গণপদত্যাগের হুঁশিয়ারি তৃণমূল নেতাকর্মীদের - বর্ণমালা টেলিভিশন

রাজশাহী মহানগর বিএনপির নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটি বাতিল করা না হলে তৃণমূলের নেতাকর্মীরা গণপদত্যাগের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। মহানগর বিএনপির থানা ও ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতারা রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন। শালবাগানে বিএনপির একটি কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বোয়ালিয়া থানা বিএনপির সভাপতি সাইদুর রহমান পিন্টু।

এর আগে বৃহস্পতিবার বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে রাজশাহী মহানগর বিএনপির ৯ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়। এরপর শনিবার এই আহ্বায়ক কমিটি রাজশাহী মহানগর বিএনপির আওতাধীন সব থানা ও ওয়ার্ড পর্যায়ের আগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে।

এদিকে কমিটি বিলুপ্তির ঠিক একদিন পরই রাজশাহী মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক চারটি থানা ও

ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতারা সংবাদ সম্মেলন করে আহ্বায়ক কমিটির সদস্যদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলে ধরেন। তারা দাবি করেন, কাউন্সিলের মাধ্যমে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে নেতা নির্বাচন করতে হবে। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সদ্য বিলুপ্ত বোয়ালিয়া থানা বিএনপির সভাপতি সাইদুর রহমান পিন্টু জানান, রাজশাহী মহানগর বিএনপির আওতাধীন থানা ইউনিটের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ সব ওয়ার্ডের দায়িত্বশীল নেতারা বিএনপির বর্তমান আহ্বায়ক কমিটির বিরুদ্ধে একাত্মতা ঘোষণা করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে নবগঠিত ৯ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটির মধ্যে ৫ জনের বিষয়ে অভিযোগ উত্থাপন করে বলা হয়, রাজশাহী মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক করা হয়েছে অ্যাডভোকেট এরশাদ আলী ঈসাকে। বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের পরবর্তী সময়ে বিএনপির কর্মসূচির সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক নেই। এক-এগারো-পরবর্তী সময় রাজশাহীর

শত শত নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে ডজন ডজন মামলা হলেও মহানগর বিএনপির নবগঠিত কমিটির এই আহ্বায়কের বিরুদ্ধে কোনো মামলা হয়নি। এছাড়া তিনি তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে তথাকথিত সংস্কারপন্থিদের দলে যুক্ত ছিলেন। নতুন আহ্বায়ক কমিটির দুই নম্বর যুগ্ম আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেনের ব্যাপারে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, রাজশাহী জেলা বিএনপির সদস্য হিসাবে থাকা অবস্থায় তাকে মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক পদে পদায়ন করা হয়েছে, যা সংগঠনের এক নেতার এক পদ নীতির পরিপন্থি। এছাড়া নবগঠিত কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক বজলুল হক মন্টু মহানগরের একটি ওয়ার্ডের বিএনপির সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে আছেন। তাকে সরাসরি মহানগর কমিটির যুগ্ম আহ্বায়কের পদ দেওয়া হয়েছে। এটি নজিরবিহীন। কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক জয়নুল আবেদীন শিবলী বিগত

দিনে দলীয় কোনো কর্মসূচিতে উপস্থিত না থাকা সত্ত্বেও শুধু সাবেক এক বিএনপি নেতার ভাই হওয়ায় তাকে পদ দেওয়া হয়েছে।

নবগঠিত কমিটির সদস্যসচিব মামুনুর রশিদ মামুনের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস ও মাদক সম্পৃক্ততার অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, মামুন আওয়ামী লীগের এজেন্ট। তিনি মহানগরীর ১৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও রাজশাহী মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আব্দুল মোমিনের পক্ষে নির্বাচনি প্রচার-প্রচারণায় কাজ করেছেন। মামুন রাজশাহী নিউমার্কেট, পানি উন্নয়ন বোর্ড, বাস টার্মিনাল ও রেলভবনে চিহ্নিত চাঁদাবাজ। তিনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কালো তালিকাভুক্ত। সংবাদ সম্মেলনে দাবি করা হয়, রাজশাহীতে বিএনপিকে দুর্বল করতেই এ ধরনের বিতর্কিত কমিটি দেওয়া হয়েছে। রাজশাহী মহানগরের সব থানা ও ওয়ার্ড

পর্যায়ের নেতারা এই কমিটিকে প্রত্যাখ্যান করছে। দলীয় বৃহৎ স্বার্থে নিষ্ক্রিয় আওয়ামী লীগ এজেন্টদের বাদ দিয়ে ত্যাগী জনপ্রিয় পরীক্ষিত নেতৃবৃন্দ দিয়ে নতুন মহানগর কমিটি গঠনের জন্য জোর দাবি জানান উপস্থিত নেতারা। অন্যথায় তারা গণপদত্যাগের হুঁশিয়ারি দেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সদ্য বিলুপ্ত রাজপাড়া থানা বিএনপির সভাপতি শওকত আলী, মতিহার থানা বিএনপির সভাপতি আনসার আলী, শাহমখদুম থানা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাসুদ প্রমুখ।

এদিকে নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব মামুনুর রশিদ মামুন সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ সম্পর্কে মামুন বলেন, যেসব অভিযোগ করা হয়েছে সেগুলো ভিত্তিহীন।

রাজশাহী মহানগর বিএনপির নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটি বাতিল করা না হলে তৃণমূলের নেতাকর্মীরা গণপদত্যাগের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। মহানগর বিএনপির থানা ও ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতারা রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন। শালবাগানে বিএনপির একটি কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বোয়ালিয়া থানা বিএনপির সভাপতি সাইদুর রহমান পিন্টু।

এর আগে বৃহস্পতিবার বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে রাজশাহী মহানগর বিএনপির ৯ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়। এরপর শনিবার এই আহ্বায়ক কমিটি রাজশাহী মহানগর বিএনপির আওতাধীন সব থানা ও ওয়ার্ড পর্যায়ের আগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে।

এদিকে কমিটি বিলুপ্তির ঠিক একদিন পরই রাজশাহী মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক চারটি থানা ও

ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতারা সংবাদ সম্মেলন করে আহ্বায়ক কমিটির সদস্যদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলে ধরেন। তারা দাবি করেন, কাউন্সিলের মাধ্যমে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে নেতা নির্বাচন করতে হবে। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সদ্য বিলুপ্ত বোয়ালিয়া থানা বিএনপির সভাপতি সাইদুর রহমান পিন্টু জানান, রাজশাহী মহানগর বিএনপির আওতাধীন থানা ইউনিটের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ সব ওয়ার্ডের দায়িত্বশীল নেতারা বিএনপির বর্তমান আহ্বায়ক কমিটির বিরুদ্ধে একাত্মতা ঘোষণা করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে নবগঠিত ৯ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটির মধ্যে ৫ জনের বিষয়ে অভিযোগ উত্থাপন করে বলা হয়, রাজশাহী মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক করা হয়েছে অ্যাডভোকেট এরশাদ আলী ঈসাকে। বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের পরবর্তী সময়ে বিএনপির কর্মসূচির সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক নেই। এক-এগারো-পরবর্তী সময় রাজশাহীর

শত শত নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে ডজন ডজন মামলা হলেও মহানগর বিএনপির নবগঠিত কমিটির এই আহ্বায়কের বিরুদ্ধে কোনো মামলা হয়নি। এছাড়া তিনি তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে তথাকথিত সংস্কারপন্থিদের দলে যুক্ত ছিলেন। নতুন আহ্বায়ক কমিটির দুই নম্বর যুগ্ম আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেনের ব্যাপারে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, রাজশাহী জেলা বিএনপির সদস্য হিসাবে থাকা অবস্থায় তাকে মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক পদে পদায়ন করা হয়েছে, যা সংগঠনের এক নেতার এক পদ নীতির পরিপন্থি। এছাড়া নবগঠিত কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক বজলুল হক মন্টু মহানগরের একটি ওয়ার্ডের বিএনপির সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে আছেন। তাকে সরাসরি মহানগর কমিটির যুগ্ম আহ্বায়কের পদ দেওয়া হয়েছে। এটি নজিরবিহীন। কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক জয়নুল আবেদীন শিবলী বিগত

দিনে দলীয় কোনো কর্মসূচিতে উপস্থিত না থাকা সত্ত্বেও শুধু সাবেক এক বিএনপি নেতার ভাই হওয়ায় তাকে পদ দেওয়া হয়েছে।

নবগঠিত কমিটির সদস্যসচিব মামুনুর রশিদ মামুনের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস ও মাদক সম্পৃক্ততার অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, মামুন আওয়ামী লীগের এজেন্ট। তিনি মহানগরীর ১৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও রাজশাহী মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আব্দুল মোমিনের পক্ষে নির্বাচনি প্রচার-প্রচারণায় কাজ করেছেন। মামুন রাজশাহী নিউমার্কেট, পানি উন্নয়ন বোর্ড, বাস টার্মিনাল ও রেলভবনে চিহ্নিত চাঁদাবাজ। তিনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কালো তালিকাভুক্ত। সংবাদ সম্মেলনে দাবি করা হয়, রাজশাহীতে বিএনপিকে দুর্বল করতেই এ ধরনের বিতর্কিত কমিটি দেওয়া হয়েছে। রাজশাহী মহানগরের সব থানা ও ওয়ার্ড

পর্যায়ের নেতারা এই কমিটিকে প্রত্যাখ্যান করছে। দলীয় বৃহৎ স্বার্থে নিষ্ক্রিয় আওয়ামী লীগ এজেন্টদের বাদ দিয়ে ত্যাগী জনপ্রিয় পরীক্ষিত নেতৃবৃন্দ দিয়ে নতুন মহানগর কমিটি গঠনের জন্য জোর দাবি জানান উপস্থিত নেতারা। অন্যথায় তারা গণপদত্যাগের হুঁশিয়ারি দেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সদ্য বিলুপ্ত রাজপাড়া থানা বিএনপির সভাপতি শওকত আলী, মতিহার থানা বিএনপির সভাপতি আনসার আলী, শাহমখদুম থানা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাসুদ প্রমুখ।

এদিকে নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব মামুনুর রশিদ মামুন সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ সম্পর্কে মামুন বলেন, যেসব অভিযোগ করা হয়েছে সেগুলো ভিত্তিহীন।

গণপদত্যাগের হুঁশিয়ারি তৃণমূল নেতাকর্মীদের

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ১৩ ডিসেম্বর, ২০২১ | ৯:০০ 87 ভিউ
রাজশাহী মহানগর বিএনপির নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটি বাতিল করা না হলে তৃণমূলের নেতাকর্মীরা গণপদত্যাগের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। মহানগর বিএনপির থানা ও ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতারা রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন। শালবাগানে বিএনপির একটি কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বোয়ালিয়া থানা বিএনপির সভাপতি সাইদুর রহমান পিন্টু। এর আগে বৃহস্পতিবার বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে রাজশাহী মহানগর বিএনপির ৯ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়। এরপর শনিবার এই আহ্বায়ক কমিটি রাজশাহী মহানগর বিএনপির আওতাধীন সব থানা ও ওয়ার্ড পর্যায়ের আগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে। এদিকে কমিটি বিলুপ্তির ঠিক একদিন পরই রাজশাহী মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক চারটি থানা ও

ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতারা সংবাদ সম্মেলন করে আহ্বায়ক কমিটির সদস্যদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলে ধরেন। তারা দাবি করেন, কাউন্সিলের মাধ্যমে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে নেতা নির্বাচন করতে হবে। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সদ্য বিলুপ্ত বোয়ালিয়া থানা বিএনপির সভাপতি সাইদুর রহমান পিন্টু জানান, রাজশাহী মহানগর বিএনপির আওতাধীন থানা ইউনিটের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ সব ওয়ার্ডের দায়িত্বশীল নেতারা বিএনপির বর্তমান আহ্বায়ক কমিটির বিরুদ্ধে একাত্মতা ঘোষণা করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে নবগঠিত ৯ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটির মধ্যে ৫ জনের বিষয়ে অভিযোগ উত্থাপন করে বলা হয়, রাজশাহী মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক করা হয়েছে অ্যাডভোকেট এরশাদ আলী ঈসাকে। বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের পরবর্তী সময়ে বিএনপির কর্মসূচির সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক নেই। এক-এগারো-পরবর্তী সময় রাজশাহীর

শত শত নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে ডজন ডজন মামলা হলেও মহানগর বিএনপির নবগঠিত কমিটির এই আহ্বায়কের বিরুদ্ধে কোনো মামলা হয়নি। এছাড়া তিনি তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে তথাকথিত সংস্কারপন্থিদের দলে যুক্ত ছিলেন। নতুন আহ্বায়ক কমিটির দুই নম্বর যুগ্ম আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেনের ব্যাপারে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, রাজশাহী জেলা বিএনপির সদস্য হিসাবে থাকা অবস্থায় তাকে মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক পদে পদায়ন করা হয়েছে, যা সংগঠনের এক নেতার এক পদ নীতির পরিপন্থি। এছাড়া নবগঠিত কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক বজলুল হক মন্টু মহানগরের একটি ওয়ার্ডের বিএনপির সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে আছেন। তাকে সরাসরি মহানগর কমিটির যুগ্ম আহ্বায়কের পদ দেওয়া হয়েছে। এটি নজিরবিহীন। কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক জয়নুল আবেদীন শিবলী বিগত

দিনে দলীয় কোনো কর্মসূচিতে উপস্থিত না থাকা সত্ত্বেও শুধু সাবেক এক বিএনপি নেতার ভাই হওয়ায় তাকে পদ দেওয়া হয়েছে। নবগঠিত কমিটির সদস্যসচিব মামুনুর রশিদ মামুনের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস ও মাদক সম্পৃক্ততার অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, মামুন আওয়ামী লীগের এজেন্ট। তিনি মহানগরীর ১৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও রাজশাহী মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আব্দুল মোমিনের পক্ষে নির্বাচনি প্রচার-প্রচারণায় কাজ করেছেন। মামুন রাজশাহী নিউমার্কেট, পানি উন্নয়ন বোর্ড, বাস টার্মিনাল ও রেলভবনে চিহ্নিত চাঁদাবাজ। তিনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কালো তালিকাভুক্ত। সংবাদ সম্মেলনে দাবি করা হয়, রাজশাহীতে বিএনপিকে দুর্বল করতেই এ ধরনের বিতর্কিত কমিটি দেওয়া হয়েছে। রাজশাহী মহানগরের সব থানা ও ওয়ার্ড

পর্যায়ের নেতারা এই কমিটিকে প্রত্যাখ্যান করছে। দলীয় বৃহৎ স্বার্থে নিষ্ক্রিয় আওয়ামী লীগ এজেন্টদের বাদ দিয়ে ত্যাগী জনপ্রিয় পরীক্ষিত নেতৃবৃন্দ দিয়ে নতুন মহানগর কমিটি গঠনের জন্য জোর দাবি জানান উপস্থিত নেতারা। অন্যথায় তারা গণপদত্যাগের হুঁশিয়ারি দেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সদ্য বিলুপ্ত রাজপাড়া থানা বিএনপির সভাপতি শওকত আলী, মতিহার থানা বিএনপির সভাপতি আনসার আলী, শাহমখদুম থানা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাসুদ প্রমুখ। এদিকে নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব মামুনুর রশিদ মামুন সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ সম্পর্কে মামুন বলেন, যেসব অভিযোগ করা হয়েছে সেগুলো ভিত্তিহীন।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


































শীর্ষ সংবাদ:
নিয়োগে দুর্নীতি: জীবন বীমার এমডির বিরুদ্ধে দুদকের মামলা মিহির ঘোষসহ নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবীতে গাইবান্ধায় সিপিবির বিক্ষোভ গাইবান্ধায় সেনাবাহিনীর ভূয়া ক্যাপ্টেন গ্রেফতার জগন্নাথপুরে সড়ক নির্মানের অভিযোগ এক ঠিকাদারের বিরুদ্ধে তারাকান্দায় অসহায় ও দুস্থদের মাঝে ছাত্রদলের খাবার বিতরণ দেবহাটায় অস্ত্র-গুলি ও ইয়াবা উদ্ধার আটক -১ রামগড়ে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বাগমারায় ভেদুর মোড় হতে নরদাশ পর্যন্ত পাকা রাস্তার শুভ উদ্বোধন সরকারি বিধিনিষেধ না মানায় শার্শায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা আদায় মধুখালীতে তিন মাসে ৪৩ টি গরু চুরি গাইবান্ধায় বঙ্গবন্ধু জেলা ভলিবল প্রতিযোগিতার উদ্বোধন গাইবান্ধায় শীতবস্ত্র বিতরণ রাজশাহীতে পুত্রের হাতে পিতা খুন বাগমারায় সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার রামগড়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার শীতবস্ত্র বিতরণ করেন ইউএনও ভাঃ উম্মে হাবিবা মজুমদার জগন্নাথপুরে জুয়ার আসরে পুলিশ দেখে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ এক ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সিপিবি নেতা মিহির ঘোষসহ ৬ জন কারাগারে পিআইও’র মানহানির মামলায় গাইবান্ধার ৪ সাংবাদিকসহ ৫ জনের জামিন গাইবান্ধায় প্রগতিশীল ছাত্র জোটের মানববন্ধন চাঁপাইনবাবগঞ্জে সোনালী ব্যাংক লি. গোমস্তাপুর শাখায় শীতবস্ত্র বিতরণ