ঢাকা, Sunday 19 September 2021

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

খাল ও রাস্তা দখলের বিরুদ্ধে আমাদের জিরো টলারেন্স

প্রকাশিত : 09:05 AM, 7 January 2021 Thursday
51 বার পঠিত

মোহাম্মদ রাছেল রানা | ডোনেট বাংলাদেশ নিউজ ডেক্স :-

অবৈধভাবে খাল এবং রাস্তা দখল করেছেন তাদের জন্য আমাদের জিরো টলারেন্স। দখলদার যেই হোক না কেন, যত শক্তিশালীই হোক না কেন, যত বড় রাজনৈতিক ব্যক্তি হোক না কেন, অবৈধভাবে দখল করে রাখবে, এটি আমি মানতে পারব না বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম। বুধবার দুপুরে রাজধানীর তেজগাঁও উত্তরা মটরস থেকে কুনিপাড়া রানার্স পর্যন্ত সড়ক উদ্বোধনকালে মেয়র এসব কথা বলেন। এ সময় ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সেলিম রেজা, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আমিরুল ইসলাম, ওয়ার্ড কাউন্সিলর সফিউল্লাহ সফি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মেয়র আতিক বলেন, অনেক কষ্ট করে আমরা রাস্তা করি। কষ্ট

করে ফুটপাত করি। আবার অনেক কষ্ট করে ড্রেন থেকে ময়লা সাফ করি। আমরা বারবার পরিষ্কার করব। ময়লা করবে জনগণ, এটি হবে না। তিনি বলেন, জনগণকে বলে যাচ্ছি, যে রাস্তা, যে খাল আমরা পরিষ্কার করে দেবো, সেই খাল এবং সেই রাস্তা যেন আপনারা তদারকি করেন। আপনাদের আমি সে দায়িত্ব দিয়ে গেলাম। আপনাদের সাহায্য পেলে এটি একটি নন্দিত ঢাকা শহর হবে। ডিএনসিসি মেয়র বলেন, আজকে যে জায়গায় দাঁড়িয়ে কথা বলছি, আজ থেকে এক বছর আগেও কিন্তু এখানে দাঁড়িয়ে কথা বলা যেত না। আমি নির্বাচনের সময় বিভিন্ন জায়গায় গিয়েছি, এখানেও এসেছিলাম। তখন আমি বলেছিলাম এই এলাকার এই অবস্থা

কেন। আজ এই জায়গায় সেই দূরাবস্থার অবসান হলো। আতিক বলেন, আমরা চাই এই ঢাকাকে একটি সুন্দর ঢাকায় রূপান্তরিত করার জন্য। আমরা জানি আমাদের অনেক সমস্যা আছে। কিছু সমস্যা মানুষের তৈরি। আমরা দেখেছি কিভাবে তারা রাস্তাগুলোকে দখল করে রাখে।

তিনি বলেন, খাল পরিষ্কার ও অবৈধ দখল উচ্ছেদ সম্পর্কে তিনি বলেন, আমরা এক তারিখে খালের দায়িত্ব পেয়েছি। দায়িত্ব পেয়ে ইব্রাহিমপুর খাল পাড়ে গিয়ে দেখি ৬০ ফিট খাল এখন মাত্র ১০ ফিটে চলে আসছে। কালশি খাল ও গোদাখালী খাল থেকে ২০০ ট্রাক ডাবের খোসা উদ্ধার করেছি। এখান থেকে জাজিম ৩৬টি, টেলিভিশন, ফ্রিজ সবকিছু খালে পেয়েছি। মেয়র বলেন, ভাষানটেকে গত

দুইদিন ধরে চলমান অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করছি। ভাষানটেক থেকে মানিকদি রাস্তা পার হয়ে বের হতে দুই ঘণ্টা সময় লাগত। পকেট গেইটে একটি দোতলা বাড়ির জন্য সেখানে দীর্ঘ যানজট তৈরি হতো। আমরা সেই বাড়িটি কিনে ভেঙ্গে দিয়েছি। এছাড়া রাস্তার দুই পাশে অবৈধভাবে তৈরি করা বাড়িগুলোর বর্ধিতাংশ ভেঙ্গে দিয়েছি। স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলরের বাড়িও রেহাই পায়নি। ডিএনসিসির ইউটার্ন প্রসঙ্গে জনাব আতিক বলেন, আমরা মোট ১০টি ইউটার্ন নির্মাণ করব। ইতোপূর্বে তিনটি ইউটার্ন নির্মাণ করা হয়েছে, সম্প্রতি আরও তিনটি ইউটার্ন খুলে দেয়া হয়েছে। আরও চারটি নির্মাণাধীন। সবগুলো ইউটার্ন চালু হলে এর সুফল পাওয়া যাবে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি ডোনেট বাংলাদেশ'কে জানাতে ই-মেইল করুন- donetbd2010@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

ডোনেট বাংলাদেশ'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© 2021 সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। ডোনেট বাংলাদেশ | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT