‘বাংলাদেশ-ভারতই দক্ষিণ এশিয়ার ভবিষ্যৎ’ - বর্ণমালা টেলিভিশন

বাংলাদেশ ও ভারত সঙ্গে অংশীদারিত্বকে অত্যন্ত মূল্যায়ন করে এবং এই দুটি দেশই মূলত দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের ভবিষ্যৎ প্রবৃদ্ধি ও সমৃদ্ধি চালাবে। স্থানীয় সময় সোমবার (৬ ডিসেম্বর) ‘মৈত্রী দিবস (বন্ধুত্ব দিবস)’ উদযাপনের জন্য ওয়াশিংটন ডিসিতে বাংলাদেশ দূতাবাসের সঙ্গে যৌথভাবে বাংলাদেশ দূতাবাস আয়োজিত একটি সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মার্কিন সরকারের প্রতিনিধি ডেপুটি অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি অব স্টেট অ্যাম্বাসেডর কেলি কেইডারলিং এ মন্তব্য করেন।

রাষ্ট্রদূত কেইডারলিং বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে স্থায়ী বন্ধুত্ব পর্যবেক্ষণ করে এবং পরিবর্তনশীল ভূ-রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে এ অঞ্চলে শক্তি ও স্থিতিশীলতার উৎস হিসেবে রয়ে গেছে।

বাংলাদেশ ও ভারত সরকারের সম্মতি অনুসারে ১৮টি বিদেশি রাজধানীতে ঐতিহাসিক ‘মৈত্রী দিবস’-এর যৌথ স্মরণের অংশ হিসেবে সংবর্ধনার আয়োজন

করা হয়। অনুষ্ঠানে হোয়াইট হাউসের ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের সিনিয়র ডিরেক্টর মিস সুমনা গুহ, ইউএস ফরেন সার্ভিস অ্যাম্বাসেডরের ডিরেক্টর জেনারেল (মনোনীত) মার্সিয়া বার্নিকাট এবং ইউএস-বাংলাদেশ বিজনেস কাউন্সিলের প্রেসিডেন্টসহ বেশ কয়েকজন উচ্চপদস্থ মার্কিন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

পাশাপাশি মার্কিন-ভারত বিজনেস কাউন্সিল মিসেস নিশা বিসওয়ালসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। মার্কিন সরকার ও চেম্বার থেকে আমন্ত্রিত অতিথি, কূটনীতিক, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও থিঙ্ক ট্যাঙ্কের প্রতিনিধি, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশি ও ভারতীয় প্রবাসী সদস্যরা এবং উভয় দূতাবাসের কর্মকর্তারাও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশ ও ভারতের শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ‘এক মিনিট নীরবতা’ পালনের মধ্য দিয়ে সংবর্ধনার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। স্বাগত বক্তব্যে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম সহিদুল ইসলাম স্বাধীনতার লড়াইয়ে

সমগ্র জাতিকে ঐক্যবদ্ধ ও সংঘবদ্ধ করার জন্য তাঁর অটুট নেতৃত্বের জন্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ভারতীয় রাষ্ট্রদূত তারাজিৎ সিং সান্ধু একটি ভিডিও বার্তায় বলেছেন যে, ভারত এবং বাংলাদেশ আজ ব্যাপক সম্পর্ক ভাগ করে; যা মুক্তিযুদ্ধের পর থেকে দুই দেশের মধ্যে গভীর বন্ধুত্বের উৎস। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘অনুপ্রেরণাদায়ী নেতৃত্ব’ এবং স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ে তার নিরলস প্রচেষ্টার কথা স্মরণ করেন।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের পর ছিল বাংলাদেশি ও ভারতীয় শিল্পীদের সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কের ৫০ বছরের ওপর একটি তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে আমন্ত্রিত অতিথিদের ঐতিহ্যবাহী বাংলাদেশি ও ভারতীয় খাবার

পরিবেশন করা হয়।

বাংলাদেশ ও ভারত সঙ্গে অংশীদারিত্বকে অত্যন্ত মূল্যায়ন করে এবং এই দুটি দেশই মূলত দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের ভবিষ্যৎ প্রবৃদ্ধি ও সমৃদ্ধি চালাবে। স্থানীয় সময় সোমবার (৬ ডিসেম্বর) ‘মৈত্রী দিবস (বন্ধুত্ব দিবস)’ উদযাপনের জন্য ওয়াশিংটন ডিসিতে বাংলাদেশ দূতাবাসের সঙ্গে যৌথভাবে বাংলাদেশ দূতাবাস আয়োজিত একটি সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মার্কিন সরকারের প্রতিনিধি ডেপুটি অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি অব স্টেট অ্যাম্বাসেডর কেলি কেইডারলিং এ মন্তব্য করেন।

রাষ্ট্রদূত কেইডারলিং বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে স্থায়ী বন্ধুত্ব পর্যবেক্ষণ করে এবং পরিবর্তনশীল ভূ-রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে এ অঞ্চলে শক্তি ও স্থিতিশীলতার উৎস হিসেবে রয়ে গেছে।

বাংলাদেশ ও ভারত সরকারের সম্মতি অনুসারে ১৮টি বিদেশি রাজধানীতে ঐতিহাসিক ‘মৈত্রী দিবস’-এর যৌথ স্মরণের অংশ হিসেবে সংবর্ধনার আয়োজন

করা হয়। অনুষ্ঠানে হোয়াইট হাউসের ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের সিনিয়র ডিরেক্টর মিস সুমনা গুহ, ইউএস ফরেন সার্ভিস অ্যাম্বাসেডরের ডিরেক্টর জেনারেল (মনোনীত) মার্সিয়া বার্নিকাট এবং ইউএস-বাংলাদেশ বিজনেস কাউন্সিলের প্রেসিডেন্টসহ বেশ কয়েকজন উচ্চপদস্থ মার্কিন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

পাশাপাশি মার্কিন-ভারত বিজনেস কাউন্সিল মিসেস নিশা বিসওয়ালসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। মার্কিন সরকার ও চেম্বার থেকে আমন্ত্রিত অতিথি, কূটনীতিক, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও থিঙ্ক ট্যাঙ্কের প্রতিনিধি, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশি ও ভারতীয় প্রবাসী সদস্যরা এবং উভয় দূতাবাসের কর্মকর্তারাও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশ ও ভারতের শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ‘এক মিনিট নীরবতা’ পালনের মধ্য দিয়ে সংবর্ধনার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। স্বাগত বক্তব্যে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম সহিদুল ইসলাম স্বাধীনতার লড়াইয়ে

সমগ্র জাতিকে ঐক্যবদ্ধ ও সংঘবদ্ধ করার জন্য তাঁর অটুট নেতৃত্বের জন্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ভারতীয় রাষ্ট্রদূত তারাজিৎ সিং সান্ধু একটি ভিডিও বার্তায় বলেছেন যে, ভারত এবং বাংলাদেশ আজ ব্যাপক সম্পর্ক ভাগ করে; যা মুক্তিযুদ্ধের পর থেকে দুই দেশের মধ্যে গভীর বন্ধুত্বের উৎস। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘অনুপ্রেরণাদায়ী নেতৃত্ব’ এবং স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ে তার নিরলস প্রচেষ্টার কথা স্মরণ করেন।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের পর ছিল বাংলাদেশি ও ভারতীয় শিল্পীদের সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কের ৫০ বছরের ওপর একটি তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে আমন্ত্রিত অতিথিদের ঐতিহ্যবাহী বাংলাদেশি ও ভারতীয় খাবার

পরিবেশন করা হয়।

নিউজ ডেক্স
আপডেটঃ ৯ ডিসেম্বর, ২০২১
৪:৩১ অপরাহ্ণ
71 ভিউ

‘বাংলাদেশ-ভারতই দক্ষিণ এশিয়ার ভবিষ্যৎ’

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ৯ ডিসেম্বর, ২০২১ | ৪:৩১ 71 ভিউ
বাংলাদেশ ও ভারত সঙ্গে অংশীদারিত্বকে অত্যন্ত মূল্যায়ন করে এবং এই দুটি দেশই মূলত দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের ভবিষ্যৎ প্রবৃদ্ধি ও সমৃদ্ধি চালাবে। স্থানীয় সময় সোমবার (৬ ডিসেম্বর) 'মৈত্রী দিবস (বন্ধুত্ব দিবস)' উদযাপনের জন্য ওয়াশিংটন ডিসিতে বাংলাদেশ দূতাবাসের সঙ্গে যৌথভাবে বাংলাদেশ দূতাবাস আয়োজিত একটি সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মার্কিন সরকারের প্রতিনিধি ডেপুটি অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি অব স্টেট অ্যাম্বাসেডর কেলি কেইডারলিং এ মন্তব্য করেন। রাষ্ট্রদূত কেইডারলিং বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে স্থায়ী বন্ধুত্ব পর্যবেক্ষণ করে এবং পরিবর্তনশীল ভূ-রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে এ অঞ্চলে শক্তি ও স্থিতিশীলতার উৎস হিসেবে রয়ে গেছে। বাংলাদেশ ও ভারত সরকারের সম্মতি অনুসারে ১৮টি বিদেশি রাজধানীতে ঐতিহাসিক ‘মৈত্রী দিবস’-এর যৌথ স্মরণের অংশ হিসেবে সংবর্ধনার

আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে হোয়াইট হাউসের ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের সিনিয়র ডিরেক্টর মিস সুমনা গুহ, ইউএস ফরেন সার্ভিস অ্যাম্বাসেডরের ডিরেক্টর জেনারেল (মনোনীত) মার্সিয়া বার্নিকাট এবং ইউএস-বাংলাদেশ বিজনেস কাউন্সিলের প্রেসিডেন্টসহ বেশ কয়েকজন উচ্চপদস্থ মার্কিন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। পাশাপাশি মার্কিন-ভারত বিজনেস কাউন্সিল মিসেস নিশা বিসওয়ালসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। মার্কিন সরকার ও চেম্বার থেকে আমন্ত্রিত অতিথি, কূটনীতিক, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও থিঙ্ক ট্যাঙ্কের প্রতিনিধি, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশি ও ভারতীয় প্রবাসী সদস্যরা এবং উভয় দূতাবাসের কর্মকর্তারাও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশ ও ভারতের শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ‘এক মিনিট নীরবতা’ পালনের মধ্য দিয়ে সংবর্ধনার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। স্বাগত বক্তব্যে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম সহিদুল ইসলাম স্বাধীনতার

লড়াইয়ে সমগ্র জাতিকে ঐক্যবদ্ধ ও সংঘবদ্ধ করার জন্য তাঁর অটুট নেতৃত্বের জন্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ভারতীয় রাষ্ট্রদূত তারাজিৎ সিং সান্ধু একটি ভিডিও বার্তায় বলেছেন যে, ভারত এবং বাংলাদেশ আজ ব্যাপক সম্পর্ক ভাগ করে; যা মুক্তিযুদ্ধের পর থেকে দুই দেশের মধ্যে গভীর বন্ধুত্বের উৎস। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘অনুপ্রেরণাদায়ী নেতৃত্ব’ এবং স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ে তার নিরলস প্রচেষ্টার কথা স্মরণ করেন। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের পর ছিল বাংলাদেশি ও ভারতীয় শিল্পীদের সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কের ৫০ বছরের ওপর একটি তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে আমন্ত্রিত অতিথিদের ঐতিহ্যবাহী বাংলাদেশি ও ভারতীয়

খাবার পরিবেশন করা হয়।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


































শীর্ষ সংবাদ:
নিয়োগে দুর্নীতি: জীবন বীমার এমডির বিরুদ্ধে দুদকের মামলা মিহির ঘোষসহ নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবীতে গাইবান্ধায় সিপিবির বিক্ষোভ গাইবান্ধায় সেনাবাহিনীর ভূয়া ক্যাপ্টেন গ্রেফতার জগন্নাথপুরে সড়ক নির্মানের অভিযোগ এক ঠিকাদারের বিরুদ্ধে তারাকান্দায় অসহায় ও দুস্থদের মাঝে ছাত্রদলের খাবার বিতরণ দেবহাটায় অস্ত্র-গুলি ও ইয়াবা উদ্ধার আটক -১ রামগড়ে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বাগমারায় ভেদুর মোড় হতে নরদাশ পর্যন্ত পাকা রাস্তার শুভ উদ্বোধন সরকারি বিধিনিষেধ না মানায় শার্শায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা আদায় মধুখালীতে তিন মাসে ৪৩ টি গরু চুরি গাইবান্ধায় বঙ্গবন্ধু জেলা ভলিবল প্রতিযোগিতার উদ্বোধন গাইবান্ধায় শীতবস্ত্র বিতরণ রাজশাহীতে পুত্রের হাতে পিতা খুন বাগমারায় সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার রামগড়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার শীতবস্ত্র বিতরণ করেন ইউএনও ভাঃ উম্মে হাবিবা মজুমদার জগন্নাথপুরে জুয়ার আসরে পুলিশ দেখে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ এক ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সিপিবি নেতা মিহির ঘোষসহ ৬ জন কারাগারে পিআইও’র মানহানির মামলায় গাইবান্ধার ৪ সাংবাদিকসহ ৫ জনের জামিন গাইবান্ধায় প্রগতিশীল ছাত্র জোটের মানববন্ধন চাঁপাইনবাবগঞ্জে সোনালী ব্যাংক লি. গোমস্তাপুর শাখায় শীতবস্ত্র বিতরণ