মানববর্জ্য থেকে হবে সোনা-রুপা!

২২ অক্টোবর ২০১৭, ১০:২১ অপরাহ্ণ || নিউজটি পড়া হয়েছে : 304 বার

bornomalatv

মানববর্জ্য থেকে পাওয়া সোনা। মাইক্রোস্কোপের সাহায্যে দেখানো হয়েছে।তা হলে দেখা যাচ্ছে মানববর্জ্য সত্যিই অনেক দামি! অন্তত মার্কিন বিজ্ঞানীদের সাম্প্রতিক এ আবিষ্কারের কথা শুনে তাই মনে হবে।

গবেষকেরা দাবি করেছেন, মানববর্জ্য বিশেষভাবে পরিশোধন করে সোনা, রুপার মতো মূল্যবান উপাদান পাওয়া সম্ভব, যা ইলেকট্রনিকস ও সংকর ধাতু হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। বর্তমানে গবেষকেরা মানববর্জ্য থেকে মূল্যবান ধাতু শনাক্ত করার এবং তা উদ্ধার করার উপায় নিয়ে গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন।


গবেষকেরা দাবি করছেন, ইলেকট্রনিকসের কাজে ব্যবহৃত মূল্যবান ধাতুর জন্য খোঁড়াখুঁড়ি করার প্রয়োজন কমাবে তাঁদের এই উদ্ভাবন এবং পরিবেশে অনাকাঙ্খিত ধাতব ছড়িয়ে পড়া রোধ করবে। যুক্তরাষ্ট্রের ডেনভারে শুরু হওয়া আমেরিকান কেমিক্যাল সোসাইটির ২৪৯ তম ন্যাশনাল মিটিং অ্যান্ড এক্সপজিশনে গবেষণা বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হয়েছে। মানববর্জ্যে সোনার মতো যে মূল্যবান ধাতু রয়েছে তার মূল্য লাখ লাখ ডলার ছাড়িয়ে যাবে। মানববর্জ্য থেকে সোনা বের করা গেলে তা যেমন অর্থকরী হবে, তেমনি পরিবেশও বাঁচানো যাবে।


মূল্যবান রুপা। সোনা উদ্ধারের প্রক্রিয়া সম্পর্কে বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, প্রাকৃতিক, জৈব ও রাসায়নিক এই তিনটি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার পর পানি ও জৈব উপাদান পৃথক করা হবে। সেই জৈব উপাদান থেকে মূল্যবান ধাতু সংগ্রহ করার কাজ করছেন স্মিথ ও তাঁর গবেষক দল। এরই মধ্যে পরিশোধিত বর্জ্যের মধ্যে প্লাটিনাম, সোনা, রুপার মতো পদার্থ পাওয়া গেছে বলে বিজ্ঞানীরা দাবি করেছেন। ইলেকট্রন মাইক্রোস্কোপ ব্যবহার করে ক্ষুদ্র এই ধাতব কণাগুলোর অস্তিত্ব বের করা সম্ভব হয়েছে।

যুক্তরাজ্যের জিওলজিক্যাল সার্ভের গবেষক ক্যাথলিন স্মিথ জানিয়েছেন, ‘মানববর্জ্য থেকে ক্ষতিকর কিছু উপাদান সরিয়ে ফেলতে পারলে এই জৈব-পদার্থের বেশির ভাগই আমরা জমিতে ব্যবহার করতে পারব এবং এ থেকে মূল্যবান ধাতু ও অন্য উপাদান বের করতে সক্ষম হব।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
ডোনেট স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা আর্ত মানবতার সেবা মূলক প্রতিষ্ঠান। ডোনেট স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম, সরকার ও রাষ্ট্ররিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোন মন্তব্য না করার জন্য বর্নমালা টেলিভিশনের পাঠক ও সুভাকাঙ্খিদের বিশেষ ভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোন ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।
পাঠকের মন্তব্য
Advertisement
সম্পাদকীয়

যাহা করিবার এখনই করিতে হইবে

গ্রিনহাউস গ্যাসের জন্য ক্রমশ উত্তপ্ত হইয়া উঠিতেছে এই ধরিত্রী—ইহার স্বপক্ষে প্রকাশ পাইতেছে নিত্যনূতন তথ্য। গ্রিনহাউস গ্যাসের মধ্যে সবচাইতে বেশি উচ্চারিত নামটি হইল কার্বন ডাই-অক্সাইড। সমপ্রতি... বিস্তারিত
জনমত জরিপ

সংবিধান মোতাবেক নীতিমালা প্রণয়ন করে সর্বোচ্চ আদালতের বিচারপতি নিয়োগের দাবি জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি। আপনি কি এ দাবির সঙ্গে একমত?

Loading ... Loading ...
Developed By : Donet IT