অনুসন্ধানে নেমেছে প্রতিযোগিতা কমিশন কারসাজি ৬০ পণ্য ও সেবায় – বর্ণমালা টেলিভিশন

অনুসন্ধানে নেমেছে প্রতিযোগিতা কমিশন কারসাজি ৬০ পণ্য ও সেবায়

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ২১ ডিসেম্বর, ২০২১ | ৯:১০ 88 ভিউ
সিঙ্গেল ডিজিটে ঋণের সুদহার নির্ধারণের পরও তা কার্যকর করছে না অনেক ব্যাংক। পাশাপাশি জ্বালানি তেলের দাম বাড়ার অজুহাতে অস্বাভাবিকভাবে বাড়ানো হয়েছে গণপরিবহণের ভাড়া। আবার বিশ্ববাজারে এই মুহূর্তে জ্বালানি তেলের দাম কমলেও এর প্রভাব পড়েনি এ ভাড়ায়। একইভাবে চরম বিশৃঙ্খলা চলছে চিকিৎসা খাতে। রোগীদের জিম্মি করে বেসরকারি হাসপাতালগুলো বড় অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে আইসিইউ, সিসিইউ ও লাইফ সাপোর্টের নামে। অর্থাৎ, পণ্যের বাজার ও সেবা খাত নিয়ন্ত্রণ করছে একশ্রেণির অসাধু চক্র। বিদ্যমান পরিস্থিতিতে ভোক্তারা রীতিমতো অসহায়। এমন পরিস্থিতিতে নিত্যপণ্য, ওষুধ ও ব্যাংকিং খাতসহ ৬০টি পণ্য ও সেবার অযৌক্তিক মুনাফার কারণ শনাক্ত করতে অনুসন্ধানে নেমেছে প্রতিযোগিতা কমিশন। পণ্য ও সেবার মূল্য পর্যালোচনা করে দায়ীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে পাওয়া গেছে এসব তথ্য। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশনের চেয়ারম্যান মো. মফিজুল ইসলাম বলেন, মার্কেট প্রতিযোগী করে গড়ে তুলতে ৬০টি পণ্য ও সেবার ডেটা সংগ্রহ করেছে কমিশন। সঠিক তথ্য হাতে আসার পর খতিয়ে দেখা হবে সেখানে নির্দিষ্ট কোনো পণ্য নিয়ে সিন্ডিকেট বা অসাধু উপায় অবলম্বন করা হচ্ছে কি না। তিনি আরও বলেন, যে কোনো পণ্যের বাজারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার আগে ওই পণ্যের মার্কেটের তথ্য থাকতে হবে। তার অভিমত-বাজারে প্রতিযোগিতা সৃষ্টি করতে পারলে সংশ্লিষ্ট পণ্যের দাম এমনিতেই ২০ থেকে ২৫ শতাংশ কমে যাবে। কনজুমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) সভাপতি গোলাম রহমান বলেন, ৬০টি পণ্য ও সেবার তথ্য সংগ্রহ করার মধ্য দিয়ে প্রতিযোগিতা কমিশন যে সক্রিয় হয়ে উঠছে, এটি আশার কথা। কমিশনকে যে আইনি ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে, তা দিয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নিলে বাজারে যে অসাধুতা আছে, তা প্রতিরোধে কার্যকর ভূমিকা রাখবে। প্রতিযোগিতা কমিশন সূত্রে জানা যায়, নির্দিষ্ট পণ্যের নির্দিষ্ট সিন্ডিকেট প্রতিরোধ করতে আটটি খাতে ৬০টি পণ্য ও সেবার ওপর অনুসন্ধান করা হচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য-ভোজ্যতেল, চিনি, চাল (মোটা ও সরু) ছোলা, খেজুর, গম, আটা. পেঁয়াজ, রসুন, আদা, শিশুখাদ্য, দুধ (গুঁড়া ও তরল), লবণ, মসুর ডাল, আলু ও সাবান। আরও আছে গরুর মাংস, বয়লার মুরগি, ডিম, আমদানীকৃত ফল, প্যাকিং ফুড, তামাকজাত পণ্য এবং কনডেন্স মিল্ক। এসব পণ্যের আমদানি তথ্য, যেসব দেশ থেকে কেনা হচ্ছে, সেখানের বিক্রয়মূল্য, এসব পণ্যের বার্ষিক মোট চাহিদা, কোন কোন কোম্পানি কতটুকু আমদানি এবং বাজার দখল করে আছে তা সংগ্রহ করা হবে। কমিশনের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা জানান, তথ্য সংগ্রহের পর বিশ্লেষণ করে দেখা হবে বাজার কোনো প্রতিযোগিতা ছাড়া চলছে কি না। সেখানে কোনো সিন্ডিকেটের কারসাজি আছে কি না। পাশাপাশি নতুন ব্যবসায়ী বা উদ্যোক্তা এ খাতে প্রবেশ করতে কোনো ধরনের প্রতিবন্ধকতা আছে কি না-সেটিও অনুসন্ধানে তুলে আনা হবে। এরপর নেওয়া হবে আইনগত ব্যবস্থা। কমিশন সূত্র আরও জানায়, দেশে স্বাস্থ্য খাতে একধরনের বিশৃঙ্খলা চলছে। বাজারে অতিপ্রয়োজনীয় ওষুধের মূল্য নেওয়া হচ্ছে ইচ্ছামতো। এছাড়া বেসরকারি হাসপাতালগুলোয় রোগীদের জিম্মি করে আদায় করা হচ্ছে আইসিইউ ও সিসিইউ এবং লাইফ সাপোর্ট চার্জ। ফলে ওষুধের বাজারে প্যারাসিটামল, এজিথ্রোমাইসিন, অ্যামক্সিসিলিন, হাইড্রোক্সসাইড গ্রুপ, অমিপ্রাজল গ্রুপ, আমদানীকৃত ওষুধের (অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ৫টি) তথ্য সংগ্রহ করা হবে। পাশাপাশি বেসরকারি হাসপাতালের সিট, কেবিন, আইসিইউ, সিসিইউ, লাইফ সাপোর্ট ব্যয়, হার্টে রিং বসানো চার্জ ও সিজারিয়ান অপারেশন চার্জের ব্যাপারে অনুসন্ধান করা হবে। এসব চার্জ কীভাবে আদায় করছে, কোনো নীতিমালা আছে কি না, তা খতিয়ে দেখা হবে। পাশাপাশি বিভিন্ন রোগ নিরূপণে পরীক্ষা (ইসিজি, এমআরআই, লিপিড প্রোফাইল, এক্সরে, সিবিসি, ক্রিয়েটিনিটি, আল্ট্রাসনোগ্রাম ও সিটি স্ক্যান) ফির বিষয়ে অনুসন্ধান করা হবে। এছাড়া পরিবহণ খাতের মধ্যে রয়েছে আন্তঃজেলা যাত্রী ও পণ্য পরিবহণ ব্যয়; বাস, ট্রাক ও লঞ্চ ভাড়া, কৃষি পণ্যের মধ্যে ধান, বীজ ও কীটনাশক, পশুখাদ্য ও চা। শিল্পপণ্যের মধ্যে পোলট্রি ফিড, ফিসফিড, বৈদ্যুতিক কেবল ও অ্যাপ্লায়েন্স, চামড়া, সুতা, রড, সিমেন্ট, মিনারেল ওয়াটার, এনার্জি সেভিং বাল্ব, টিসু পেপার, মুদ্রণসামগ্রী-কাগজ, কালি, বোর্ড ও ছাপা দরের ওপর ডেটা সংগ্রহের আওতায় আনা হবে। আর আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে-ব্যাংকঋণের সুদের হারসহ গ্রাহকসেবার চার্জ, বিমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান, মোবাইল ব্যাংকিং এবং শিক্ষা খাতের মধ্যে বেসরকরি শিক্ষা খাতের টিউশন ফি, সেশন ফি ও উন্নয়ন ফি। বাণিজ্য খাতে রয়েছে-বোতলজাত এলপিজি, ক্লিয়ারিং এবং ফ্রেইট ফরওয়াডিং, ইলেকট্রিক ও ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী ও ই-কর্মাস ফুড ডেলিভারি সার্ভিস। এছাড়া আইটি খাতে কম্পিউটার এক্সেসরিজ, ইন্টারনেট সার্ভিস (ব্রডব্যান্ড ও মোবাইল ইন্টারনেট)। আর কেবল নেটওয়ার্ক, মোবাইল ফোন অপারেটর, ল্যাপটপ, ডেস্কটপ, কম্পিউটার, রাউডারের ডেটা সংগ্রহ করা হবে। এসব বিষয়ে অনুসন্ধানে প্রতিযোগিতা কমিশন থেকে ৯টি টিম গঠন করা হয়েছে। পাশাপাশি প্রতি টিম সর্বোচ্চ ১০টি পণ্যের বাজার অনুসন্ধানে নেমেছে। তবে পণ্য ও সেবার তথ্য অনুসন্ধানে প্রথম ও দ্বিতীয় অগ্রাধিকারভিত্তিক পণ্যের তালিকা করা হয়েছে। প্রতিযোগিতা কমিশনের টিমগুলো প্রথম অগ্রাধিকার পণ্য ও সেবা নিয়ে কাজ করবে। কমিশনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা জানান, প্রতিটি খাতে পণ্যের মূল্য ও ব্যয় নির্ধারণের নেই কোনো নীতিমালা। এছাড়া অভিভাবকদের একধরনের জিম্মি করে স্কুল থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত আদায় করা হচ্ছে ইচ্ছামতো বিভিন্ন ফি ও চার্জ। নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের বাজার ঠিক করতে রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছে সংশ্লিষ্টরা। ওষুধের বাজারের মূল্যস্ফীতির চাপে অসুস্থ রোগীদের অবস্থা আরও খারাপ হয়ে যাচ্ছে। দেশের ১৬ কোটি ভোক্তার বাজারে প্রতিযোগিতা সৃষ্টি না থাকায় চলছে চরম বিশৃঙ্খলা।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:



































শীর্ষ সংবাদ:
বেনাপোল সীমান্তে সচল পিস্তলসহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী গ্রেফতার নির্মাণসামগ্রীর দাম চড়া, উন্নয়ন প্রকল্পে ধীরগতি কলম্বোতে কারফিউ জারি টিকে থাকার লড়াইয়ে ছক্কা হাকাতে পারবেন ইমরান খান? করোনায় আজও মৃত্যুশূন্য দেশ, শনাক্ত কমেছে ‘ততক্ষণ খেলব যতক্ষণ না আমার চেয়ে ভালো কাউকে দেখব’ এবার ইয়েমেনে পাল্টা হামলা চালাল সৌদি জোট স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালিতে যুবলীগ নেতার মৃত্যু সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র রপ্তানি করেছে মোদি সরকার বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দেওয়া নিয়ে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, এলাকা রণক্ষেত্র ইউক্রেনকে বিপুল ক্ষেপণাস্ত্র ও মেশিনগান দিয়েছে জার্মানি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে নারীকে ধর্ষণ, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩ ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের ‘লাল-সবুজের পতাকা বিশ্বজুড়ে আনবে একতা‘-শীর্ষক সভা বঙ্গবন্ধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নওগাঁর নওহাঁটায় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন । ভূরুঙ্গামারীতে ব্যাপরোয়া অটোরিকশা কেরে নিল শিশুর ফাহিম এর প্রাণ ভূরুঙ্গামারী কিশোর গ‍্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আহত যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ৬ তম রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ক্যাম্পেইন বেনাপোলে পৃথক অভিযানে ৫২ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক-২ বেনাপোল স্থলপথে স্টুডেন্ট ভিসায় বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমন নিষেধ গেরিলা যোদ্ধা অপূর্ব