বাংলামোটরে আর কে টাওয়ারে আগুন, দগ্ধ ৩ – বর্ণমালা টেলিভিশন

বাংলামোটরে আর কে টাওয়ারে আগুন, দগ্ধ ৩

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ১২ ডিসেম্বর, ২০২১ | ৮:০৮ 81 ভিউ
রাজধানীর বাংলামোটর এলাকার আর কে টাওয়ারে অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটেছে। শনিবার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে ভবনটির ৭ম তলা থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। ফায়ার সার্ভিসের ৮টি ইউনিট দুপুর ২টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনে ওই ফ্লোরের তিনজন কর্মচারী দগ্ধ হয়েছেন। তারা হলেন- মামুন, মানিক ও তাফসির। এদের মধ্যে মামুনের শরীরের ৩৪ শতাংশ ইলেকট্রনিক ফ্লাশ বার্ন হয়েছে। তাকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি রাখা হয়েছে। আর ২ ও ৭ শতাংশ ফ্লেম বার্ন হওয়া মানিক এবং তাফসিরকে চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। আগুন লাগার কারণ তৎক্ষণাৎ নিশ্চিত করতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষ। তবে ভবনটির ৭ম তলার লোকজন জানিয়েছেন, শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত। এতে অর্ধকোটি টাকার মালামালের বেশির ভাগই পুড়ে ও আগুনের তাপে নষ্ট হয়ে গেছে। ১০তলা ভবনটির নিচতলায় সিরামিকস, টাইলস, মেঘনা ব্যাংকের শাখা ও বাথরুম ফিটিংসের শোরুম রয়েছে। এ ছাড়া ভবনটির বিভিন্ন তলায় বেসরকারী ব্যাংকের শাখা, এক্সপোর্ট ইমপোর্টসহ বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। ৭ম তলার রাবেয়া এন্টারপ্রাইজের অফিস ও গোডাউনে অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটে। ওই গোডাউনে ব্লেন্ডার, টেবিল লাইট, ব্যায়াম করার মেশিন, আলমারি, কিচেন র‌্যাক, ওয়্যারড্রপ, হিটার, গিজার, বাচ্চাদের পুতুল, গাড়িসহ সাংসারিক কাজে ব্যবহৃত তৈজসপত্র ছিল। এসব মালামালের অনেকগুলো পুড়ে গেছে। আবার প্লাস্টিক হওয়ায় আগুনের তাপে অল্পতেই নষ্ট হয়ে গেছে। অগ্নিকা-ের কারণে ভবনের আশপাশের সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। রাবেয়া এন্টারপ্রাইজের কর্মকর্তা বাপ্পী বলেন, দুপুর প্রায় সোয়া ১২টার দিকে গোডাউনের মাল্টিপ্লাগের সকেটে প্রথমে শর্টসার্কিট হয়। এরপর মুহূর্তে সকেট থেকে পুরো তার বেয়ে আগুন ওপরে উঠে যায় এবং রুমে থাকা মালামালে দ্রুত আগুন ধরে যায়। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে আগুন এত দ্রুত ধরে যায় যে, পানি কিংবা কোন কিছু দিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করতে যাওয়াও ঝুঁকি ছিল। তখন তারা আগুন আগুন বলে চিৎকার করতে করতে নিচে নেমে আসেন। অগ্নিকা-ের সময় অফিসে ৬-৭ জন স্টাফ ছিলেন। এদের মধ্যে যে তিনজন দগ্ধ হয়েছেন তারা মাল্টিপ্লাগের কাছে বসে ছিলেন। আগুনের তাপে মানিক ও তাফসির দগ্ধ হলেও মামুন একটু বেশিই দগ্ধ হয়েছেন। তখন এদের মধ্যে কয়েকজনকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যান। ৭ম তলার স্টাফ হিমেল জানান, রাবেয়া এন্টারপ্রাইজের মালিক আমিনুর রহমান পলাশ। অগ্নিদুর্ঘটনার সময় পলাশও অফিসে ছিলেন। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে আগুন নেভানোর সময় পলাশও তদারকি করছিলেন। তবে এরপর থেকে তাকে আর ভবনের আশপাশে পাওয়া যায়নি। ওই গোডাউনে তাদের ৫০ লাখ টাকার মতো মালামাল ছিল, দাবি হিমেলের। দুপুর ১টার দিকে আর কে টাওয়ারের সামনে গিয়ে দেখা যায়, ভবনটির সাত তলায় পুরোদমে আগুন জ্বলছে। পুরো ভবনটির চারদিক কাঁচের বেস্টুনি থাকায় ধোঁয়া ওপর দিক দিয়ে বের হচ্ছিল। তখনও আগুনের ভয়াবহতা আঁচ করা সম্ভব হয়নি। এরই মধ্যে ফায়ার সার্ভিসের ৫টি ইউনিটির সঙ্গে আরও ৩টি ইউনিট যোগ হয়। আগুন নির্বাপণ কর্মীরা মই দিয়ে ভবনটির সামনের অংশে থাকা বিকল্প সিঁড়িতে দাঁড়িয়ে কাঁচগুলো ভাংতে থাকেন। এরপর জানালার গ্রিল কাটেন। কাঁচ ও গ্রিল কাটার পরপরই আগুনের লেলিহান শিখা ও ধোঁয়া বের হতে দেখা যায়। তখন আগুনের ভয়াবহতা বাইরে থেকে ফুটে ওঠে। ভাঙ্গা কাঁচ ও গ্রিল দিয়ে পানি ছিটানো হয়। এতে প্লাস্টিক পোড়া কালো ধোঁয়ায় পুরো এলাকায় ছেয়ে যায়। আর কে টাওয়ারের উত্তর পাশে সড়ক, তারপরে ৭-৮ তলা বিশিষ্ট ভবন রয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ওই ভবন থেকে ভাঙ্গা জানালা দিয়ে পানি ছিটাচ্ছেন। তবে দক্ষিণ পাশে লাগোয়া বাইতুল মুবারক জামে মসজিদ থাকায় সেখান দিয়ে ফায়ার কর্মীরা ঢুকতে পারেননি। সামনে ও উত্তর পাশ দিয়ে কয়েকটি কাঁচের জানালা কেটে পানি ছিটানোর ফলে প্রায় দেড়টার দিকে আগুন নিভে যায়। তবে জানালা দিয়ে ধোঁয়ার কু-লি বের হওয়ায় ভেতরে ঢুকতে পারছিলেন না ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। পরে ভবনটির সামনের দিক দিয়ে মইতে দাঁড়িয়ে লাঠি দিয়ে পুড়ে যাওয়া প্লাস্টিকের মালামাল নিচে ফেলা হয়। ওপর থেকে বৃষ্টির মতো পানি, সেই সঙ্গে পোড়া মালামাল নিচে পড়তে থাকে। ভবনটির বিভিন্ন ফ্লোরে ও নিচে জড়ো হওয়া লোকজন দীর্ঘ সময়েও সেখান থেকে বের হতে পারেননি। ব্যাংকসহ বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের দারোয়ান ও কর্মকর্তারা গেট লাগিয়ে ভেতরে ও দরজার সামনে দাঁড়িয়ে থাকতেও দেখা গেছে। দুপুর ২টার দিকে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ হওয়ার পর অনেকেই নিচে নেমে দীর্ঘশ্বাস ছাড়েন। আর কে টাওয়ারের সামনের সড়কটি হাতিরপুল থেকে সোজা কারওয়ান বাজারে গিয়ে মিলেছে। ভবনটির সামনে দিয়েই বাংলামোটর যাওয়া-আসার সড়ক। ফায়ার সার্ভিসের পানিতে গোলচত্বরে পানি জমে যায়। এর মধ্যে দাঁড়িয়েই উৎসুক জনতা ছবি তুলছেন, ভবনটির দিকে তাকিয়ে আছেন। আশপাশের প্রায় প্রতিটি ভবনের ছাদে উঠতে দেখা গেছে উৎসুক বাসিন্দাদের। এসময় উৎসুক জনতার মধ্যে একজন বলেন, বাচ্চাদের প্লাস্টিকের খেলনা না থাকলে আগুন এতো ছড়াত না। জানতে চাইলে ওই ব্যক্তি নিজেকে কাভার্ডভ্যান চালক বলে পরিচয় দেন। তিনি জানান, কাভার্ডভ্যানে করে তিনি অনেকবার ৭ম তলায় মালামাল এনেছেন। আবার গোডাউন থেকে অন্যত্রও নিয়েছেন। ৭ম তলায় প্লাস্টিকের মালামালে ভরপুর দেখেছেন। আগুন নেভানোর কাজে অংশ নেয়া একজন ফায়ার কর্মী বলেন, ভবনটির চারদিকে কাঁচ রয়েছে। কোথাও দিয়ে ধোঁয়া বের হতে পারছিল না। তারাও ধোঁয়ার কারণে ভেতরে ঢুকতে পারছিলেন না। এর কারণে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে বেশ বেগ পেতে হয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের সার্ভিসের উপ-পরিচালক দেবাশীষ বর্ধমান জানান, আগুনের খবর পাওয়ার পরপরই তারা ঘটনাস্থলে আসেন। ভেতরে প্লাস্টিকের মালামাল থাকায় আর ধোঁয়ার কারণে একটু বেগ পেতে হয়েছে। তবে তারা আহত কিংবা দগ্ধ অবস্থায় কাউকে পাননি। তিনি বলেন, ৭ম তলায় অনলাইনে ব্লেন্ডার মেশিন বিক্রি করত। ব্লেন্ডার মেশিন চেক করার সময় স্পার্ক করে আগুনের ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে আমরা জানতে পেরেছি। তদন্তের পর বিস্তারিত জানা যাবে। দগ্ধদের বিষয়ে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন ডাঃ এসএম আইউব হোসেন জানান, বাংলামোটরে অগ্নিকা-ের ঘটনায় দগ্ধ তিন জন এসেছেন। তাদের মধ্যে ৩৪ শতাংশ বার্ন হওয়ায় মামুনকে ভর্তি রাখা হয়েছে। বাকি দু’জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। এদিকে অগ্নিকা-ের ফলে ব্যস্ততম এই সড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। বাংলামোটর সিগন্যাল দিয়ে আর কে টাওয়ারের দিক যাওয়া ও আসার রাস্তা পুলিশ বন্ধ করে রাখে। তবে ফায়ার সার্ভিস ছাড়াও মিডিয়ার ও জরুরী গাড়ি ঢুকতে দেয়া হয়। অপরদিকে হাতিরপুল থেকে কাওরান বাজার ও কাওরান বাজার থেকে হাতিরপুল যাওয়ার রাস্তাও বন্ধ রাখা হয়। ফলে মগবাজার থেকে বাংলামোটর যাওয়া ও আসার, কাওরান বাজার থেকে শাহবাগ যাওয়ার ও আসার রাস্তায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। ফলে অনেক যাত্রীকে গাড়ি থেকে নেম পায়ে হেঁটে গন্তব্যে যেতেও দেখা গেছে। বেলা আড়াইটার দিকে আগুন পুরোপুরি নির্বাপণ হওয়ার পর ওইসব এলাকার যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:



































শীর্ষ সংবাদ:
বেনাপোল সীমান্তে সচল পিস্তলসহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী গ্রেফতার নির্মাণসামগ্রীর দাম চড়া, উন্নয়ন প্রকল্পে ধীরগতি কলম্বোতে কারফিউ জারি টিকে থাকার লড়াইয়ে ছক্কা হাকাতে পারবেন ইমরান খান? করোনায় আজও মৃত্যুশূন্য দেশ, শনাক্ত কমেছে ‘ততক্ষণ খেলব যতক্ষণ না আমার চেয়ে ভালো কাউকে দেখব’ এবার ইয়েমেনে পাল্টা হামলা চালাল সৌদি জোট স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালিতে যুবলীগ নেতার মৃত্যু সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র রপ্তানি করেছে মোদি সরকার বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দেওয়া নিয়ে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, এলাকা রণক্ষেত্র ইউক্রেনকে বিপুল ক্ষেপণাস্ত্র ও মেশিনগান দিয়েছে জার্মানি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে নারীকে ধর্ষণ, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩ ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের ‘লাল-সবুজের পতাকা বিশ্বজুড়ে আনবে একতা‘-শীর্ষক সভা বঙ্গবন্ধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নওগাঁর নওহাঁটায় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন । ভূরুঙ্গামারীতে ব্যাপরোয়া অটোরিকশা কেরে নিল শিশুর ফাহিম এর প্রাণ ভূরুঙ্গামারী কিশোর গ‍্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আহত যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ৬ তম রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ক্যাম্পেইন বেনাপোলে পৃথক অভিযানে ৫২ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক-২ বেনাপোল স্থলপথে স্টুডেন্ট ভিসায় বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমন নিষেধ গেরিলা যোদ্ধা অপূর্ব