খাদ্যদ্রব্যে ২ শতাংশের বেশি ট্রান্সফ্যাট নয় - বর্ণমালা টেলিভিশন

শিল্পোৎপাদিত সকল তেল, ফ্যাট ও খাদ্যদ্রব্যে ট্রান্সফ্যাটের সর্বোচ্চ সীমা মোট ফ্যাটের ২ শতাংশ নির্ধারণের বিধান রেখে সোমবার ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালার গেজেট প্রকাশ করা হয়েছে।

২০২২ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে সরকার ঘোষিত লক্ষ্যমাত্রার মধ্যে সবাইকে এ ট্রান্সফ্যাট রাখতে হবে। সরকারের এ উদ্যোগকে ভোক্তা স্বাস্থ্য সুরক্ষায় মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে বলে জানিয়েছেন ক্যাবের সভাপতি গোলাম রহমান। পাশাপাশি স্বাগত জানিয়েছে বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান প্রজ্ঞা (প্রগতির জন্য জ্ঞান), ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ। প্রজ্ঞার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এসব তথ্য জানা গেছে।

প্রজ্ঞা প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, খাদ্যদ্রব্যে ক্ষতিকর ট্রান্সফ্যাটি অ্যাসিড নিয়ন্ত্রণে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) ঘোষিত সর্বোত্তম নীতি গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ। সেখানে

আরও বলা হয়- বিশ্বজুড়ে প্রতি বছর প্রায় পাঁচ লাখ মানুষ ট্রান্সফ্যাট ঘটিত হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করছেন। খাদ্যদ্রব্যে ট্রান্সফ্যাটি অ্যাসিড নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালা-২০২১ নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করার পাশাপাশি অসংক্রামক রোগ প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব.) আব্দুল মালিক বলেন, বর্তমানে তরুণ এবং মাঝবয়সী জনগোষ্ঠীর মধ্যে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বাড়ছে। এর অন্যতম কারণ, ট্রান্সফ্যাটযুক্ত খাবার গ্রহণ। প্রবিধানমালাটি বাস্তবায়িত হলে দেশে হৃদরোগ পরিস্থিতির উন্নতি হবে।

বাংলাদেশে ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমে সহায়তাদানকারী প্রতিষ্ঠান গ্লোবাল হেলথ অ্যাডভোকেসি ইনকিউবেটরের (জিএইচএআই) দক্ষিণ এশিয়া প্রোগ্রামের রিজিওনাল ডিরেক্টর বন্দনা শাহ্ বলেন, ভারত, ব্রাজিল, তুরস্কসহ অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশও বিশ্ব

স্বাস্থ্য সংস্থার আহ্বানে সাড়া দিয়ে ২০২৩ সালের মধ্যে খাদ্য সরবরাহ থেকে শিল্পোৎপাদিত ট্রান্সফ্যাট নির্মূলের ক্রমবর্ধমান তালিকায় যুক্ত হলো।

শিল্পোৎপাদিত ট্রান্সফ্যাটি অ্যাসিড (টিএফএ) বা ট্রান্সফ্যাট একটি ক্ষতিকর খাদ্য উপাদান। মাত্রাতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাট গ্রহণের ফলে উচ্চহারে হৃদরোগ, হৃদরোগজনিত মৃত্যু স্মৃতিভ্রংশ এবং স্বল্প স্মৃতিহানি জাতীয় রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়।

শিল্পোৎপাদিত সকল তেল, ফ্যাট ও খাদ্যদ্রব্যে ট্রান্সফ্যাটের সর্বোচ্চ সীমা মোট ফ্যাটের ২ শতাংশ নির্ধারণের বিধান রেখে সোমবার ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালার গেজেট প্রকাশ করা হয়েছে।

২০২২ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে সরকার ঘোষিত লক্ষ্যমাত্রার মধ্যে সবাইকে এ ট্রান্সফ্যাট রাখতে হবে। সরকারের এ উদ্যোগকে ভোক্তা স্বাস্থ্য সুরক্ষায় মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে বলে জানিয়েছেন ক্যাবের সভাপতি গোলাম রহমান। পাশাপাশি স্বাগত জানিয়েছে বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান প্রজ্ঞা (প্রগতির জন্য জ্ঞান), ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ। প্রজ্ঞার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এসব তথ্য জানা গেছে।

প্রজ্ঞা প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, খাদ্যদ্রব্যে ক্ষতিকর ট্রান্সফ্যাটি অ্যাসিড নিয়ন্ত্রণে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) ঘোষিত সর্বোত্তম নীতি গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ। সেখানে

আরও বলা হয়- বিশ্বজুড়ে প্রতি বছর প্রায় পাঁচ লাখ মানুষ ট্রান্সফ্যাট ঘটিত হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করছেন। খাদ্যদ্রব্যে ট্রান্সফ্যাটি অ্যাসিড নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালা-২০২১ নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করার পাশাপাশি অসংক্রামক রোগ প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব.) আব্দুল মালিক বলেন, বর্তমানে তরুণ এবং মাঝবয়সী জনগোষ্ঠীর মধ্যে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বাড়ছে। এর অন্যতম কারণ, ট্রান্সফ্যাটযুক্ত খাবার গ্রহণ। প্রবিধানমালাটি বাস্তবায়িত হলে দেশে হৃদরোগ পরিস্থিতির উন্নতি হবে।

বাংলাদেশে ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমে সহায়তাদানকারী প্রতিষ্ঠান গ্লোবাল হেলথ অ্যাডভোকেসি ইনকিউবেটরের (জিএইচএআই) দক্ষিণ এশিয়া প্রোগ্রামের রিজিওনাল ডিরেক্টর বন্দনা শাহ্ বলেন, ভারত, ব্রাজিল, তুরস্কসহ অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশও বিশ্ব

স্বাস্থ্য সংস্থার আহ্বানে সাড়া দিয়ে ২০২৩ সালের মধ্যে খাদ্য সরবরাহ থেকে শিল্পোৎপাদিত ট্রান্সফ্যাট নির্মূলের ক্রমবর্ধমান তালিকায় যুক্ত হলো।

শিল্পোৎপাদিত ট্রান্সফ্যাটি অ্যাসিড (টিএফএ) বা ট্রান্সফ্যাট একটি ক্ষতিকর খাদ্য উপাদান। মাত্রাতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাট গ্রহণের ফলে উচ্চহারে হৃদরোগ, হৃদরোগজনিত মৃত্যু স্মৃতিভ্রংশ এবং স্বল্প স্মৃতিহানি জাতীয় রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়।

খাদ্যদ্রব্যে ২ শতাংশের বেশি ট্রান্সফ্যাট নয়

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ২ ডিসেম্বর, ২০২১ | ৮:২৪ 106 ভিউ
শিল্পোৎপাদিত সকল তেল, ফ্যাট ও খাদ্যদ্রব্যে ট্রান্সফ্যাটের সর্বোচ্চ সীমা মোট ফ্যাটের ২ শতাংশ নির্ধারণের বিধান রেখে সোমবার ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালার গেজেট প্রকাশ করা হয়েছে। ২০২২ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে সরকার ঘোষিত লক্ষ্যমাত্রার মধ্যে সবাইকে এ ট্রান্সফ্যাট রাখতে হবে। সরকারের এ উদ্যোগকে ভোক্তা স্বাস্থ্য সুরক্ষায় মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে বলে জানিয়েছেন ক্যাবের সভাপতি গোলাম রহমান। পাশাপাশি স্বাগত জানিয়েছে বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান প্রজ্ঞা (প্রগতির জন্য জ্ঞান), ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ। প্রজ্ঞার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এসব তথ্য জানা গেছে। প্রজ্ঞা প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, খাদ্যদ্রব্যে ক্ষতিকর ট্রান্সফ্যাটি অ্যাসিড নিয়ন্ত্রণে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) ঘোষিত সর্বোত্তম নীতি গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ। সেখানে

আরও বলা হয়- বিশ্বজুড়ে প্রতি বছর প্রায় পাঁচ লাখ মানুষ ট্রান্সফ্যাট ঘটিত হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করছেন। খাদ্যদ্রব্যে ট্রান্সফ্যাটি অ্যাসিড নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালা-২০২১ নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করার পাশাপাশি অসংক্রামক রোগ প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব.) আব্দুল মালিক বলেন, বর্তমানে তরুণ এবং মাঝবয়সী জনগোষ্ঠীর মধ্যে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বাড়ছে। এর অন্যতম কারণ, ট্রান্সফ্যাটযুক্ত খাবার গ্রহণ। প্রবিধানমালাটি বাস্তবায়িত হলে দেশে হৃদরোগ পরিস্থিতির উন্নতি হবে। বাংলাদেশে ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমে সহায়তাদানকারী প্রতিষ্ঠান গ্লোবাল হেলথ অ্যাডভোকেসি ইনকিউবেটরের (জিএইচএআই) দক্ষিণ এশিয়া প্রোগ্রামের রিজিওনাল ডিরেক্টর বন্দনা শাহ্ বলেন, ভারত, ব্রাজিল, তুরস্কসহ অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশও

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আহ্বানে সাড়া দিয়ে ২০২৩ সালের মধ্যে খাদ্য সরবরাহ থেকে শিল্পোৎপাদিত ট্রান্সফ্যাট নির্মূলের ক্রমবর্ধমান তালিকায় যুক্ত হলো। শিল্পোৎপাদিত ট্রান্সফ্যাটি অ্যাসিড (টিএফএ) বা ট্রান্সফ্যাট একটি ক্ষতিকর খাদ্য উপাদান। মাত্রাতিরিক্ত ট্রান্সফ্যাট গ্রহণের ফলে উচ্চহারে হৃদরোগ, হৃদরোগজনিত মৃত্যু স্মৃতিভ্রংশ এবং স্বল্প স্মৃতিহানি জাতীয় রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


































শীর্ষ সংবাদ:
নিয়োগে দুর্নীতি: জীবন বীমার এমডির বিরুদ্ধে দুদকের মামলা মিহির ঘোষসহ নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবীতে গাইবান্ধায় সিপিবির বিক্ষোভ গাইবান্ধায় সেনাবাহিনীর ভূয়া ক্যাপ্টেন গ্রেফতার জগন্নাথপুরে সড়ক নির্মানের অভিযোগ এক ঠিকাদারের বিরুদ্ধে তারাকান্দায় অসহায় ও দুস্থদের মাঝে ছাত্রদলের খাবার বিতরণ দেবহাটায় অস্ত্র-গুলি ও ইয়াবা উদ্ধার আটক -১ রামগড়ে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বাগমারায় ভেদুর মোড় হতে নরদাশ পর্যন্ত পাকা রাস্তার শুভ উদ্বোধন সরকারি বিধিনিষেধ না মানায় শার্শায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা আদায় মধুখালীতে তিন মাসে ৪৩ টি গরু চুরি গাইবান্ধায় বঙ্গবন্ধু জেলা ভলিবল প্রতিযোগিতার উদ্বোধন গাইবান্ধায় শীতবস্ত্র বিতরণ রাজশাহীতে পুত্রের হাতে পিতা খুন বাগমারায় সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার রামগড়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার শীতবস্ত্র বিতরণ করেন ইউএনও ভাঃ উম্মে হাবিবা মজুমদার জগন্নাথপুরে জুয়ার আসরে পুলিশ দেখে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ এক ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সিপিবি নেতা মিহির ঘোষসহ ৬ জন কারাগারে পিআইও’র মানহানির মামলায় গাইবান্ধার ৪ সাংবাদিকসহ ৫ জনের জামিন গাইবান্ধায় প্রগতিশীল ছাত্র জোটের মানববন্ধন চাঁপাইনবাবগঞ্জে সোনালী ব্যাংক লি. গোমস্তাপুর শাখায় শীতবস্ত্র বিতরণ