টানা ৩৪ ঘণ্টা লড়ে মৃত্যুর কাছে হেরে গেলেন ডাঃ সামিনা – বর্ণমালা টেলিভিশন

টানা ৩৪ ঘণ্টা লড়ে মৃত্যুর কাছে হেরে গেলেন ডাঃ সামিনা

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২২ | ৯:০৮ 58 ভিউ
টানা ৩৪ ঘণ্টা মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে হেরে গেলেন ডাঃ সামিনা। বৃহস্পতিবার সকালে লাইফ সাপোর্ট সরিয়ে নেয়ার পর কিছুক্ষণের মধ্যে নিভে যায় তার জীবনপ্রদীপ। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি রাতে চট্টগ্রাম মহানগরীর কাজির দেউড়ি এলাকায় দুর্ঘটনায় পতিত হয়েছিলেন তিনি। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বেঁচে থাকার ক্ষীণ সম্ভাবনা দেখছিলেন তার স্বজনরা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তিনি আর ফিরলেন না। চট্টগ্রামের আইসিইউ চিকিৎসক সামিনার জীবন নিভে গেল আইসিইউতেই। সিএনজিচালিত অটোরিক্সার ধাক্কায় গুরুতর আহত হয়ে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি হন ডাঃ সামিনা আক্তার। এই ঘটনায় সিএনজি চালককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ১৫ ফেব্রুয়ারি রাত ১০টার দিকে রিক্সাযোগে বাসায় ফিরছিলেন ডাঃ সামিনা আক্তার। কাজির দেউড়ি এলাকায় হঠাৎ করে একটি সিএনজি ধাক্কা দেয় রিক্সাকে। সঙ্গে সঙ্গে দুমড়েমুচড়ে যায় রিক্সা, আর সড়কে ছিটকে পড়েন সামিনা। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করান। সেদিন রাতেই ৮ ব্যাগ রক্ত দেয়া হয় এই নারী চিকিৎসককে। সামিনা আক্তার ইউএসটিসির বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতালের আইসিইউ বিভাগের চিকিৎসক। তার গ্রামের বাড়ি ফেনী। নগরীর মেহেদীবাগে পরিবার নিয়ে থাকতেন তিনি। তার স্বামী মীর ওয়াজেদ আলীও একজন চিকিৎসক। তাদের এক মেয়ে ও এক ছেলে। চমেক হাসপাতালের লাশঘরের সামনে সামিনাকে তার সহকর্মীরা দেখতে এসেছিলেন। কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন সকলে। তখন সৃষ্টি হয় এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারণা। পরিবারের সদস্যরা কোনভাবেই মানতে পারছেন না সুস্থ স্বাভাবিক বের হওয়া মানুষটি একটি দুর্ঘটনায় পৃথিবী ছেড়ে চলে গেল। ডাঃ সামিনার সহকর্মী চিকিৎসকরা জানান, প্রাণবন্ত সামিনা সবসময় পরোপকারী ছিলেন। যে কারও বিপদে সবার আগে ছুটে যেতেন। আইসিইউতে রোগীর ব্যাপারে এতই যত্মবান ছিলেন যে, কাউকে আগ বাড়িয়ে কিছু বলতে হতো না। সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে তারা দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে ইউএসটিসির চিকিৎসকরা জানান, প্রতিদিন কারও না কারও স্বজন, বন্ধু সড়কে দুর্ঘটনায় কবলিত হয়ে প্রাণহানির শিকার হচ্ছেন। এমন হত্যাকা- মেনে নেয়া যায় না। চমেক হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডাঃ রাজিব পালিত জানান, তাকে খুবই মুর্মূষু অবস্থায় আনা হয়েছিল। তার মাথায় অস্ত্রোপচার করা হয়েছিল। কিন্তু অবস্থার উন্নতি হয়নি। তার মাথায় মারাত্মক আঘাত ছিল, বুকের আঘাতও ছিল মারাত্মক। তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার সকালে তার লাইফ সাপোর্ট খুলে দেয়া হয়েছে। সিএমপির কোতোয়ালি থানা পুলিশ জানিয়েছে, ঘাতক সিএনজি অটোরিক্সা চালককে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশী জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। রিমান্ডে এনে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ঘটনার তদন্ত করা হবে।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:



































শীর্ষ সংবাদ:
বেনাপোল সীমান্তে সচল পিস্তলসহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী গ্রেফতার নির্মাণসামগ্রীর দাম চড়া, উন্নয়ন প্রকল্পে ধীরগতি কলম্বোতে কারফিউ জারি টিকে থাকার লড়াইয়ে ছক্কা হাকাতে পারবেন ইমরান খান? করোনায় আজও মৃত্যুশূন্য দেশ, শনাক্ত কমেছে ‘ততক্ষণ খেলব যতক্ষণ না আমার চেয়ে ভালো কাউকে দেখব’ এবার ইয়েমেনে পাল্টা হামলা চালাল সৌদি জোট স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালিতে যুবলীগ নেতার মৃত্যু সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র রপ্তানি করেছে মোদি সরকার বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দেওয়া নিয়ে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, এলাকা রণক্ষেত্র ইউক্রেনকে বিপুল ক্ষেপণাস্ত্র ও মেশিনগান দিয়েছে জার্মানি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে নারীকে ধর্ষণ, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩ ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের ‘লাল-সবুজের পতাকা বিশ্বজুড়ে আনবে একতা‘-শীর্ষক সভা বঙ্গবন্ধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নওগাঁর নওহাঁটায় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন । ভূরুঙ্গামারীতে ব্যাপরোয়া অটোরিকশা কেরে নিল শিশুর ফাহিম এর প্রাণ ভূরুঙ্গামারী কিশোর গ‍্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আহত যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ৬ তম রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ক্যাম্পেইন বেনাপোলে পৃথক অভিযানে ৫২ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক-২ বেনাপোল স্থলপথে স্টুডেন্ট ভিসায় বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমন নিষেধ গেরিলা যোদ্ধা অপূর্ব