ঢাকা, Sunday 26 September 2021

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

ভাড়া নিয়ে আজ বৈঠক বিআরটিএর বর্ধিত অংশ প্রত্যাহার দাবি

প্রকাশিত : 09:53 PM, 19 August 2020 Wednesday
52 বার পঠিত

মোহাম্মদ রাছেল রানা | ডোনেট বাংলাদেশ নিউজ ডেক্স :-

যাত্রী পরিবহনে কোনোরকম স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই চলছে গণপরিবহন। ভাড়াও নেওয়া হচ্ছে দ্বিগুণের বেশি। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ যাত্রীরা। প্রতিদিনই যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকদের মধ্যে এ নিয়ে ঝগড়া বিবাদের ঘটনা ঘটছে। এই পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মানা ও অতিরিক্ত ভাড়া নিয়ে আজ বৈঠকে বসছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। বিআরটিএ সংশ্লিষ্টরা বলছেন, মোবাইল কোর্ট এবং উচ্চ হারে জরিমানা করেও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না। তাই প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে মালিক ও শ্রমিক পক্ষগুলোকে নিয়ে তারা বৈঠকে বসছেন।

টানা ৬৬ দিন সাধারণ ছুটির পর গত ৩১ মে থেকে স্বাস্ব্যবিধি মেনে গণপরিবহন খোলার অনুমতি দেয় সরকার। এরপর প্রথম দিকে পরিবহনগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি মানা

হলেও অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়ার অভিযোগ ছিল। যাত্রীদের উপস্থিতিও কম ছিল। কিন্তু গত ঈদের পর থেকে গণপরিবহনে যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন করলেও ভাড়া কম নিচ্ছেন না পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা। এতে ক্ষোভ-অসন্তোষ দেখা দিয়েছে সাধারণ যাত্রীদের মধ্যে। বিআরটিএর পক্ষ থেকেও নিয়ম না মানার বিষয়টি উল্লেখ করে গত ১০ আগস্ট পুনরায় স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে মানার কথা সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোকে স্মরণ করিয়ে দিয়ে একটি অফিস আদেশ জারি করা হয়েছিল। তবে পরিস্থিতির কোনো উন্নতি হয়নি।

বিআরটিএ সূত্রে জানা গেছে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চালানোর জন্য পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। নিয়মভঙ্গকারীদের প্রতিদিন জরিমানা করা হচ্ছে। তারপরও পরিস্থিতির

উন্নতি না হওয়ায় পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের নিয়ে করণীয় নির্ধারণে আজ বৈঠক আহ্বান করা হয়েছে।
এদিকে গণপরিহন এবং ব্যক্তিগত মোটরবাইক চললেও পাঠাও, উবারের মোটরবাইক সার্ভিস বন্ধ রেখেছে বিআরটিএ। এই অবস্থায় যাত্রী কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক বলেছেন, পাঠাও বাইক সার্ভিস চালু করা সময়ের দাবি। রাইড শেয়ারিংয়ের মাধ্যমে চললে মহামারীর সময় আয়ের সংস্থান হবে, যাত্রীদের নিরাপত্তাও নিশ্চিত হবে।

বর্ধিত অংশ প্রত্যাহার দাবি : গণপরিবহনে বর্ধিত ভাড়া প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে ইসলামী যুব আন্দোলন। গতকাল জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধনে এ দাবি জানানো হয়। ইসলামী যুব আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি কে এম আতিকুর রহমান বলেন, করোনার অজুহাতে গণপরিবহনে ৬০

শতাংশ ভাড়া বাড়িয়ে সরকার প্রমাণ করেছে তারা জনগণের সরকার নয়। শুধু একটি গোষ্ঠীর স্বার্থে ক্ষমতায় বসে আছে। গণপরিবহনে শারীরিক দূরত্ব মানার জন্য ভাড়া বাড়ানো হয়েছিল। কিন্তু গণপরিবহনে শারীরিক দূরত্ব না থাকলেও বর্ধিত ভাড়া ঠিকই নেওয়া হচ্ছে। সরকারের সমালোচনা করে তিনি বলেন, সরকার করোনা মোকাবিলায় ব্যর্থ হয়েছে। মন্ত্রীরা অযাচিত কথা বলছেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করে তিনি বলেন, করোনা মোকাবিলায় ব্যর্থ হওয়ার পর স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এ পদে থাকার কোনো যোগ্যতা নেই। মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন সেক্রেটারি জেনারেল নেজাব উদ্দিন, জয়েন্ট সেক্রেটারি জেনারেল আতিকুর রহমান প্রমুখ।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি ডোনেট বাংলাদেশ'কে জানাতে ই-মেইল করুন- donetbd2010@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

ডোনেট বাংলাদেশ'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© 2021 সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। ডোনেট বাংলাদেশ | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT