সংবাদপত্রে চিঠি কিভাবে প্রকাশ করবেন?

১৮ আগস্ট ২০১৭, ১০:০৪ অপরাহ্ণ  -->| নিউজটি পড়া হয়েছে : 227 বার

শেফাতুল ইসলাম পিন্জু [ বার্তা বিভাগ ]

সংবাদপত্রে প্রকাশের জন্যে চিঠি:

জনগণের অভাব অভিযোগ, স্থানীয় কোন সমস্যা, জনগুরুত্বপূর্ণ কোন বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে অনেক সময় সংবাদপত্রের শরণাপন্ন হতে হয় । কেউ কেউ ব্যক্তিগতভাবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করেও যথাযথ প্রতিকার পেতে ব্যর্থ হন । তাই সমস্যার আশু সমাধানের জন্যে ঊর্ধ্বতন মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পত্র- পত্রিকায় চিঠি লিথতে হয়। বিভিন্ন পত্রিকায় চিঠিপত্র কলামে সেইসব চিঠি গুরুত্ব দিয়ে ছাপা হয়ে থাকে। যেমন: ইত্তেফাকের ‘চিঠিপত্র’, প্রথম আলোর ‘পাঠকের অভিমত’ জনকন্ঠের ‘সম্পাদক সমীপে’ ইত্যাদি। প্রকাশিত চিঠির বক্তব্য ও দায়দায়িত্ব লেখক উপর বর্তায়। সম্পাদক প্রকাশিত চিঠির কোনো দায়-দায়িত্ব নেন না। এসব কলমের নিচে তাই লেখা থাকে–‘মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।’


সংবাদপত্রে প্রকাশের জন্য আসলে দুঠো চিঠি লিখতে হয়:

সংশ্লিষ্ট পত্রিকার সম্পাদককে অনুরোধ করে পত্র এবং

পত্রিকায় প্রকাশের জন্য পত্র।

পত্রলেখক যে সংবাদপত্রে চিঠিটি প্রকাশ করতে চান, সেই পত্রিকার সম্পাদককে অনুরোধ জানিয়ে একটি চিঠি লিখতে হয়। এই চিঠি সংক্ষিপ্ত হওয়াই ভালো। সম্পাদককে সম্বোধন করা ছাড়াও যথাস্থানে তারিখ এবং নিচে প্রেরকের নাম, ঠিকানা ও স্বাক্ষর দিতে হয়। অনুরোধপত্রের সঙ্গে প্রকাশিতব্য চিঠি যুক্ত করে পাঠানো হয়।

পত্রিকায় প্রকাশিতব্য চিঠিটাই মূলচিঠি। বিষয়বস্তু অনুযাযী সেটি তথ্যসমৃদ্ধ, যুক্তিযুক্ত, বাস্তবভিত্তিক হওয়া উচিত। প্রাসঙ্গিগ বিষয় এমনভাবে উল্লেখ করতে হবে, যাতে কর্তৃপক্ষ বিষয়টির গুরুত্ব অনুভব করে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণে অগ্রসর হয়। সমস্যাও বিষয়বস্তুর উপর নির্ভর করে চিঠি বড় বা ছোট হয়। চিঠির বক্তব্য যথাযথ, বিষয়ানুগ, বাহুল্যবর্জিত ও সংক্ষিপ্ত হওয়াই বাঞ্ছনীয়। এ ধরনের চিঠিতে সাধারণত ভাবাবেগ প্রকাশের সুযোগ নেই। বক্তব্যের পারস্পর্য এবং ভাষার শুদ্ধতার প্রতি তাই বিশেষ মনোযোগ দিতে হবে।

সংবাদপত্রে প্রকাশের জন্যে চিঠির নমুনা :

নমুনা-১:

‘বৃক্ষরোপন সপ্তাহ’ পালনের প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ করে সংবাদপ্রত্রে প্রকাশের জন্য পত্র।

 

তারিখ: ১২-০৩-২০১৬

সম্পাদক

বীরঙ্গনা ডট কম

ধারাকান্দী, গৌরীপুর-২২৭০, ময়মনসিংহ

 

বিষয়সংযুক্তি পত্রটি প্রকাশের জন্য আবেদন ।

 

জনাব,

আপনার বহুল প্রচারিত, ‘বীরঙ্গনা ডট কম’ অনলাইন পত্রিকায় জনগুরুত্বপূর্ণ পত্রটি প্রকাশ করলে বিশেষভাবে বাধিত হব।

নিবেদক-

হুমায়ূন কবির মাসুম

মাওহা নয়ানগর, গৌরীপুর-ময়মনসিংহ।

 

**বৃক্ষরোপন সপ্তাহ পালনের প্রয়োজনীয়তা**

মানুষের জীবনে বৃক্ষের প্রয়োজনীয়তা কতটুকু, তা আমরা কখনো ভেবে দেখি না। ডাঙায় তোলা মাছের যেমন প্রাণহীন ছটফট অবস্থা হয়, সে তুলনায় বৃক্ষহীন মানুষের অবস্থা হবে আরো ভয়াবহ। সবুজ বৃক্ষ আমাদের অক্সিজেন দিয়ে প্রাণ রক্ষা করে।পৃথিবীর পরিবেশকে সুস্থ ও শীতল রাখে। শুধু তাই নয়, বৃক্ষ আমাদের ফুল দেয়, ফল দেয়, শীতল ছায়া দেয়। গৃহ নির্মাণ, আসবাবপত্র, সবকিছুর জন্য আমরা প্রকৃতির অকৃপণ দান বৃক্ষের ওপরই নির্ভরশীল। তাই সবুজ বনভূমিকে বলা হয় পৃথিবীর ফুসফুস ।

আমাদের দেশে প্রয়োজনের তুলনায় বৃক্ষ ও বনভূমির পরিমাণ খুবই কম। যেকোনো মোট ভূখন্ডের পঁচিশ শতাংশ বনভূমি থাকা দরকার। অথচ আমাদের দেশে আছে মাত্র সতের শতাংশ। তারপরও প্রয়োজনে–অপ্রয়োজনে কেটে ফেলে আমরা সবুজ বনভূমি উজাড় করে চলেছি। এরকম অবস্থা চলতে থাকলে যেকোনো সময় আমরা ভয়াবহ প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের মুখোমুখি হতে পারি। তাই শীঘ্রই সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগে আমাদের বৃক্ষরোপন সপ্তাহের পালনের মধ্য দিয়ে প্রচুর বনায়ন করতে হবে ।

‘একটা গাছ কাটলে তিনটি গাছের চারা লাগাতে হবে’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে, বৃক্ষরোপন কর্মসূচি গ্রহণ করার জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

বিনীত-

মাওহা নয়ানগর গ্রামবাসীর পক্ষে ,

হুমায়ূন কবির মাসুম

গৌরীপুর-ময়মনসিংহ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
ডোনেট স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা আর্ত মানবতার সেবা মূলক প্রতিষ্ঠান। ডোনেট স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম, সরকার ও রাষ্ট্ররিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোন মন্তব্য না করার জন্য বর্নমালা টেলিভিশনের পাঠক ও সুভাকাঙ্খিদের বিশেষ ভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোন ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।
পাঠকের মন্তব্য
Advertisement
সম্পাদকীয়

যাহা করিবার এখনই করিতে হইবে

গ্রিনহাউস গ্যাসের জন্য ক্রমশ উত্তপ্ত হইয়া উঠিতেছে এই ধরিত্রী—ইহার স্বপক্ষে প্রকাশ পাইতেছে নিত্যনূতন তথ্য। গ্রিনহাউস গ্যাসের মধ্যে সবচাইতে বেশি উচ্চারিত নামটি হইল কার্বন ডাই-অক্সাইড। সমপ্রতি... বিস্তারিত
জনমত জরিপ

সংবিধান মোতাবেক নীতিমালা প্রণয়ন করে সর্বোচ্চ আদালতের বিচারপতি নিয়োগের দাবি জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি। আপনি কি এ দাবির সঙ্গে একমত?

Loading ... Loading ...
Developed By : Donet IT