পোষা প্রাণী নিষিদ্ধ করতে আইন পাশ হচ্ছে ইরানে! - বর্ণমালা টেলিভিশন

পোষা প্রাণী নিষিদ্ধ করে আইন পাশ করতে যাচ্ছে রক্ষণশীল দেশ ইরান। প্রস্তাবিত আইনের পক্ষে ইরানের পার্লামেন্টের এক চতুর্থাংশ সংসদ সদস্য ভোট দিয়েছেন বলে স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে গালফ নিউজ খবর প্রকাশ করেছে।

প্রস্তাবিত আইনে একই ছাদের নিচে প্রাণীর সঙ্গে মানুষের বসবাস করাকে ‘ধ্বংসাত্মক সামাজিক সমস্যা’ বলে নিন্দা জানানো হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, এই চর্চা ‘ধীরে ধীরে ইরানি নাগরিকদের ইসলামী জীবনধারাকে পরিবর্তন করছে।’

প্রস্তাবিত আইন পাশ হলে বন্য, হিংস্র, ক্ষতিকর এবং বিপজ্জনক প্রাণী আদমানি, পালন, প্রজনন, কেনাবেচা, পরিবহণ, যানবাহনে তোলা, হাঁটার সময় সঙ্গে রাখা কিংবা বাড়িতে রাখা নিষিদ্ধ করা হবে।

নিষিদ্ধ প্রাণীর তালিকায় রয়েছে, কুমির, কচ্ছপ, সাপ, টিকটিকি, বেড়াল, ইঁদুর, খরগোশ,

কুকুর এবং বানরসহ `অপরিষ্কার’ প্রাণী।

এমনিতেই পরমাণু কর্মসূচি ইস্যুতে মার্কিন নিষেধাজ্ঞারা কারণে ইরানে অর্থনৈতিক মন্দাবস্থা চলছে। এরই মধ্যে প্রস্তাবিত এই আইন নিয়ে সংবাদমাধ্যমে সমালোচনা, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উপহাস এবং রাজধানীর বাসিন্দাদের মধ্যে ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে।

প্রস্তাবিত এই আইনের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে প্রাণীপ্রেমী মোস্তফা বলেন, আমার বেড়াল বিপজ্জনক নয়। ২৫ বছর বয়সী এই যুবকের তেহরানের উপকণ্ঠে এস্কান্দারি স্ট্রিটে একটি প্রাণী বেচাকেনার দোকান আছে।

মাস খানেক আগে উত্থাপিত আইনের ব্যাপারে তিনি বলেন, কুমির হয়তো বিপজ্জনক হতে পারে কিন্তু খরগোশ, কুকুর আর বেড়াল কিভাবে বিপজ্জনক হয়?
এ ব্যাপারে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক অভিনেত্রী জানান, তিনি পার্লামেন্টের বাইরে প্রস্তাবিত আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করতে

চেয়েছিলেন। কিন্তু তার ওপর এ নিয়ে চাপ আসায় সেই পরিকল্পনা বাতিল করে দেন তিনি।

এদিকে তীব্র জনরোষের মুখেও কয়েকজন সংসদ সদস্য বিলটি পাশের ব্যাপারে বদ্ধপরিকর বলে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

পোষা প্রাণী নিষিদ্ধ করে আইন পাশ করতে যাচ্ছে রক্ষণশীল দেশ ইরান। প্রস্তাবিত আইনের পক্ষে ইরানের পার্লামেন্টের এক চতুর্থাংশ সংসদ সদস্য ভোট দিয়েছেন বলে স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে গালফ নিউজ খবর প্রকাশ করেছে।

প্রস্তাবিত আইনে একই ছাদের নিচে প্রাণীর সঙ্গে মানুষের বসবাস করাকে ‘ধ্বংসাত্মক সামাজিক সমস্যা’ বলে নিন্দা জানানো হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, এই চর্চা ‘ধীরে ধীরে ইরানি নাগরিকদের ইসলামী জীবনধারাকে পরিবর্তন করছে।’

প্রস্তাবিত আইন পাশ হলে বন্য, হিংস্র, ক্ষতিকর এবং বিপজ্জনক প্রাণী আদমানি, পালন, প্রজনন, কেনাবেচা, পরিবহণ, যানবাহনে তোলা, হাঁটার সময় সঙ্গে রাখা কিংবা বাড়িতে রাখা নিষিদ্ধ করা হবে।

নিষিদ্ধ প্রাণীর তালিকায় রয়েছে, কুমির, কচ্ছপ, সাপ, টিকটিকি, বেড়াল, ইঁদুর, খরগোশ,

কুকুর এবং বানরসহ `অপরিষ্কার’ প্রাণী।

এমনিতেই পরমাণু কর্মসূচি ইস্যুতে মার্কিন নিষেধাজ্ঞারা কারণে ইরানে অর্থনৈতিক মন্দাবস্থা চলছে। এরই মধ্যে প্রস্তাবিত এই আইন নিয়ে সংবাদমাধ্যমে সমালোচনা, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উপহাস এবং রাজধানীর বাসিন্দাদের মধ্যে ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে।

প্রস্তাবিত এই আইনের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে প্রাণীপ্রেমী মোস্তফা বলেন, আমার বেড়াল বিপজ্জনক নয়। ২৫ বছর বয়সী এই যুবকের তেহরানের উপকণ্ঠে এস্কান্দারি স্ট্রিটে একটি প্রাণী বেচাকেনার দোকান আছে।

মাস খানেক আগে উত্থাপিত আইনের ব্যাপারে তিনি বলেন, কুমির হয়তো বিপজ্জনক হতে পারে কিন্তু খরগোশ, কুকুর আর বেড়াল কিভাবে বিপজ্জনক হয়?
এ ব্যাপারে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক অভিনেত্রী জানান, তিনি পার্লামেন্টের বাইরে প্রস্তাবিত আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করতে

চেয়েছিলেন। কিন্তু তার ওপর এ নিয়ে চাপ আসায় সেই পরিকল্পনা বাতিল করে দেন তিনি।

এদিকে তীব্র জনরোষের মুখেও কয়েকজন সংসদ সদস্য বিলটি পাশের ব্যাপারে বদ্ধপরিকর বলে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

পোষা প্রাণী নিষিদ্ধ করতে আইন পাশ হচ্ছে ইরানে!

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ১৩ ডিসেম্বর, ২০২১ | ৯:১৯ 64 ভিউ
পোষা প্রাণী নিষিদ্ধ করে আইন পাশ করতে যাচ্ছে রক্ষণশীল দেশ ইরান। প্রস্তাবিত আইনের পক্ষে ইরানের পার্লামেন্টের এক চতুর্থাংশ সংসদ সদস্য ভোট দিয়েছেন বলে স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে গালফ নিউজ খবর প্রকাশ করেছে। প্রস্তাবিত আইনে একই ছাদের নিচে প্রাণীর সঙ্গে মানুষের বসবাস করাকে ‘ধ্বংসাত্মক সামাজিক সমস্যা’ বলে নিন্দা জানানো হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, এই চর্চা ‘ধীরে ধীরে ইরানি নাগরিকদের ইসলামী জীবনধারাকে পরিবর্তন করছে।’ প্রস্তাবিত আইন পাশ হলে বন্য, হিংস্র, ক্ষতিকর এবং বিপজ্জনক প্রাণী আদমানি, পালন, প্রজনন, কেনাবেচা, পরিবহণ, যানবাহনে তোলা, হাঁটার সময় সঙ্গে রাখা কিংবা বাড়িতে রাখা নিষিদ্ধ করা হবে। নিষিদ্ধ প্রাণীর তালিকায় রয়েছে, কুমির, কচ্ছপ, সাপ, টিকটিকি, বেড়াল, ইঁদুর, খরগোশ,

কুকুর এবং বানরসহ `অপরিষ্কার' প্রাণী। এমনিতেই পরমাণু কর্মসূচি ইস্যুতে মার্কিন নিষেধাজ্ঞারা কারণে ইরানে অর্থনৈতিক মন্দাবস্থা চলছে। এরই মধ্যে প্রস্তাবিত এই আইন নিয়ে সংবাদমাধ্যমে সমালোচনা, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উপহাস এবং রাজধানীর বাসিন্দাদের মধ্যে ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে। প্রস্তাবিত এই আইনের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে প্রাণীপ্রেমী মোস্তফা বলেন, আমার বেড়াল বিপজ্জনক নয়। ২৫ বছর বয়সী এই যুবকের তেহরানের উপকণ্ঠে এস্কান্দারি স্ট্রিটে একটি প্রাণী বেচাকেনার দোকান আছে। মাস খানেক আগে উত্থাপিত আইনের ব্যাপারে তিনি বলেন, কুমির হয়তো বিপজ্জনক হতে পারে কিন্তু খরগোশ, কুকুর আর বেড়াল কিভাবে বিপজ্জনক হয়? এ ব্যাপারে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক অভিনেত্রী জানান, তিনি পার্লামেন্টের বাইরে প্রস্তাবিত আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করতে

চেয়েছিলেন। কিন্তু তার ওপর এ নিয়ে চাপ আসায় সেই পরিকল্পনা বাতিল করে দেন তিনি। এদিকে তীব্র জনরোষের মুখেও কয়েকজন সংসদ সদস্য বিলটি পাশের ব্যাপারে বদ্ধপরিকর বলে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


































শীর্ষ সংবাদ:
নিয়োগে দুর্নীতি: জীবন বীমার এমডির বিরুদ্ধে দুদকের মামলা মিহির ঘোষসহ নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবীতে গাইবান্ধায় সিপিবির বিক্ষোভ গাইবান্ধায় সেনাবাহিনীর ভূয়া ক্যাপ্টেন গ্রেফতার জগন্নাথপুরে সড়ক নির্মানের অভিযোগ এক ঠিকাদারের বিরুদ্ধে তারাকান্দায় অসহায় ও দুস্থদের মাঝে ছাত্রদলের খাবার বিতরণ দেবহাটায় অস্ত্র-গুলি ও ইয়াবা উদ্ধার আটক -১ রামগড়ে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বাগমারায় ভেদুর মোড় হতে নরদাশ পর্যন্ত পাকা রাস্তার শুভ উদ্বোধন সরকারি বিধিনিষেধ না মানায় শার্শায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা আদায় মধুখালীতে তিন মাসে ৪৩ টি গরু চুরি গাইবান্ধায় বঙ্গবন্ধু জেলা ভলিবল প্রতিযোগিতার উদ্বোধন গাইবান্ধায় শীতবস্ত্র বিতরণ রাজশাহীতে পুত্রের হাতে পিতা খুন বাগমারায় সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার রামগড়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার শীতবস্ত্র বিতরণ করেন ইউএনও ভাঃ উম্মে হাবিবা মজুমদার জগন্নাথপুরে জুয়ার আসরে পুলিশ দেখে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ এক ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সিপিবি নেতা মিহির ঘোষসহ ৬ জন কারাগারে পিআইও’র মানহানির মামলায় গাইবান্ধার ৪ সাংবাদিকসহ ৫ জনের জামিন গাইবান্ধায় প্রগতিশীল ছাত্র জোটের মানববন্ধন চাঁপাইনবাবগঞ্জে সোনালী ব্যাংক লি. গোমস্তাপুর শাখায় শীতবস্ত্র বিতরণ