ঢাকা, Saturday 18 September 2021

পিআইডি এর নিয়ম অনুসারে আবেদিত

করোনায় অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা ৯৫ ভাগ

প্রকাশিত : 08:11 AM, 29 December 2020 Tuesday
46 বার পঠিত

মোহাম্মদ রাছেল রানা | ডোনেট বাংলাদেশ নিউজ ডেক্স :-

ব্রিটেনের অক্সফোর্ড বিশ^বিদ্যালয় আবিষ্কৃত ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা ৯৫ ভাগ বলে দাবি করেছে এর উৎপাদন এবং বাজারজাতকরণের দায়িত্বে থাকা বহুজাতিক ওষুধ কোম্পানি এ্যাস্ট্রাজেনেকা। এর আগে ভ্যাকসিনটির কার্যকারিতার দু’ধরনের তথ্য সকলের সামনে আসায় বিতর্কের সৃষ্টি হয়। সঙ্গত কারণে সবার আগে তৃতীয় ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শেষ করেও ভ্যাকসিনটির অনুমোদন জটিলতা সৃষ্টি হয়।

প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) পাস্কাল ক্লউড রোলান্ড সরিওট ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম দ্যা সানডে টাইমসকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে বলেছেন, বিজ্ঞানীরা ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা বৃদ্ধির ফর্মুলা খুঁজে পেয়েছেন। কয়েক দিনের মধ্যেই এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হবে বলেও জানান তিনি।

অ্যাস্ট্রাজেনেকার তরফ থেকে আশা করা হচ্ছে, আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই তারা ব্রিটেনে ভ্যাকসিনটির

জরুরী ব্যবহারের অনুমোদন পাবে। যদিও এর আগে অ্যাস্ট্রাজেনেকা আশা করছিল বড়দিন অর্থাৎ ২৫ ডিসেম্বরের আগেই তারা ভ্যাকসিনের অনুমোদন পাবে।

দুটি পূর্ণাঙ্গ ডোজের ব্রিটেনের অক্সফোর্ড বিশ^বিদ্যালয়ের এই ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা ৬২ ভাগ। আর শুরুতে আধাডোজ এবং পরে এক ডোজ ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা ৯০ ভাগ পর্যন্ত দেখা গেছে। যদিও বিশ^স্বাস্থ্য সংস্থার গাইড লাইন অনুযায়ী ৫০ ভাগ কার্যকর যে কোন ভ্যাকসিন অনুমোদন দেয়ার কথা বলা হয়েছে। তৃতীয় ধাপের এই পরীক্ষার পর বিজ্ঞানীরা অভিযোগ করেন দুই পূর্ণাঙ্গ ডোজের চেয়ে দেড় ডোজ ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা কম হওয়ার কথা। এর পর অ্যাস্ট্রাজেনেকা নতুন করে আবার ট্রায়াল চালানোর সিদ্ধান্ত নেয়। তবে সেই ট্রায়ালের ফল এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে

প্রকাশ করা হয়নি। এর আগেই ভ্যাকসিনটির কার্যকারিতার বিষয়ে পাস্কাল সরিওট নতুন এই তথ্য সামনে নিয়ে এলেন।

দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশের মতো অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা নিয়ে বাংলাদেশের চিন্তাও সবার থেকে বেশি। এখন পর্যন্ত দেশে যেসব ভ্যাকসিন আসবে বলে সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে তার পুরোটাই অক্সফোর্ডের। এরমধ্যে তিন কোটি ডোজ ভ্যাকসিন সরকার ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের কাছ থেকে কিনেছে। অন্যদিকে বিশ^স্বাস্থ্য সংস্থা মোট জনসংখ্যার ২০ শতাংশ মানুষকে ভ্যাকসিন সরবরাহ করবে। সব মিলিয়ে প্রায় সাড়ে পাঁচ কোটি ভ্যাকসিন বাংলাদেশ জুনের ভেতরে পেয়ে যাচ্ছে। কোভ্যাক্সের প্রতিশ্রুত ভ্যাকসিন মে এবং জুন মাসের ভেতরে পাওয়ার আশা করছে সরকার। যার পুরোটাই অক্সফোর্ড আবিষ্কৃত।

সরকার বিনামূল্যে সাধারণ মানুষকে এসব ভ্যাকসিন সরবরাহ করবে।

বিশ^ব্যাপী এই ভ্যাকসিন বাজারজাত করার দায়িত্বে রয়েছে ওষুধ প্রস্তুতকারী কোম্পানি অ্যাস্ট্রাজেনেকা। ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট অ্যাস্ট্রাজেনেকার সঙ্গে ভ্যাকসিন উৎপাদনের চুক্তি করেছে। বাংলাদেশ সেখান থেকে তিন কোটি ডোজ ভ্যাকসিন কিনেছে; যা প্রতিজনকে দুই ডোজ হারে দেড় কোটি মানুষকে দেয়া সম্ভব হবে। তবে এখন নতুন ট্রায়ালের ফলাফলে ভ্যাকসিনের ডোজের হেরফের হতে পারে। যদি দেখা যায়, দেড় ডোজ দিলেই বেশি কার্যকারিতা পাওয়া যাচ্ছে তাহলে আরও বেশিসংখ্যক মানুষকে এই ভ্যাকসিন দেয়া সম্ভব হবে।

পাস্কাল সরিওট বলেছেন, চলতি সপ্তাহে তারা বিষয়টি পরিষ্কার করবেন, ঠিক কত ডোজ ভ্যাকসিন একজন মানুষকে গ্রহণ করতে হবে। এর আগেও চিকিৎসা

বিজ্ঞান বিষয়ক জার্নাল দ্যা ল্যানসেটে প্রথম, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ধাপের ফল প্রকাশ করে অ্যাস্ট্রাজেনেকা।

মার্কিন কোম্পানি ফাইজার এবং জার্মানির বায়োএনটেকের ভ্যাকসিনর কার্যকারিতা ৯৫ ভাগ আর মডার্না তাদের ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা ৯৪ দশমিক ৫ ভাগ বলে দাবি করছে।

ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যমগুলো বলছে, কয়েকদিনের মধ্যে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনটির অনুমোদন পাওয়া যাবে। তবে এসব সংবাদে ব্রিটিশ সরকারের দায়িত্বশীল কারও বক্তব্য নেই। অন্যদিকে প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়া (পিটিআই) এক খবরে বলছে, ভারতীয় কর্তৃপক্ষও ব্রিটেনের দিকে তাকিয়ে রয়েছে। ব্রিটেন ভ্যাকসিনটির অনুমোদন দেয়ার পরই ভারত এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি ডোনেট বাংলাদেশ'কে জানাতে ই-মেইল করুন- donetbd2010@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

ডোনেট বাংলাদেশ'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© 2021 সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। ডোনেট বাংলাদেশ | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT