চালের কৃত্রিম সংকট অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিন – বর্ণমালা টেলিভিশন

চালের কৃত্রিম সংকট অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিন

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ২০ জানুয়ারি, ২০২২ | ৯:১১ 88 ভিউ
করোনা মহামারির তাণ্ডব আর নিত্যপণ্যের বাজারে অস্থিরতার কারণে দীর্ঘদিন যাবৎ দেশবাসীকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এ নিয়ে সবচেয়ে বেশি চিন্তিত সীমিত ও স্বল্প আয়ের মানুষ। স্বল্প আয়ের মানুষের রোজগারের সিংহভাগই ব্যয় হয় চাল, আটা ক্রয় বাবদ। কাজেই চালের দাম বাড়লে স্বল্প আয়ের মানুষের দুর্ভোগও বাড়ে। যেহেতু চালের উৎপাদন ও পর্যাপ্ত সরবরাহে কোনোরকম সংকট সৃষ্টি হয়নি, সেহেতু এখন চালের বাজার অস্থির থাকার কথা নয়। কিন্তু বাস্তবতা হলো, গত এক মাসের ব্যবধানে বস্তাপ্রতি (৫০ কেজি) চালের দাম বেড়েছে সর্বোচ্চ ৪০০ টাকা। এ অবস্থায় নিম্নআয়ের মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়েছে। খাদ্যপণ্যের বাজার যাতে যখন-তখন অস্থির হতে না পারে সে জন্য সরকারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া হলেও কিছু অসাধু ব্যবসায়ী নানা কৌশলে চালসহ নিত্যপণ্যের বাজার অস্থির করেই চলেছে। এ ক্ষেত্রে পণ্যের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টির বিষয়টি বহুল আলোচিত। প্রশ্ন হলো, অসাধু ব্যবসায়ীদের নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না কেন? বস্তুত মিল মালিকসহ ব্যবসায়ীদের একটি সিন্ডিকেট নানা কৌশলে চালের বাজার অস্থির করে তোলে। এবার এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে মৌসুমি ধান বিক্রেতারা। জানা গেছে, এবার মৌসুমি ধান বিক্রেতার সংখ্যা অন্যান্য বছরের তুলনায় বেশি। এসব মৌসুমি বিক্রেতা কৃষকের কাছ থেকে কম দামে ধান ক্রয় করে তা বিভিন্ন স্থানে মজুত করে রেখেছে। মজুতকৃত ধান এখন বিক্রি করছে বাড়তি দরে। এর প্রভাব পড়ছে চালের বাজারে। চালসহ নিত্যপণ্যের বাজারে অস্থিরতা দূর করা সম্ভব না হলে স্বল্প আয়ের মানুষ তাদের ভোগ কমাতে বাধ্য হবে। এতে অপুষ্টির শিকার হয়ে তাদের নানারকম রোগব্যাধিতে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বাড়বে। কাজেই যে ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট এসব অনৈতিক কাজের সঙ্গে যুক্ত, তাদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নিতে হবে। সরকারের উচিত নিত্যপণ্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে রাখতে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া। এটা স্পষ্ট হয়েছে যে, অসাধু ব্যবসায়ীদের ন্যূনতম মানবিকতা বলতে কিছু নেই। সঠিকভাবে আইন প্রয়োগ করে দ্রুত সব ধরনের পণ্যের বাজারের অস্থিরতা দূর করতে হবে। বাজারে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে তদারকির পাশাপাশি গোয়েন্দা নজরদারি বাড়াতে হবে। অতি লোভী ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটকে যারা প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সহযোগিতা করে, তাদেরও আইনের আওতায় আনতে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:



































শীর্ষ সংবাদ:
বেনাপোল সীমান্তে সচল পিস্তলসহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী গ্রেফতার নির্মাণসামগ্রীর দাম চড়া, উন্নয়ন প্রকল্পে ধীরগতি কলম্বোতে কারফিউ জারি টিকে থাকার লড়াইয়ে ছক্কা হাকাতে পারবেন ইমরান খান? করোনায় আজও মৃত্যুশূন্য দেশ, শনাক্ত কমেছে ‘ততক্ষণ খেলব যতক্ষণ না আমার চেয়ে ভালো কাউকে দেখব’ এবার ইয়েমেনে পাল্টা হামলা চালাল সৌদি জোট স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালিতে যুবলীগ নেতার মৃত্যু সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র রপ্তানি করেছে মোদি সরকার বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দেওয়া নিয়ে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, এলাকা রণক্ষেত্র ইউক্রেনকে বিপুল ক্ষেপণাস্ত্র ও মেশিনগান দিয়েছে জার্মানি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে নারীকে ধর্ষণ, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩ ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের ‘লাল-সবুজের পতাকা বিশ্বজুড়ে আনবে একতা‘-শীর্ষক সভা বঙ্গবন্ধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নওগাঁর নওহাঁটায় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন । ভূরুঙ্গামারীতে ব্যাপরোয়া অটোরিকশা কেরে নিল শিশুর ফাহিম এর প্রাণ ভূরুঙ্গামারী কিশোর গ‍্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আহত যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ৬ তম রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ক্যাম্পেইন বেনাপোলে পৃথক অভিযানে ৫২ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক-২ বেনাপোল স্থলপথে স্টুডেন্ট ভিসায় বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমন নিষেধ গেরিলা যোদ্ধা অপূর্ব