে পাল্টা হামলা চালাল সৌদি জোট স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালিতে যুবলীগ নেতার মৃত্যু সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র রপ্তানি করেছে মোদি সরকার বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দেওয়া নিয়ে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, এলাকা রণক্ষেত্র ইউক্রেনকে বিপুল ক্ষেপণাস্ত্র ও মেশিনগান দিয়েছে জার্মানি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে নারীকে ধর্ষণ, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩ ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের ‘লাল-সবুজের পতাকা বিশ্বজুড়ে আনবে একতা‘-শীর্ষক সভা বঙ্গবন্ধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নওগাঁর নওহাঁটায় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন । ভূরুঙ্গামারীতে ব্যাপরোয়া অটোরিকশা কেরে নিল শিশুর ফাহিম এর প্রাণ ভূরুঙ্গামারী কিশোর গ‍্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আহত যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ৬ তম রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ক্যাম্পেইন বেনাপোলে পৃথক অভিযানে ৫২ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক-২ বেনাপোল স্থলপথে স্টুডেন্ট ভিসায় বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমন নিষেধ গেরিলা যোদ্ধা অপূর্ব