বাঁ হাতের চিকিৎসা করাতে কাটা লাগল ডান হাত! – বর্ণমালা টেলিভিশন

বাঁ হাতের চিকিৎসা করাতে কাটা লাগল ডান হাত!

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ২২ ডিসেম্বর, ২০২১ | ৯:৪৯ 69 ভিউ
বাম হাত ভেঙে যাওযায় চিকিৎসা করাতে গিয়েছিলেন যুবক। কিন্তু, স্বপ্নেও হয়তো তিনি ভাবেননি, এর জন্য তার ডান হাত কাটা লাগবে। পশ্চিম মেদিনীপুরের খড়্গপুরে এই ঘটনা ঘটেছে। ভারতের স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, খড়গপুরের বাসিন্দা হতভাগা এই যুবকের নাম সুভাষ দাস। পেশায় তিনি একজন রেলকর্মী। সুভাষ ও তার পরিবার সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালে একটি দুর্ঘটনায় সুভাষের বাঁ হাতের হাড় ভেঙে যায়। সেই সময় তিনি বিশিষ্ট অস্থি বিশেষজ্ঞ আব্দুল লতিফের কাছে চিকিৎসা করিয়েছিলেন। ওই সময় তার হাতে লোহার পাত লাগিয়ে হাড় জুড়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। চিকিৎসক বলেছিলেন, পরের বছর অস্ত্রোপচার করে ওই ধাতব পাতগুলি বের করে দেওয়া হবে। কিন্তু ২০১৩ সালে সুভাষের মা ও বাবা উভয়ের মৃত্যু হয়। তাই অস্ত্রোপচার করাতে পারেননি। তারপর ২০১৬ সালে রেলে চাকরি পান সুভাষ। নতুন চাকরি পেয়ে অস্ত্রোপচারের জন্য ছুটি আবেদন করা ঠিক হবে না ভেবে আর অস্ত্রোপচার করেননি তিনি। গত ৬ ডিসেম্বর সুভাষ হাতের পুরোনো সমস্যার জন্য চিকিৎসক আবদুল লতিফের দ্বারস্থ হন। ওইদিন রাতে এক বেসরকারি হাসপাতালে অস্থি বিশেষজ্ঞ আবদুল লতিফ বাঁ হাতের প্লেট বের করে দেন। আ্যন্টিবায়োটিক ও অন্য প্রয়োজনে একটি চ্যানেল করা হয় তার ডান হাতে। সুভাষের অভিযোগ, এই চ্যানেল করার ঘণ্টা কয়েক পর থেকে যন্ত্রণা শুরু হয়। অভিযোগ, সে সময় আবদুল লতিফকে ডাকা হলেও তিনি আসেননি। রাত ১১টা নাগাদ যখন চিকিৎসক পৌঁছেন ততক্ষণে হাতের অবস্থা ভয়ঙ্কর। তিনি রোগীকে দেখার পরেই কলকাতার এসএসকেএম- হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দিয়ে একটি রেফার চিঠি লিখে দেন। আবদুল লতিফের কথা মতো সুভাষ দাসকে এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে রওনা হয় তার পরিবার। কিন্তু সেখান থেকে একপ্রকার বিনা চিকিৎসায় ফিরিয়ে দেওয়া হয়। তারপর তাকে আরও একটি হাসপাতাল ঘুরিয়ে রেলের সঙ্গে সংযুক্ত একটি বেসরকারি হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসকরা পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝে ডান হাতের কনুই থেকে বাদ দেন। দু'দিন আগে তাকে খড়গপুর শহরের নিমপুরা এলাকার বাড়িতে নিয়ে আসা হয়েছে। এই প্রসঙ্গে চিকিৎসক আবদুল লতিফ বলেন, ‘অস্থি রোগ বিশেষজ্ঞ হিসেবে আমি অস্ত্রোপচার করেছি এবং যে হাতে অস্ত্রোপচার করেছি তা সফল। বিষয়টা হয়েছে অন্য একটি হাতে যেখানে একজন নার্স ইঞ্জেকশন দিয়েছেন। যে কোনো ভাবে হোক ওই হাতের ধমনী ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এই অবস্থায় আমার কিছুই করার ছিল না তাই আমি পরামর্শ দিয়েছি কলকাতায় নিয়ে যাওয়ার। তিনি বলেন, একজন চিকিৎসক হিসেবে আমার খুবই খারাপ লাগছে। কেননা অস্ত্রোপচারটা আমি করেছি। কিন্তু আবারও বলছি আমি যে কাজ করেছি সেখানে কোনও সমস্যা হয়নি।’ তবে এ নিয়ে বেসরকারি হাসপাতালের কর্তৃপক্ষ কোনো মন্তব্য করতে চায়নি। স্থানীয় সংসদ সদস্য তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক মানস ভুঁইয়া বলেছেন, ঘটনাটি প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে খতিয়ে দেখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:



































শীর্ষ সংবাদ:
বেনাপোল সীমান্তে সচল পিস্তলসহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী গ্রেফতার নির্মাণসামগ্রীর দাম চড়া, উন্নয়ন প্রকল্পে ধীরগতি কলম্বোতে কারফিউ জারি টিকে থাকার লড়াইয়ে ছক্কা হাকাতে পারবেন ইমরান খান? করোনায় আজও মৃত্যুশূন্য দেশ, শনাক্ত কমেছে ‘ততক্ষণ খেলব যতক্ষণ না আমার চেয়ে ভালো কাউকে দেখব’ এবার ইয়েমেনে পাল্টা হামলা চালাল সৌদি জোট স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালিতে যুবলীগ নেতার মৃত্যু সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র রপ্তানি করেছে মোদি সরকার বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দেওয়া নিয়ে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, এলাকা রণক্ষেত্র ইউক্রেনকে বিপুল ক্ষেপণাস্ত্র ও মেশিনগান দিয়েছে জার্মানি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে নারীকে ধর্ষণ, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩ ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের ‘লাল-সবুজের পতাকা বিশ্বজুড়ে আনবে একতা‘-শীর্ষক সভা বঙ্গবন্ধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নওগাঁর নওহাঁটায় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন । ভূরুঙ্গামারীতে ব্যাপরোয়া অটোরিকশা কেরে নিল শিশুর ফাহিম এর প্রাণ ভূরুঙ্গামারী কিশোর গ‍্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আহত যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ৬ তম রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ক্যাম্পেইন বেনাপোলে পৃথক অভিযানে ৫২ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক-২ বেনাপোল স্থলপথে স্টুডেন্ট ভিসায় বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমন নিষেধ গেরিলা যোদ্ধা অপূর্ব