পাবজি খেলতে বাধা: পরিবারের সবাইকে গুলি করে হত্যা করল কিশোর – বর্ণমালা টেলিভিশন

পাবজি খেলতে বাধা: পরিবারের সবাইকে গুলি করে হত্যা করল কিশোর

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ৩০ জানুয়ারি, ২০২২ | ১০:১১ 48 ভিউ
অনলাইন গেমে আসক্তির জেরে আত্মহত্যা ও খুনের ঘটনা নতুন নয়। তবে পাবজি খেলতে বাধা দেওয়ায় পরিবারের সবাইকে গুলি করে হত্যার নজির বোধহয় নেই। পাকিস্তানের এক কিশোর (১৪) পরিবারের সবাইকে গুলি করে হত্যা করেছে। পাকিস্তানের সংবাদ মাধ্যম ডন এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে। পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশে এই ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ জানায়। ডনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কয়েকদিন আগে স্বাস্থ্যকর্মী নাহিদ মোবারক (৪৫), তার ছেলে তৈমুর (২২), ১৭ এবং ১১ বছরের দুই মেয়ের মৃতদেহ উদ্ধার হয়। বাড়ির মধ্যেই চারটি রক্তাক্ত দেহ পড়েছিল। তবে একই বাড়িতে থাকা ছোটছেলে অক্ষত ছিল। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতেই উঠে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। পুলিশের কাছে প্রথমে ছেলেটি জানায়, নিজের ঘরে সে ঘুমিয়ে ছিল। সকালে উঠে বাড়ির সবাইকে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়। কিন্তু কিশোরের কথাবার্তায় অসঙ্গতি খুঁজে পায় পুলিশ। পরে পুলিশের জেরার মুখে মা ও ভাইবোনদের গুলি করে হত্যার কথা স্বীকার করে সে। পুলিশকে ওই কিশোর জানায়, অনলাইনে পাবজি খেলায় আসক্ত ছিল সে। এই নিয়ে মা প্রায়ই তাকে বকাবকি করতেন। ওই দিনও মা তাকে এ নিয়ে ভীষণ বকাবকি করেন। ক্ষুব্ধ হয়ে প্রথমে মা ও পরে পরিবারের বাকিদের গুলি করে হত্যা করে সে। ডন জানায়, ঘটনার পরের দিন সকালে নিজেই প্রতিবেশীদের সবার মৃত্যুর কথা জানায় ওই কিশোর। প্রতিবেশীরাই পুলিশে খবর দেয়। এ ব্যাপারে পুলিশ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, পাবজি খেলায় আসক্ত ওই কিশোর স্বীকার করেছে যে গেমের প্রভাবে তার মা এবং ভাইবোনদের হত্যা করেছে। দিনের দীর্ঘ সময় অনলাইন গেম খেলার কারণে তার কিছু মানসিক সমস্যা সৃষ্টি হয়েছিল বলে বিবৃতিতে জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশ জানায়, নাহিদ একজন তালাকপ্রাপ্তা ছিলেন। তিনি প্রায়ই ছেলেটিকে পড়াশোনায় মনোযোগ না দেওয়ার জন্য এবং তার বেশিরভাগ সময় পাবজি খেলায় ব্যস্ত থাকার জন্য বকাবকি করতেন। পরিবারের সুরক্ষার জন্য ওই লাইসেন্স করা পিস্তলটি নিজের কাছে রেখেছিলেন নাহিদ। ওই কিশোর জানত পিস্তলটি কোথায় রাখা হয়। সবাইকে গুলি করে হত্যা করার পর পিস্তলটি ড্রেনে ফেলে দেয় ওই কিশোর। পিস্তলটি এখনো উদ্ধার করা হয়নি বলে বিবৃতিতে জানিয়েছে পুলিশ।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:



































শীর্ষ সংবাদ:
বেনাপোল সীমান্তে সচল পিস্তলসহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী গ্রেফতার নির্মাণসামগ্রীর দাম চড়া, উন্নয়ন প্রকল্পে ধীরগতি কলম্বোতে কারফিউ জারি টিকে থাকার লড়াইয়ে ছক্কা হাকাতে পারবেন ইমরান খান? করোনায় আজও মৃত্যুশূন্য দেশ, শনাক্ত কমেছে ‘ততক্ষণ খেলব যতক্ষণ না আমার চেয়ে ভালো কাউকে দেখব’ এবার ইয়েমেনে পাল্টা হামলা চালাল সৌদি জোট স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালিতে যুবলীগ নেতার মৃত্যু সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র রপ্তানি করেছে মোদি সরকার বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দেওয়া নিয়ে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, এলাকা রণক্ষেত্র ইউক্রেনকে বিপুল ক্ষেপণাস্ত্র ও মেশিনগান দিয়েছে জার্মানি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে নারীকে ধর্ষণ, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩ ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের ‘লাল-সবুজের পতাকা বিশ্বজুড়ে আনবে একতা‘-শীর্ষক সভা বঙ্গবন্ধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নওগাঁর নওহাঁটায় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন । ভূরুঙ্গামারীতে ব্যাপরোয়া অটোরিকশা কেরে নিল শিশুর ফাহিম এর প্রাণ ভূরুঙ্গামারী কিশোর গ‍্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আহত যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ৬ তম রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ক্যাম্পেইন বেনাপোলে পৃথক অভিযানে ৫২ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক-২ বেনাপোল স্থলপথে স্টুডেন্ট ভিসায় বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমন নিষেধ গেরিলা যোদ্ধা অপূর্ব