দ. এশিয়ার স্কুল পুরোপুরি খুলে দেওয়ার আহ্বান জানাল ইউনিসেফ - বর্ণমালা টেলিভিশন

করোনার কারণে দীর্ঘ সময় বন্ধ থাকায় ক্ষতির মুখে পড়েছে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর ৪০ কোটির বেশি শিশু। এই পরিস্থিতিতে ওই অঞ্চলের স্কুলগুলো পুরোপুরি খুলে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘের শিশু তহবিল ইউনিসেফ। দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ থাকার জের কয়েক বছর ধরে বয়ে বেড়াতে হতে পারে বলে ইউনিসেফের এক শীর্ঘ কর্মকর্তা সতর্ক করেছেন। বার্তা সংস্থা এএফপি শুক্রবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

জাতিসংঘের এই শিশু বিষয়ক সংস্থাটি জানায়, করোনার কারণে বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সময় স্কুল বন্ধ থাকার তালিকায় রয়েছে বাংলাদেশ। যেখানে দক্ষিণ এশিয়ার অন্য দেশগুলোতে ২০২০ সালের মার্চ থেকে চলতি বছরের আগস্ট পর্যন্ত গড়ে ৩১ দশমিক ৫ সপ্তাহ স্কুল বন্ধ ছিল, সেখানে বাংলাদেশের

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল প্রায় ১৮ মাস।

এ ব্যাপারে ইউনিসেফের দক্ষিণ এশিয়াবিষয়ক আঞ্চলিক পরিচালক জর্জ লারইয়া-আজি বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন ধরে এমন এক অঞ্চলে স্কুল বন্ধ রয়েছে, যেখানে দূর থেকে শিক্ষা গ্রহণের শক্তিশালী কোনো ব্যবস্থা নেই। সেখানে মানুষের হাতের নাগালের অনেকটাই বাইরে ইন্টারনেট ও প্রযুক্তিগত ডিভাইসগুলোও। ফলে সেখানে শিক্ষার বড় ঘাটতি দেখা যাচ্ছে। এর সবচেয়ে বড় ভুক্তভোগী হচ্ছেন দরিদ্র পরিবারের শিশু ও মেয়েশিশুরা। কারণ পুরুষরা প্রযুক্তি ব্যবহারে বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন।

এই পরিস্থিতিতে ক্লাসে শিক্ষার্থীদের সশরীর উপস্থিত থেকে পড়াশোনা চালু করার আহ্বান জন্য দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ইউনিসেফ। ক্লাসে শিক্ষার্থীদের পর্যাপ্ত উপস্থিতি নিশ্চিত করার পাশাপাশি তাদের

মধ্যে যোগাযোগ বাড়ানোর ওপরও জোর দিয়েছে জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক এই সংস্থাটি।

করোনার কারণে দীর্ঘ সময় বন্ধ থাকায় ক্ষতির মুখে পড়েছে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর ৪০ কোটির বেশি শিশু। এই পরিস্থিতিতে ওই অঞ্চলের স্কুলগুলো পুরোপুরি খুলে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘের শিশু তহবিল ইউনিসেফ। দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ থাকার জের কয়েক বছর ধরে বয়ে বেড়াতে হতে পারে বলে ইউনিসেফের এক শীর্ঘ কর্মকর্তা সতর্ক করেছেন। বার্তা সংস্থা এএফপি শুক্রবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

জাতিসংঘের এই শিশু বিষয়ক সংস্থাটি জানায়, করোনার কারণে বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সময় স্কুল বন্ধ থাকার তালিকায় রয়েছে বাংলাদেশ। যেখানে দক্ষিণ এশিয়ার অন্য দেশগুলোতে ২০২০ সালের মার্চ থেকে চলতি বছরের আগস্ট পর্যন্ত গড়ে ৩১ দশমিক ৫ সপ্তাহ স্কুল বন্ধ ছিল, সেখানে বাংলাদেশের

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল প্রায় ১৮ মাস।

এ ব্যাপারে ইউনিসেফের দক্ষিণ এশিয়াবিষয়ক আঞ্চলিক পরিচালক জর্জ লারইয়া-আজি বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন ধরে এমন এক অঞ্চলে স্কুল বন্ধ রয়েছে, যেখানে দূর থেকে শিক্ষা গ্রহণের শক্তিশালী কোনো ব্যবস্থা নেই। সেখানে মানুষের হাতের নাগালের অনেকটাই বাইরে ইন্টারনেট ও প্রযুক্তিগত ডিভাইসগুলোও। ফলে সেখানে শিক্ষার বড় ঘাটতি দেখা যাচ্ছে। এর সবচেয়ে বড় ভুক্তভোগী হচ্ছেন দরিদ্র পরিবারের শিশু ও মেয়েশিশুরা। কারণ পুরুষরা প্রযুক্তি ব্যবহারে বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন।

এই পরিস্থিতিতে ক্লাসে শিক্ষার্থীদের সশরীর উপস্থিত থেকে পড়াশোনা চালু করার আহ্বান জন্য দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ইউনিসেফ। ক্লাসে শিক্ষার্থীদের পর্যাপ্ত উপস্থিতি নিশ্চিত করার পাশাপাশি তাদের

মধ্যে যোগাযোগ বাড়ানোর ওপরও জোর দিয়েছে জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক এই সংস্থাটি।

দ. এশিয়ার স্কুল পুরোপুরি খুলে দেওয়ার আহ্বান জানাল ইউনিসেফ

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ১০ ডিসেম্বর, ২০২১ | ৮:৫১ 76 ভিউ
করোনার কারণে দীর্ঘ সময় বন্ধ থাকায় ক্ষতির মুখে পড়েছে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর ৪০ কোটির বেশি শিশু। এই পরিস্থিতিতে ওই অঞ্চলের স্কুলগুলো পুরোপুরি খুলে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘের শিশু তহবিল ইউনিসেফ। দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ থাকার জের কয়েক বছর ধরে বয়ে বেড়াতে হতে পারে বলে ইউনিসেফের এক শীর্ঘ কর্মকর্তা সতর্ক করেছেন। বার্তা সংস্থা এএফপি শুক্রবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। জাতিসংঘের এই শিশু বিষয়ক সংস্থাটি জানায়, করোনার কারণে বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সময় স্কুল বন্ধ থাকার তালিকায় রয়েছে বাংলাদেশ। যেখানে দক্ষিণ এশিয়ার অন্য দেশগুলোতে ২০২০ সালের মার্চ থেকে চলতি বছরের আগস্ট পর্যন্ত গড়ে ৩১ দশমিক ৫ সপ্তাহ স্কুল বন্ধ ছিল, সেখানে বাংলাদেশের

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল প্রায় ১৮ মাস। এ ব্যাপারে ইউনিসেফের দক্ষিণ এশিয়াবিষয়ক আঞ্চলিক পরিচালক জর্জ লারইয়া-আজি বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন ধরে এমন এক অঞ্চলে স্কুল বন্ধ রয়েছে, যেখানে দূর থেকে শিক্ষা গ্রহণের শক্তিশালী কোনো ব্যবস্থা নেই। সেখানে মানুষের হাতের নাগালের অনেকটাই বাইরে ইন্টারনেট ও প্রযুক্তিগত ডিভাইসগুলোও। ফলে সেখানে শিক্ষার বড় ঘাটতি দেখা যাচ্ছে। এর সবচেয়ে বড় ভুক্তভোগী হচ্ছেন দরিদ্র পরিবারের শিশু ও মেয়েশিশুরা। কারণ পুরুষরা প্রযুক্তি ব্যবহারে বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। এই পরিস্থিতিতে ক্লাসে শিক্ষার্থীদের সশরীর উপস্থিত থেকে পড়াশোনা চালু করার আহ্বান জন্য দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ইউনিসেফ। ক্লাসে শিক্ষার্থীদের পর্যাপ্ত উপস্থিতি নিশ্চিত করার পাশাপাশি তাদের

মধ্যে যোগাযোগ বাড়ানোর ওপরও জোর দিয়েছে জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক এই সংস্থাটি।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


































শীর্ষ সংবাদ:
নিয়োগে দুর্নীতি: জীবন বীমার এমডির বিরুদ্ধে দুদকের মামলা মিহির ঘোষসহ নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবীতে গাইবান্ধায় সিপিবির বিক্ষোভ গাইবান্ধায় সেনাবাহিনীর ভূয়া ক্যাপ্টেন গ্রেফতার জগন্নাথপুরে সড়ক নির্মানের অভিযোগ এক ঠিকাদারের বিরুদ্ধে তারাকান্দায় অসহায় ও দুস্থদের মাঝে ছাত্রদলের খাবার বিতরণ দেবহাটায় অস্ত্র-গুলি ও ইয়াবা উদ্ধার আটক -১ রামগড়ে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বাগমারায় ভেদুর মোড় হতে নরদাশ পর্যন্ত পাকা রাস্তার শুভ উদ্বোধন সরকারি বিধিনিষেধ না মানায় শার্শায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা আদায় মধুখালীতে তিন মাসে ৪৩ টি গরু চুরি গাইবান্ধায় বঙ্গবন্ধু জেলা ভলিবল প্রতিযোগিতার উদ্বোধন গাইবান্ধায় শীতবস্ত্র বিতরণ রাজশাহীতে পুত্রের হাতে পিতা খুন বাগমারায় সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার রামগড়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার শীতবস্ত্র বিতরণ করেন ইউএনও ভাঃ উম্মে হাবিবা মজুমদার জগন্নাথপুরে জুয়ার আসরে পুলিশ দেখে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ এক ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সিপিবি নেতা মিহির ঘোষসহ ৬ জন কারাগারে পিআইও’র মানহানির মামলায় গাইবান্ধার ৪ সাংবাদিকসহ ৫ জনের জামিন গাইবান্ধায় প্রগতিশীল ছাত্র জোটের মানববন্ধন চাঁপাইনবাবগঞ্জে সোনালী ব্যাংক লি. গোমস্তাপুর শাখায় শীতবস্ত্র বিতরণ