বড়াইগ্রামে স্বামীর পরকীয়া প্রেমের বাধা দিতে গিয়ে লাশ হলো নববধূ-স্বামী, শ্বশুর ও ভাসুর আটক

২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১১:৪৯ অপরাহ্ণ  -->| নিউজটি পড়া হয়েছে : 167 বার

শেফাতুল ইসলাম পিন্জু [ বার্তা বিভাগ ]

[ শাকিল আহমেদ; নাটোর প্রতিনিধি] গত রোজার ঈদের পরের দিন নাটোরের বড়াইগ্রামের গোপালপুর ইউনিয়নের শিবপুর গ্রামের খোকন মিয়ার ছেলে রুবেল হোসেনের ঘরে বউ হয়ে আসেন সিরাজগঞ্জ জেলার কড্ডার মোড় এলাকার আকবর আলীর মেয়ে ফাতেমা বেগম। বিয়ের পরই নববধূ ফাতেমা জানতে পারে জনৈক ভাবী ও একাধিক নারীর সাথে পরকীয়া সম্পর্ক রয়েছে স্বামীর। আর এই সন্দেহে স্বামী-স্ত্রী’র মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া ও স্ত্রীকে মারধোর করার ঘটনা ঘটতো। অবশেষে স্বামীর পরকীয়া প্রেমের প্রতিবাদ ও বাধা দিতে গিয়ে লাশ হলো নববধূ ফাতেমা বেগম (১৮)।
গলাটিপে হত্যা করার অভিযোগে পুলিশ বৃহস্পতিবার দুপুরে ফাতেমার স্বামী রুবেল হোসেন (২৩), ভাসুর (স্বামীর বড় ভাই) জুয়েল হোসেন (৩০) ও শ্বশুর খোকন মিয়া (৫৬)কে গ্রেফতার করে নাটোর জেলা হাজতে প্রেরণ করেছে। এর আগে বুধবার দুপুুরে পুলিশ স্বামী রুবেল হোসেনের বাড়ি থেকে ওই নববধূর লাশ উদ্ধার করে। জানা যায়, বুধবার সকালে কোন এক সময় ফাতেমাকে গলা টিপে হত্যার পর গলায় দড়ি লাগিয়ে ঘরের ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে রেখে আতœহত্যা করেছে বলে প্রচারণা চালায় শ্বশুরবাড়ির লোকজন। কিন্তু পুলিশের কাছে নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক প্রতিবেশী ও ফাতেমার পরিবারের লোকজন জানিয়েছেন, তাকে গলা টিপে হত্যা করা হয়েছে।
গোপালপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম খান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ফাতেমার মৃতদেহ আমি দেখেছি। তার গলায় শ্বাসরোধের চিহ্ন রয়েছে। তবে কিভাবে ও কখন সে লাশ হলো তা বলতে পারবো না।
ফাতেমার বাবা আকবর আলী জানান, তার মেয়েকে রুবেল সহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন গলাটিপে হত্যা করে প্রচার চালিয়েছে ফাতেমা আতœহত্যা করেছে। এ ব্যাপারে তিনি থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। তিনি আরও অভিযোগ করে বলেন, বুধবার বিকেলে লাশ ময়না তদন্তের জন্য নাটোর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হলেও বৃহস্পতিবার বেলা ২টা পর্যন্ত (এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত) ময়না তদন্ত সম্পন্ন হয়নি এবং তার মেয়ের লাশ তাদের কাছে হস্তান্তর করেনি।
বড়াইগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহরিয়ার খান জানান, ফাতেমার লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে এটি হত্যা হিসেবে প্রমাণ মিলেছে। ঘটনার সাথে জড়িত অভিযুক্ত দুই ছেলেসহ পিতাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বৃহস্পতিবার দুপুুরে জেলা হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

 


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
ডোনেট স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা আর্ত মানবতার সেবা মূলক প্রতিষ্ঠান। ডোনেট স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম, সরকার ও রাষ্ট্ররিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোন মন্তব্য না করার জন্য বর্নমালা টেলিভিশনের পাঠক ও সুভাকাঙ্খিদের বিশেষ ভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোন ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।
পাঠকের মন্তব্য
Advertisement
সম্পাদকীয়

যাহা করিবার এখনই করিতে হইবে

গ্রিনহাউস গ্যাসের জন্য ক্রমশ উত্তপ্ত হইয়া উঠিতেছে এই ধরিত্রী—ইহার স্বপক্ষে প্রকাশ পাইতেছে নিত্যনূতন তথ্য। গ্রিনহাউস গ্যাসের মধ্যে সবচাইতে বেশি উচ্চারিত নামটি হইল কার্বন ডাই-অক্সাইড। সমপ্রতি... বিস্তারিত
জনমত জরিপ

সংবিধান মোতাবেক নীতিমালা প্রণয়ন করে সর্বোচ্চ আদালতের বিচারপতি নিয়োগের দাবি জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি। আপনি কি এ দাবির সঙ্গে একমত?

Loading ... Loading ...
Developed By : Donet IT