আক্রান্ত হওয়ার এক বছর পরও ভুগতে হয় করোনার উপসর্গে : আইইডিসিআর – বর্ণমালা টেলিভিশন

আক্রান্ত হওয়ার এক বছর পরও ভুগতে হয় করোনার উপসর্গে : আইইডিসিআর

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ২৭ জানুয়ারি, ২০২২ | ৯:৫২ 47 ভিউ
আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে গেলেই করোনার ভোগান্তি শেষ হয়ে গেলো তা ভাবার কোনো কারণ নেই। সুস্থ হয়ে উঠার পরও অনেক মানুষই বিভিন্ন উপসর্গের অভিযোগ করে আসছিলেন দীর্ঘদিন যাবত। এবার গবেষণায় এর প্রমাণ দিলো সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)। প্রতিষ্ঠানটি বলছে, করোনাভাইরাসে সংক্রমণের ছয়মাস পরও ৭০ শতাংশ মানুষের শরীরে করোনা পরবর্তী নানা উপসর্গ বিদ্যমান থাকছে। যা তিন মাস পর ৭৮ শতাংশ এবং এক বছর পরও থেকে যায় ৪৫ শতাংশ মানুষের মধ্যে। আর উচ্চ রক্তচাপ ও ডায়াবেটিসসহ অসংক্রামক ব্যাধিতে আক্রান্তদের করোনা পরবর্তী উপসর্গের আশঙ্কা আরও দুই থেকে তিন গুণ পর্যন্ত বেশি থাকে। বৃহস্পতিবার আইইডিসিআরের ওয়েবাসইটে প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়, অনেক কোভিড-১৯ রোগী সংক্রমণ পরবর্তী সময়ে বিভিন্ন উপসর্গে ভুগে থাকেন যা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক কোভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গ (পোস্ট কোভিড কন্ডিশন) নামে অভিহিত করেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, উচ্চ রক্তচাপে আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে নিয়মিত ওষুধ সেবনকারীদের কোভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা অনিয়মিত ওষুধ সেবনকারী তুলনায় প্রায় ৯ ভাগ পর্যন্ত কমে যায়। একইভাই ডায়াবেডিস রোগীদের মধ্যে নিয়মিত ওষুধ সেবনকারী কোভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কায় নিয়মিত ওষুধ সেবন করেন না তাদের তুলনায় প্রায় ৭ শতাংশ পর্যন্ত কমে যায়। গবেষণার প্রাথমিক তথ্য পর্যালোচনায় দেখা যায়, উপসর্গযুক্ত কোভিড-১৯ রোগডিদের উপসর্গ দেখা দেওয়ার ৩ মাস, ৬ মাস, ৯ মাস ও ১২ মাস অতিক্রান্ত হওয়ার পর যথাক্রমে ৭৮ শতাংশ, ৭০ শতাংশ, ৬৮ শতাংশ ও ৪৫ শতাংশের দেহে কোভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গ দেখা গেছে। তা যে উচ্চ রক্তচাপ ও ডায়াবেটিস রোগীদের কোভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমাতে রেজিস্ট্রার্ড চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশন মোতাবেক নিয়মিত ওষুধ সেবন করা জরুরি। প্রতিবেদনে বলা হয়, চলমান গবেষণার মাধ্যমে ভবিষ্যতে কোভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গের ব্যাপারে আরও হালনাগাদ তথ্য পাওয়া যাবে। তবে, এটি প্রতিরোধে আইইডিসিআর সবাইকে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পাশাপাশি পূর্ণ ডোজ কোভিড-১৯ টিকা নেওয়ার আহ্বান জানায়।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:



































শীর্ষ সংবাদ:
বেনাপোল সীমান্তে সচল পিস্তলসহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী গ্রেফতার নির্মাণসামগ্রীর দাম চড়া, উন্নয়ন প্রকল্পে ধীরগতি কলম্বোতে কারফিউ জারি টিকে থাকার লড়াইয়ে ছক্কা হাকাতে পারবেন ইমরান খান? করোনায় আজও মৃত্যুশূন্য দেশ, শনাক্ত কমেছে ‘ততক্ষণ খেলব যতক্ষণ না আমার চেয়ে ভালো কাউকে দেখব’ এবার ইয়েমেনে পাল্টা হামলা চালাল সৌদি জোট স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালিতে যুবলীগ নেতার মৃত্যু সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র রপ্তানি করেছে মোদি সরকার বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দেওয়া নিয়ে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, এলাকা রণক্ষেত্র ইউক্রেনকে বিপুল ক্ষেপণাস্ত্র ও মেশিনগান দিয়েছে জার্মানি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে নারীকে ধর্ষণ, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩ ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের ‘লাল-সবুজের পতাকা বিশ্বজুড়ে আনবে একতা‘-শীর্ষক সভা বঙ্গবন্ধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নওগাঁর নওহাঁটায় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন । ভূরুঙ্গামারীতে ব্যাপরোয়া অটোরিকশা কেরে নিল শিশুর ফাহিম এর প্রাণ ভূরুঙ্গামারী কিশোর গ‍্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আহত যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ৬ তম রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ক্যাম্পেইন বেনাপোলে পৃথক অভিযানে ৫২ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক-২ বেনাপোল স্থলপথে স্টুডেন্ট ভিসায় বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমন নিষেধ গেরিলা যোদ্ধা অপূর্ব