ঢাকা, Saturday 23 October 2021

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসা সরকার সহনশীল, আশায় বিএনপি

প্রকাশিত : 09:50 AM, 7 May 2021 Friday
83 বার পঠিত

| ডোনেট বিডি নিউজ ডেস্কঃ |

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নেওয়ার ব্যাপারে সরকার সহনশীল। এতে বিএনপি ও খালেদা জিয়ার পরিবারও আশাবাদী। চেয়ারপারসনের উন্নত চিকিৎসায় সরকার সব ধরনের সহযোগিতা করবে বলে মনে করছেন তারা।

ইতিবাচক মনোভাবের পর খালেদা জিয়াকে বিদেশে নেওয়ার জোর প্রস্তুতি শুরু করেছে বিএনপি ও তার পরিবারের সদস্যরা। দলটির চেয়ারপারসনের পাসপোর্ট নবায়ন, ভিসাসহ আনুষঙ্গিক কাজ দ্রুত শেষ করার চেষ্টা চলছে। যাতে অনুমতি পেলে যে কোনো মুহূর্তে তাকে বিদেশ নেওয়া যায়।

পরিবারের পক্ষ থেকে তাকে যুক্তরাজ্যে নেওয়ার জন্য জোর তৎপরতা চালানো হচ্ছে। জানতে চাইলে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বৃহস্পতিবার বলেন, খালেদা জিয়ার মধ্যে কোভিড-১৯ সংক্রমণ-পরবর্তী বিভিন্ন

জটিলতা রয়েছে।

সেজন্য ‘মানবিক’ বিবেচনায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বিদেশে নেওয়ার অনুমতি দিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

তবে কখন যাবেন, প্রস্তুতি চলছে কিনা এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মির্জা ফখরুল বলেন, চেয়ারপারসনের বিদেশ যাওয়ার বিষয়টি তার পরিবার ও আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেখছেন।

এদিকে খালেদা জিয়ার বিদেশ যাওয়ার অনুমতির ব্যাপারে সরকারের পক্ষ থেকে এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, তার আবেদনটি পেয়েছি। যাচাই শেষে তা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। তবে সেটা বৃহস্পতিবার পাঠানো সম্ভব হবে না বলে জানান তিনি।

আইনমন্ত্রী বলেন, আশা করছি আগামী কার্যদিবসের (রোববার) মধ্যে সিদ্ধান্ত জানাতে পারব। যেহেতু তিনি অসুস্থ তাই যথাশিগগিরই এটা শেষ

করতে হবে। তবে বিষয়টি আমরা মানবিক দৃষ্টিতে দেখছি।

কোন প্রক্রিয়ায় চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়া বিদেশ যাচ্ছেন এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, এ মুহূর্তে আমি কোনো মন্তব্য করব না। একটু অপেক্ষা করুন। এর আগে গুলশানের বাসভবনে আইনমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে নিতে পরিবারের আবেদন পর্যালোচনার পর দ্রুত সময়ে মতামত দিয়ে ফাইল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে।

তবে ‘সময় শেষ হয়ে যাওয়ায়’ বৃহস্পতিবার আর সে প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে না। এর আগে মন্ত্রী বলেছিলেন, আবেদনটি বুধবার রাত ১১টায় আইন মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগের সচিবের কাছে এসেছে। এখন যথাযথ প্রক্রিয়া শেষ করে সেটি তার (মন্ত্রী) কাছে আসবে।

এরপর তিনি দেখে এ বিষয়ে মত দেবেন। কী ধরনের মত বা প্রক্রিয়া হতে পারে, জানতে চাইলে আইনমন্ত্রী বলেন, দেখার পরে সেটি বলতে পারবেন।

এদিকে বৃহস্পতিবার বিকালে সচিবালয় থেকে এ সংক্রান্ত নথিপত্র আইনমন্ত্রীর বাসায় নিয়ে যান আইন সচিব গোলাম সারওয়ার। খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠানোর ক্ষেত্রে আইনের কোনো ব্যত্যয় আছে কিনা জানতে চাইলে সচিব বলেন, ‘এ বিষয়ে মাননীয় মন্ত্রী কথা বলবেন। আমি কিছু বলব না। শামীম ইস্কান্দার সাহেব বিদেশ নেওয়ার জন্য আবেদন করেছেন, এটা রিপোর্টে আছে। আমি ফাইলগুলো নিয়ে যাচ্ছি মন্ত্রী মহোদয়ের ওখানে।’

আবেদনে কোন দেশের কথা বলা আছে জানতে চাইলে সচিব বলেন, ‘না, ওনারা কোনো কিছু উল্লেখ করেননি।

শুধু চিকিৎসার জন্য বিদেশে যাওয়ার কথা বলেছেন। আর কিছু বলেননি। পরবর্তী প্রক্রিয়া কী হবে জানতে চাইলে আইন সচিব বলেন, আমরা মতামত দিলে সেটা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে সামারি (সংক্ষিপ্ত) আকারে প্রধানমন্ত্রীর কাছে যাবে। তিনি আরও বলেন, আমরা ফাইল নিয়ে যাচ্ছি, তিনি দেখবেন। মন্ত্রী মহোদয় সিদ্ধান্ত দিলে, তখন হবে।’

সরকার ও বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, আইন মন্ত্রণালয়ের সুপারিশ দ্রুত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে যেতে পারে। এরপর তা প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হবে। চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে পারবেন না বলে যে শর্ত দেওয়া হয়েছে তা তুলে নিয়ে নতুন প্রজ্ঞাপন জারি করলে খালেদা জিয়ার বাইরে যেতে আর কোনো বাধা থাকবে না। উন্নত চিকিৎসার

জন্য বিদেশ নেওয়ার অনুমতি চেয়ে বুধবার রাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেন খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম এস্কান্দার। লিখিত আবেদনটি মতামতের জন্য রাতেই তা আইন সচিবের কাছে পাঠানো হয়েছে।

সূত্র জানায়, খালেদা জিয়ার বিদেশ যাওয়ার ব্যাপারে সরকারের পক্ষ থেকে ইতিবাচক মনোভাব দেখানো হয়েছে। সরকারের মনোভাব জানার পর বিদেশ নেওয়ার প্রস্তুতি শুরু করে খালেদা জিয়ার পরিবার। বুধবার রাতেই বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাজ্যের হাইকমিশনারের সঙ্গে দেখা করেন শামীম এস্কান্দার। খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা জানিয়ে তাকে যুক্তরাজ্যে নেওয়ার সহযোগিতা চান তিনি। হাইকমিশনার যুক্তরাজ্য সরকারের উচ্চ পর্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। পরে শামীম এস্কান্দারকে জানান, তার সরকার বিএনপি চেয়ারপারসনের চিকিৎসা করাতে সব

ধরনের সহযোগিতা করবে। যুক্তরাজ্যে যেতে তার সরকার ইতিবাচক সাড়া দিয়েছে বলে হাইকমিশনার তাকে অবহিত করেন। সরকারের সবুজ সংকেত পাওয়ার পর বৃহস্পতিবার সকালে খালেদা জিয়ার পাসপোর্ট নবায়নের প্রক্রিয়া শুরু করেন শামীম এস্কান্দার। সকালে আগারগাঁও পাসপোর্ট অফিসে গিয়ে খালেদা জিয়ার পাসপোর্ট নবায়নের জন্য জমা দেওয়া হয়েছে।

এদিকে পাসপোর্ট পাওয়ার পর ভিসার জন্য তা যুক্তরাজ্য হাইকমিশনে জমা দেওয়া হবে। শুধু খালেদা জিয়া নন, তার সঙ্গে যাবেন এমন দুই চিকিৎসক এবং পরিবারের সদস্যদেরও ভিসার জন্য পাসপোর্ট জমা দেওয়া হবে।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দুপুরে হাসপাতালে গিয়ে খালেদা জিয়ার সর্বশেষ অবস্থা নিয়ে চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলেন। হাসপাতালে যাওয়ার

আগে গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে বিএনপি মহাসচিব বলেন, করোনায় পোস্ট কোভিড জটিলতা হয়, সে জটিলতা মাঝে মধ্যে বিভিন্ন দিকে টার্ন নেয়। ওনার (খালেদা জিয়া) যে বয়স এবং বিভিন্ন রোগের কারণে কিছু জটিলতা হয়েছে। মির্জা ফখরুল আরও বলেন, সেজন্যই আমাদের দেশের প্রায় বেশির ভাগ মানুষের আকাক্সক্ষা তার চিকিৎসাটা উন্নত কোনো হাসপাতালে হোক। বাংলাদেশে উন্নত হাসপাতালেই তিনি চিকিৎসা নিচ্ছেন। বিদেশে আরও উন্নত হাসপাতালে তার চিকিৎসা হোক এটাই প্রত্যাশা। বুধবার তার পরিবার থেকে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার জন্য অনুমতি চেয়েছেন। আমরা আশা করি, সরকার মানবিক কারণে দেশের ১৮ কোটি মানুষের সবচেয়ে প্রিয় নেতার বিদেশে চিকিৎসার ব্যবস্থা করবে।

এদিকে

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে বৈঠকে বসেন মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা। তারা সব রিপোর্টের চুলচেরা বিশ্লেষণ করেন। এদিনও বোর্ডের সদস্যরা তাকে দ্রুত বিদেশ নেওয়ার পরামর্শ দেন। খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত এক চিকিৎসক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, করোনায় পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কিছু জটিলতায় ভুগছেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। তার ফুসফুস থেকে দুবার তরল জাতীয় পদার্থ (ফ্লুইড) অপসারণ করা হয়েছে। তার ডায়াবেটিস পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে থাকছে না। এর মাত্রা ওঠানামা করছে। এ ছাড়া আর্থ্রাইটিস এবং আরও কিছু সমস্যাও আছে। এখনো তার অক্সিজেন নিতে হচ্ছে। আগে যেখানে ১-২ লিটার অক্সিজেন দেওয়া হতো এখন সেখানে ৩-৪ লিটার দিতে হচ্ছে।

তার বুকের এক্স-রে করানো হয়েছে সেই রিপোর্টও খুব ভালো নয়।

এদিকে বিএনপির এক নেতা ও খালেদা জিয়ার মেডিকেল বোর্ডের এক চিকিৎসক নাম প্রকাশ না করার শর্তে দাবি করেন- চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার তৃতীয় দফা পরীক্ষায় করোনা নেগেটিভ এসেছে। তবে এ ব্যাপারে আনুষ্ঠানিকভাবে কেউ কিছু স্বীকার করেননি। উল্লেখ্য, ১০ এপ্রিল খালেদা জিয়ার করোনা শনাক্ত হয়। দ্বিতীয় দফা পরীক্ষায়ও তার পজিটিভ আসে।

রোগমুক্তি কামনায় আজ সারা দেশে দোয়া ও প্রার্থনা : খালেদা জিয়ার আশু রোগমুক্তি কামনায় আজ বাদ জুমা সারা দেশের মসজিদে দোয়া মাহফিল ও বিভিন্ন উপাসনালয়ে প্রার্থনা করবে বিএনপি। বৃহস্পতিবার সকালে গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে বিএনপি

মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, শুক্রবার পবিত্র জুমাতুল বিদা। সারা দেশে সব মসজিদ, বিভিন্ন প্রার্থনালয় যেগুলো আছে অন্যান্য ধর্মের, সেগুলোয় আমাদের সব ইউনিট খালেদা জিয়ার আশু রোগমুক্তির জন্য দোয়া অনুষ্ঠান ও প্রার্থনা করবেন।

সর্বোচ্চ চিকিৎসা নিশ্চিতের দাবি বিভিন্ন দল ও সংগঠনের : এদিকে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সর্বোচ্চ চিকিৎসা নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়েছে বিভিন্ন দল ও সংগঠন। বৃহস্পতিবার জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বলেন, কোভিড ও অন্যান্য রোগে আক্রান্ত সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে সিসিইউতে স্থানান্তরের সংবাদে দেশবাসীসহ আমরাও উদ্বিগ্ন।

দেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী এবং বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ খালেদা জিয়ার জীবন সুরক্ষার জন্য জরুরি ভিত্তিতে উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন। এ উন্নত চিকিৎসা নিশ্চিতকরণে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

এদিকে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার অবনতিতে গভীর উৎকণ্ঠা প্রকাশ করে অবিলম্বে পরিবার ও দলের চাওয়া অনুযায়ী বিদেশে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন-বিএফইউজে ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন-ডিইউজের একাংশ। বিএফইউজের সভাপতি এম আবদুল্লাহ ও মহাসচিব নুরুল আমীন রোকন এবং ডিইউজের সভাপতি কাদের গনি চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক মো. শহিদুল ইসলাম এক বিবৃতিতে বিদেশে চিকিৎসার অনুমতি প্রশ্নে যাচাই-বাছাইয়ের নামে কালক্ষেপণের কৌশল পরিহার করার

জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি ডোনেট বাংলাদেশ'কে জানাতে ই-মেইল করুন- donetbd2010@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

ডোনেট বাংলাদেশ'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© 2021 সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। ডোনেট বাংলাদেশ | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT